• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • Sushmita Sen: বয়স হার মেনেছে তাঁর কাছে, সুস্মিতা সেনের রূপচর্চার গোপন চাবিকাঠি জানতে চান?

Sushmita Sen: বয়স হার মেনেছে তাঁর কাছে, সুস্মিতা সেনের রূপচর্চার গোপন চাবিকাঠি জানতে চান?

Sushmita Sen:বয়স হার মেনেছে তাঁর কাছে

Sushmita Sen:বয়স হার মেনেছে তাঁর কাছে

Sushmita Sen: যেখানে অন্যান্য নায়িকারা নিজেদের বয়স লুকিয়ে রাখেন এবং ভয় পান বুড়িয়ে যাওয়াকে, সুস্মিতা সেখানে দিনে দিনে চন্দ্রকলার মতো সুন্দর হচ্ছেন

  • Share this:

সুস্মিতা সেন (Sushmita Sen) নিজের জীবন নিজের শর্তে বাঁচেন। আর তাই বলিউডের অন্যান্য নায়িকাদের চেয়ে অনেকটাই আলাদা। বয়সকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দুই দত্তক কন্যা ও প্রেমিককে নিয়ে তিনি দিব্যি আছেন। ইন্সটাগ্রামে (Instagram) সুস্মিতার দিনযাপনের ছবি দেখলে কে বলবে তাঁর বয়স ৪৫! কথায় বলে ওয়াইনের বয়স যত বাড়ে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকে তার স্বাদ। সুস্মিতা সম্পর্কে তামাম বলিউড ও তাঁর অনুরাগীরাও একই কথা বলেন। যেখানে অন্যান্য নায়িকারা নিজেদের বয়স লুকিয়ে রাখেন এবং ভয় পান বুড়িয়ে যাওয়াকে, সুস্মিতা সেখানে দিনে দিনে চন্দ্রকলার মতো সুন্দর হচ্ছেন। আর মিডিয়া বা জনসমক্ষে নিজের বয়স বলতে ভয় পান না নায়িকা।

আরও পড়ুন: শীতের সময় শরীরে অভাব দেখা দেয় ভিটামিন D-এর, কী ভাবে বুঝবেন এই ভিটামিনের অভাবের কথা?

বাজারচলতি কোনও প্রোডাক্ট সে যতই দামী হোক না কেন সুস্মিতা কিন্তু ভরসা রাখেন বাড়িতে তৈরি কিছু রূপচর্চার বস্তুর উপর। দুধের মালাই বা মাঠা এবং বেসন দু'টো একসঙ্গে মিশিয়ে একটা প্যাক তৈরি করেন বিশ্বসুন্দরী। এটা এক ধরনের ঘরোয়া স্ক্রাব যা আলতো করে মুখে ঘষে ত্বক সোনার মতো উজ্বল রাখেন সুস্মিতা।

ত্বকের প্রাথমিক পরিচর্যা এভাবে করে সুস্মিতা ভীষণভাবে নির্ভর করেন ফ্রুট বা ফল দিয়ে তৈরি ফেসিয়াল প্যাকের উপর। আর এক্ষেত্রে তিনি বেছে নেন পাকা পেঁপে ও কমলা লেবুর রস।

আরও পড়ুন: মধু শুধু স্বাদেই মিষ্টি নয়, রূপচর্চায় এর গুরুত্ব অনস্বীকার্য, জেনে নিন এক নজরে!

লক্ষ্য করলে দেখা যায় দিন বা রাতের যে কোনও সময়ে সুস্মিতা মুখে লেগে থাকে শিশিরের স্নিগ্ধতা। আর সেটা সম্ভব হয় বাড়িতে তৈরি রোজ ওয়াটার বা গোলাপ জলের জন্য। এই জল মুখে স্প্রে করে তরতাজা শিশির স্নিগ্ধ লুক পেয়ে যান তিনি।

আরও পড়ুন: শীত এলেই চুল রুক্ষ হয়ে যায়? রোজ অনেক চুল উঠে যায়? মেনে চলুন এই ঘরোয়া রূপরুটিন

তবে শুধু মুখে একগাদা জিনিস লাগিয়ে নিজের রূপচর্চার গণ্ডি বেঁধে রাখেন না তিনি। ত্বক সুন্দর রাখতে প্রয়োজন হয় ভিতরের যত্নের। আর তাই নায়িকার দিন শুরু হয় একমুঠো আমন্ড বাদাম, দানাশস্য ও দুধ দিয়ে। নিজের স্বাস্থ্যের কথা ভেবেই ভাজাভুজি থেকে নিজেকে দূরে রাখেন তিনি। সুস্মিতার ত্বকে যে স্বাভাবিক আভা দেখা যায় তার পিছনে লুকিয়ে আছে শরীরচর্চার প্রতি তাঁর অগাধ প্রেম। ওয়ার্ক আউট ছাড়া সুস্মিতার দিন শুরু হয়না।

তবে সব কিছু ছাপিয়ে উঠে আসে সুস্মিতার প্রাণখোলা হাসি ও পজিটিভ চিন্তাধারা যা তাঁকে সবার থেকে আকর্ষণীয় করে রাখে।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: