Home /News /technology /
Instagram: বড় খবর! রিলে শেয়ার করা হচ্ছে টিকটকের ভিডিও, আরও কড়া ইনস্টাগ্রাম! কী কী বদল?

Instagram: বড় খবর! রিলে শেয়ার করা হচ্ছে টিকটকের ভিডিও, আরও কড়া ইনস্টাগ্রাম! কী কী বদল?

কড়া হচ্ছে ইনস্টাগ্রাম

কড়া হচ্ছে ইনস্টাগ্রাম

Instagram: যথেচ্ছ ভাবে রিলে শেয়ার করা হচ্ছে টিকটকের ভিডিও, তা রুখতে আরও কড়া হচ্ছে ইনস্টাগ্রাম!

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: হামেশাই দেখা যায়, টিকটকের (Tik Tok) ভিডিওকেই ইনস্টাগ্রামে রিল (Instagram Reels) হিসেবে চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর এই ধরনের ঘটনা রুখতেই ইনস্টাগ্রামের নিজস্ব কন্টেন্টকে (Original content) অগ্রাধিকার দেওয়ার পরিকল্পনা চলছে। এমনটাই ঘোষণা করেছেন ইনস্টাগ্রামের (Instagram) প্রধান বা হেড অ্যাডাম মসেরি (Adam Mosseri)।

ইনস্টাগ্রামের সোশ্যাল মিডিয়া চ্যানেলে প্রকাশিত এক ভিডিও-তে মসেরিকে বলতে শোনা গিয়েছে যে, যাঁরা কৃতিত্বের যোগ্য বা যাঁদের কৃতিত্ব প্রাপ্য, তাঁরাই যাতে সেটা পান, এই বিষয়টা নিশ্চিত করা হবে। আসলে অনেক সময় ভিডিও প্রস্তুতকারীরা একই কন্টেন্ট বারবার রিসাইকেল করে অন্যান্য প্ল্যাটফর্মেও চালাতে থাকেন। এই বিষয়টা রুখতেই পদক্ষেপ করতে চলেছে ইনস্টাগ্রাম। ওই ভিডিওতে মসেরি টিকটকের ছোট ছোট ভিডিও-র উদাহরণ তুলে ধরেছেন।

২০২০ সাল থেকে ভারতে নিষিদ্ধ হয়েছে টিকটক। তবে ব্রিটেন, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া-সহ আরও নানা দেশে রমরমিয়ে চলছে টিকটক। আসলে টিকটকের মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা সহজেই ছোট ছোট ভিডিও বা ভিডিও কন্টেন্ট বানাতে পারেন। আর টিকটক ব্যবহারকারীরা টিকটকে ভিডিও বানিয়ে তা ইনস্টাগ্রাম রিল হিসেবেও হামেশাই চালিয়ে দেন। কিন্তু মুশকিল হল, টিকটকের ভিডিও-তে ওয়াটার মার্ক (Tik Tok Watermark) থাকে, ফলে এই ধরনের টিকটক ভিডিও পোস্টদাতাকে সহজেই শনাক্ত করতে পারে ইনস্টাগ্রাম। আর সেই সঙ্গে এই ওয়াটার মার্কের মাধ্যমে বিনামূল্যে অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্ল্যাটফর্মে টিকটকেরই বিজ্ঞাপন হয়ে যায়। আর এই সমস্যার মোকাবিলা করার জন্য ইনস্টাগ্রাম কী পদক্ষেপ করছে, সেই বিষয়ে খোলসা করে বলেননি অ্যাডাম মসেরি। তবে মনে করা হচ্ছে যে, এটা হয়তো অ্যালগরিদমের (Algorithm) সঙ্গে সম্পর্কিত হতে পারে। যে পরিবর্তনটা আনা হতে পারে, সেটা হল– শর্ট ভিডিও-তে টিকটকের ওয়াটার মার্কের উপর নজরদারি চালানো হবে। যে-ই মুহূর্তে কোনও ভিডিও-তে টিকটকের ওয়াটার মার্ক নজরে পড়বে, সেই মুহূর্তেই সেটা ডাউনপ্লে করা হবে।

আরও পড়ুন: রাজ্যে দ্বিতীয় বার, স্বাস্থ্য ইঙ্গিত অ্যাপের মাধ্যমে প্রাণ বাঁচল রোগীর! জানেন এর বিষয়ে?

ওই ভিডিও-তে মসেরি আরও বিশ্লেষণ করেছেন যে, যেসব ব্যবহারকারী স্ক্র্যাচের মাধ্যমে ভিডিও তৈরি করছেন, তাঁরা অন্য প্ল্যাটফর্মের কন্টেন্ট শেয়ারকারীদের তুলনায় কৃতিত্ব বেশি পাবেন। আর রিপোস্টকারীদের তুলনায় ইনস্টাগ্রামের নিজস্ব কন্টেন্ট প্রস্তুতকারীদের (Video Creator) সব ক্ষেত্রেই বেশি অগ্রাধিকার দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। যদিও এই কথা গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই ঘোষণা করেছিল ইনস্টাগ্রাম। সংস্থার মুখপাত্র দেবী নরসিংহন দ্য ভার্জ-কে জানিয়েছিলেন যে, টিকটকের ওয়াটার মার্ক যুক্ত ভিডিও ইনস্টাগ্রাম অ্যালগরিদম প্রোমোট করবে না।

আরও পড়ুন: বিনপুর থেকে গ্রেফতার এক দম্পতি, পুলিশ সূত্রে মিলল মারাত্মক তথ্য! আশঙ্কায় জঙ্গলমহল

এছাড়াও মসেরি সাম্প্রতিক প্রোডাক্ট ট্যাগ ফিচার সংক্রান্ত অগ্রগতির কথাও ঘোষণা করেছে। ইতিমধ্যেই আমেরিকায় এই ফিচার চালু হয়ে গিয়েছে। এই টুলের মাধ্যমে নিজেদের পোস্ট করা কোনও প্রোডাক্টের ছবিতে ব্যবহারকারীরা সংশ্লিষ্ট ব্র্যান্ডগুলিকে ট্যাগ করার পাশাপাশি ওই প্রোডাক্টের লিঙ্কও যোগ করে দিতে পারবেন। এতে বেশি সংখ্যক মানুষ ওই প্রোডাক্টের বিষয়ে জানতে পারবেন এবং ওই প্রোডাক্টের ব্র্যান্ড পরবর্তীকালে পোস্টদাতার সঙ্গে কোল্যাবোরেশন করার কথাও ভাবতে পারবে।

First published:

Tags: Instagram, TikTok

পরবর্তী খবর