Home /News /west-midnapore /
West Midnapore: কাজ চলাকালীন হঠাৎই ভেঙ্গে পড়ল বিদ্যাসাগরের তৈরি ১৫০ বছরের মাটির বাড়ি

West Midnapore: কাজ চলাকালীন হঠাৎই ভেঙ্গে পড়ল বিদ্যাসাগরের তৈরি ১৫০ বছরের মাটির বাড়ি

ভেঙে [object Object]

বিদ্যাসাগর মহাশয়ের নিজে হাতে তৈরি বাড়িই একমাত্র স্মৃতি যার  দ্রুত সংস্কারের দাবি তুলছেন এলাকার মানুষ।

  • Share this:

    #পশ্চিম মেদিনীপুর: বিদ্যাসাগরের নিজের হাতে তৈরি বীরসিংহ গ্রামে ভগবতী বিদ্যালয়ের পুরনো মাটির বাড়ি ভেঙে পড়ল। বিদ্যাসাগরের ২০০ তম জন্মবার্ষিকীতে বিদ্যাসাগরের জন্মভূমি বীরসিংহ গ্রামে এসে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্কুলের মাটির বাড়িটি হেরিটেজ হিসেবে ঘোষণা করেন।সেই থেকেই স্কুলের মাটির বাড়ি সংরক্ষণের কাজ করছিল পূর্ত দফতরের আবাসন বিভাগ। সোমবার বিকালে মাটির বাড়ি সংস্কারের কাজ চলাকালীন ভেঙে পড়ে বাড়ীর বৃহৎ একটি অংশ।

    আরও পড়ুন Bankura News: ঋণ করিয়ে দেবার নাম করে প্রতারণা ভুয়ো এক ব্যাঙ্ক কর্মীর, লোপাট মোটা টাকা!

    সোমবার ৪ জুলাই বিকাল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ ভেঙে পড়ল সংস্কাররত বীরসিংহ ভগবতী বিদ্যালয়ের পুরানো মাটির ছাত্রাবাস। স্থানীয় বাসিন্দা সুব্রত ঘোষ জানালেন, ১৫০ বছরেরও বেশি এই প্রাচীন এই বিল্ডিং। প্রথমদিকে বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ হিসাবেই ব্যাবহার হত। পরবর্তী কালে বর্তমান বিদ্যালয়ের উত্তর দক্ষিণ দিকে মাটির ঘরে ক্লাস শুরু হলেও এখানে অফিসের কাজ শুরু হয়। তারপরে এটি পুরোপুরি ছাত্রাবাস হিসাবেই ব্যাবহার হয়ে এসেছে। ছাত্রাবাসের নতুন বিল্ডিং নির্মিত হওয়ায় এবং ছাত্রাবাসের ছাত্র কমে যাওয়ার ফলে এই মাটির বিল্ডিং দুটি দীর্ঘদিন অব্যাবহৃত অবস্থায় পড়ে ছিল।মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৯ সালে বীরসিংহে বিদ্যাসাগরের দ্বিশত জন্মবার্ষিকীর সূচনা করে এই মাটির বিল্ডিং দুটি কে হেরিটেজ বিল্ডিং ঘোষণা করেন। দীর্ঘ একবছরেরও বেশি সময় ধরে সংস্কারের কাজ চলছিল।

    আরও পড়ুন East Bardhaman News: খুদে শিল্পী তামান্নার আঁকা ছবি পৌঁছল না মুখ্যমন্ত্রী কাছে, মন খারাপ তামান্নার 

    ঘাটালের প্রাক্তন বিধায়ক তথা বিদ্যালয় পরিচালন কমিটির সভাপতি শংকর দোলই জানালেন, আমরা এই কাজের বিষয়ে সম্পুর্ন অন্ধকারে। তিনি ইতিমধ্যেই জেলাশাসককে ফোনে বিষয়টি জানিয়েছেন। প্রধান শিক্ষক প্রদীপ পাঠক বললেন, আমার বিদ্যালয়ে এই সংক্রান্ত কোন তথ্য নেই।আমাকে কয়েকদিন আগে মেদিনীপুরে একই প্রশ্ন করা হয়েছিল, আমি কোন সদুত্তর দিতে পারিনি। ঘাটাল পঞ্চায়েত সমিতির খাদ্য কর্মাধ্যক্ষ প্রশান্ত রায় বলেন, আমরা সম্পুর্ন অন্ধকারে, যতবার জানার চেষ্টা করেছি ততবার এই কাজের কর্মীরা উত্তর দিয়েছেন আমরা কিছু জানি না। এজেন্সি মারফত কাজ হচ্ছে অথচ কোন এজেন্সি, কত টাকার কাজ, প্ল্যান সবই আমাদের অজানা। বিদ্যাসাগর মহাশয়ের নিজে হাতে তৈরি বাড়িই একমাত্র স্মৃতি যার দ্রুত সংস্কারের দাবি তুলছেন এলাকার মানুষ।

    Published by:Pooja Basu
    First published:

    Tags: South bengal news, West Midnapore

    পরবর্তী খবর