Home /News /national /
Smriti Irani at CNN-News18: Exclusive: মহিলাদের সামনের সারিতে আনতে পারেন একটা মানুষই, কার কথা বললেন স্মৃতি ইরানি?

Smriti Irani at CNN-News18: Exclusive: মহিলাদের সামনের সারিতে আনতে পারেন একটা মানুষই, কার কথা বললেন স্মৃতি ইরানি?

মোদি বন্দনায় স্মৃতি

মোদি বন্দনায় স্মৃতি

Smriti Irani at CNN-News18: CNN-News18-এর মারিয়া শাকিলের সঙ্গে কথোপকথনে স্মৃতি ইরানি বলেন, ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদি ক্ষমতায় আসার পরেই মহিলাদের সুরক্ষার জন্য জরুরি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল, খোলা জায়গায় মলত্যাগ বন্ধ করার মিশন দিয়ে তা শুরু হয়েছিল।

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ভারতে এখন এমন একজন প্রধানমন্ত্রী রয়েছেন, যিনি নারীদের দেশের অগ্রগতিতে সমান অংশীদার হওয়ার পক্ষে কথা বলেন, কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি (Smriti Irani ) শনিবার CNN-News18 টাউন হলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।

    CNN-News18-এর মারিয়া শাকিলের সঙ্গে কথোপকথনে স্মৃতি ইরানি বলেন, ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদি ক্ষমতায় আসার পরেই মহিলাদের সুরক্ষার জন্য জরুরি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল, খোলা জায়গায় মলত্যাগ বন্ধ করার মিশন দিয়ে তা শুরু হয়েছিল। প্রসঙ্গত, স্মৃতি ইরানি যিনি ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধির কাছ থেকে অমেথি আসনটি কেড়ে নিয়েছিলেন।

    স্মৃতির সংযোজন, “ভারতে শৌচালয় কখনই নির্বাচনী এজেন্ডা ছিল না। ২০১৪ সালে যখন প্রধানমন্ত্রী মোদি জিতেছিলেন, তখন তিনি এর বাইরে গিয়ে বলেছিলেন যে, আমাদের শুরু থেকে শুরু করতে হবে। ২০১৪ সালের আগে প্রায় ৩৩ কোটি মানুষ খোলা জায়গায় মলত্যাগ করতেন এবং ৪৫% মহিলা তার কারণে যৌন নির্যাতনের শিকার হতেন।” অমেথির সাংসদের কথায়, “মহিলা হেল্প ডেস্ক মোদি সরকারের সৌজন্যে বাস্তবে পরিণত হয়েছে। এই সরকার ৭০০ টিরও বেশি ফাস্ট ট্র্যাক কোর্ট স্থাপন করেছে এবং মহিলাদের জন্য নিবেদিত ৩৫টি হেল্পলাইন চালু করেছে।''

    আরও পড়ুন: ইদানীং দেখা মেলাই ভার, মুকুল রায় এবার গেলেন কোথায়! দেখেই চমকে উঠলেন অনেকে

    প্রথম মোদি সরকারের শিক্ষামন্ত্রী হিসাবে তাঁর মেয়াদের কথা বলতে গিয়ে ইরানি বলেন, “আমাদের দেশের শিক্ষানীতি ৩০ বছর পর পরিবর্তিত হয়েছে। আমি যখন শিক্ষামন্ত্রী ছিলাম তখন থেকেই পরিবর্তন শুরু হয়। অতীতে সরকার কখনই অভিভাবকদের জিজ্ঞাসা করেনি তারা কী ধরনের শিক্ষানীতি চায়। এই শিক্ষানীতি শুধু বর্তমানের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা নয়, ভবিষ্যতের চ্যালেঞ্জের জন্যে প্রস্তুত করবে পড়ুয়াদের।''

    আরও পড়ুন: বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা মেরে বাড়ি ফিরেই সব শেষ, আত্মঘাতী প্রাথমিকের শিক্ষক!

    CNN-News18 টাউন হল-এ শনিবার প্রথম বক্তা হিসাবে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর নিজের বক্তব্য রাখেন। এরপরই বক্তা ছিলেন স্মৃতি ইরানি। বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করও মোদি সরকারের বিদেশ নীতি নিয়ে নানা মন্তব্য করেন এই অনুষ্ঠান থেকে। CNN-News18 টাউন হলের সারমর্ম হল সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক বিষয় ও সমস্যাগুলিকে ডিকোড করা, যা ভারতকে নতুন রূপ দিচ্ছে। টাউন হলের এই অনুষ্ঠান প্রতি তিন মাসে একবার করে আয়োজিত হবে।

    আরও পড়ুন: বিদেশি সাহায্য নেই, নিজেদের ক্ষমতায় ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ! বিশ্বের নতুন চমক পদ্মা সেতু

    ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে রাহুল গান্ধিকে হারানো স্মৃতি ইরানি জানান, তিনি কেরালায় কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধির নতুন নির্বাচনী এলাকা ওয়ানাড পরিদর্শন করেছেন এবং দেখেছেন মানুষের কত অভাব অভিযোগ। স্মৃতির স্মৃতিচারণ, “আমি ওয়ানাড গিয়েছিলাম জেলার কাজ দেখতে। সেই সময় ওই এলাকার সাংসদ (রাহুল গান্ধি) কাঠমান্ডুতে ছিলেন। সেখানে এমন পরিবার দেখেছি, যাদের কৃষিকাজ করার সামান্য প্রয়োজন ছিল, কিন্তু প্রশাসনের দ্বারা সেই সমস্যার সমাধান হয়নি।” ইরানি বলেন, “আমি একজন রাজনৈতিক প্রতিভাবান নই, আমি একজন স্ব-নির্মিত মহিলা।”

    বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মার বিতর্কিত মন্তব্যের প্রেক্ষিতে মন্তব্য করতে গিয়ে স্মৃতি ইরানি অবশ্য বলেন, ''আমাদের দল এই বিষয়ে অবস্থান স্পষ্ট করেছে। তাঁর কথায়, ''আমার দল তার অবস্থান পরিষ্কার করেছে যে আমরা প্রতিটি ধর্মকে সম্মান করি। পারস্পরিক শ্রদ্ধাই এগিয়ে যাওয়ার পথ। আমরা প্রথমে ভারতীয় এবং তারপর একটি দলের মুখপাত্র।''

    কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন প্রকল্প অগ্নিপথ নিয়ে অবশ্য স্মৃতি ইরানি শান্তিপূর্ণ আলোচনার জন্য আবেদন করেছেন। তাঁর কথায়, ''আমি এই প্রকল্পের নীতি এবং খুঁটিনাটি খতিয়ে দেখার জন্য সকলের কাছে আবেদন করছি। সরকার এই প্রকল্প সম্পর্কে মিথগুলি স্পষ্টভাবে পরিষ্কার করেছে এবং সকলের যদি আরও বিশদ প্রয়োজন হয়, আপনার জনপ্রতিনিধিকে জিজ্ঞাসা করুন। জাতির সম্পত্তি পুড়িয়ে দিয়ে তারা কী অর্জন করছে সে সম্পর্কে সকলের আত্মদর্শন করা উচিত। যারা সরকারি সম্পত্তি পোড়ানোর চেষ্টা করে, তাদের দ্বারা কি জাতিকে সুরক্ষিত করা যায়?''

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    Tags: CNN-News18 Town Hall, News 18, Smriti Irani

    পরবর্তী খবর