Home /News /west-midnapore /
Paschim Medinipur: গ্রামীন হাটে হাতি! দেখেই দৌড়ে ছুটোছুটি

Paschim Medinipur: গ্রামীন হাটে হাতি! দেখেই দৌড়ে ছুটোছুটি

নয়াগ্ৰামের কুলডিহা গ্রামীন হাটে ঢুকে পড়ে শাক সবজি সাবাড় করল দলমা থেকে আগত দলছুট একটি দাঁতাল হাতি। খাবারের সন্ধানে দলছুট দাঁতালটি জঙ্গল ছেড়ে কুলডিহা গ্ৰামে ঢুকে পড়ে তান্ডব চালায়।

  • Share this:

    #পশ্চিম মেদিনীপুর : নয়াগ্ৰামের কুলডিহা গ্রামীন হাটে ঢুকে পড়ে শাক সবজি সাবাড় করল দলমা থেকে আগত দলছুট একটি দাঁতাল হাতি। খাবারের সন্ধানে দলছুট দাঁতালটি জঙ্গল ছেড়ে কুলডিহা গ্ৰামে ঢুকে পড়ে তান্ডব চালায়। গ্ৰামে তান্ডব চালানোর সময় গ্ৰামীন হাট দেখেতে পেয়ে হাটের মধ্যে ঢুকে পড়ে দাঁতাল হাতিটি। দাঁতাল হাতি দেখেই আতঙ্কিত হয়ে ছোটাছুটি শুরু করে দেন হাটে আসা ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষজন। হাটে আসা ব্যবসায়ীরা জানান, এদিন দাঁতাল হাতিটি খাবারের সন্ধানে জঙ্গল ছেড়ে গ্ৰামীন হাটে প্রবেশ করে এবং বেশ কিছু সবজি ব্যাবসায়ীর শাক সবজি খেয়ে সাবাড় করে ফেলে হাতিটি। হাটে ঢুকে পড়লে সবজি ব্যাবসায়ীরা তাদের দোকানপাট ছেড়ে পালিয়ে যায়। ব্যাস আর কি, সেই সুযোগে মনের আনন্দে একের পর এক সবজি দোকানির সবজি খেয়ে ফেলে হাতিটি। বেশ কিছুক্ষণ এরপর হাতিটি দাঁড়িয়ে পড়ে হাটের মাঝে।

    এরপর চীৎকার শুনে হাতিটি গ্রামের ভেতর দিয়ে জঙ্গলে ফিরে যায়।এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শুধু হাটের মানুষ নয়, গ্রামের মানুষ ও আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। হাতি ফিরে যাওয়ার পর ফের স্বাভাবিক হয় হাট। বেশ কিছুক্ষন অপেক্ষার পর যখন হাটের ব্যবসায়ী দেখেন, হাতিটি নিজে থেকে যাওয়ার পাত্র নয়, তখন শেষমেশ স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রচেষ্ঠায় দাঁতালটিকে তাড়া করে জঙ্গলে ফেরত পাঠানো হয়।

    আরও পড়ুনঃ প্লাষ্টিক দ্রব্যের ভিড়ে হারিয়ে যেতে বসেছে ডোমদের বংশ পরম্পরার বাঁশ শিল্প

    প্রতিনিয়ত যেভাবে খাবারের সন্ধানে দলমার দাঁতালের দল জঙ্গল ছেড়ে লোকালয়ে প্রবেশ করছে তাতেই আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন এলাকার বাসিন্দারা। এলাকার বাসিন্দদের অভিযোগ, দিনের পর দিন জঙ্গল কেটে সাফ করে দেওয়া হচ্ছে। ফলে জঙ্গলের মধ্যে দেখা দিচ্ছে খাবারের অভাব।

    আরও পড়ুনঃ হাজারও চেষ্টা সত্ত্বেও নিষিদ্ধ পলিব্যাগ ব্যবহারে নেই সম্পূর্ন লাগাম!

    যার ফলে ক্ষিদের জ্বালায় দলছুট হাতি, কখনও আবার হাতির দল ঢুকে পড়ছে লোকালয়ে বা চাষের জমিতে এবং ফসলের পাশাপাশি নষ্ট করছে চাষবাস, বাড়িঘর, ঘটছে প্রাণহানির ঘটনাও। এসব কিছুর জন্য তারা প্রশাসনিক উদাসীনতাকেই দায়ী করছেন।

    Partha Mukherjee
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Paschim medinipur, Wild elephant

    পরবর্তী খবর