Home /News /life-style /

Rice Flour : উপকারিতা চমকপ্রদ, শীতকালে খান চালের আটার রুটি

Rice Flour : উপকারিতা চমকপ্রদ, শীতকালে খান চালের আটার রুটি

চালের আটা সাদা এবং বাদামি উভয় চাল দিয়েই হয়

চালের আটা সাদা এবং বাদামি উভয় চাল দিয়েই হয়

ভাত কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ, কিন্তু চালের আটা প্রোটিন এবং ভিটামিন সমৃদ্ধ।

  • Share this:

চালের গুঁড়ো সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানি। চালের আটা হল মিহি করা চালের গুঁড়ো (Rice Flour)। তবে এটা কিন্তু ভাতের মাড় বা স্টার্চ নয়। কারণ স্টার্চ আর চালের আটা আলাদা। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, জাপান এবং ভারতের কিছু অংশে একটি প্রধান খাদ্য হল চালের আটা। এই আটা সাদা এবং বাদামি উভয় চাল দিয়েই হয়। এবার জেনে নেওয়া যাক চালের গুঁড়ি বা আটার উপকারিতা সম্পর্কে।

পুষ্টিগুণ

ভাত কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ, কিন্তু চালের আটা প্রোটিন এবং ভিটামিন সমৃদ্ধ। চালের আটা হল পুষ্টির অন্যতম সস্তা উৎস এবং এতে গমের আটারও সব গুণ রয়েছে। ১ কাপ সাদা চালের আটায় প্রায় ৫৭৮ ক্যালোরি, ৯.৪ গ্রাম প্রোটিন, ভিটামিন B6 এবং বিভিন্ন খনিজ রয়েছে। ১ কাপ বাদামি চালের আটার মধ্যে ১১.৪ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে এবং ফসফরাস, পটাসিয়াম এবং ভিটামিন B12 আছে (Benefits of rice flour)।

আরও পড়ুন : তুলসি দিয়ে তৈরি এই পানীয়গুলি শীতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে অতুলনীয়

উপকারিতা

ডায়েটে চালের আটা

চালের আটা পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ঠিকই কিন্তু এর একটি ছোট্ট ত্রুটি আছে। চালের আটার সেই একমাত্র ত্রুটি হল, এটি ক্যালোরির পরিমাপে বেশি। ফলে ওজন বেড়ে যাওয়ার সামান্য সম্ভাবনা আছে। তবে সরাসরি না খেয়ে এটি কোনও কিছু বেক করতে ব্যবহার করা যায়। তবে সেটা করার সময়ে এর মধ্যে ইস্ট কম দিয়ে বেকিং পাউডার বেশf দিতে হবে। এটির একটি সিল্কি মসৃণ টেক্সচার রয়েছে যে কারণে এটি বিভিন্ন রান্নায় ব্যবহার করা যেতে পারে অতি সহজেই। বিভিন্ন স্যস, স্যুপ এবং এমনকি গ্রেভি তৈরি করতে চালের আটা ব্যবহার করা যেতে পারে। কারণ এগুলোকে ঘন করতে চালের আটার জুড়ি নেই। যেগুলো বেক করে তৈরি করা হয় যেমন কুকি, কেক এবং এমনকী পাস্তাও এই চালের আটা দিয়ে তৈরি করা যায় অনায়াসে। এটি ব্যবহার করা এত সহজ যে তাজা গ্লুটেন-মুক্ত পাস্তাও তৈরি করা যায়।

আরও পড়ুন : ব্রণ থেকে রোদের কালো ছোপ—ত্বকের যে কোনও সমস্যার সমাধান লুকিয়ে মুগ ডালে

কী ভাবে চালের আটা তৈরি করতে হবে

এটি বাড়িতে তৈরি করা যায় খুব সহজে। বাদামি বা সাদা চাল এবং একটি ফুড প্রসেসর বা ব্লেন্ডার থাকলেই এই আটা তৈরি করে নেওয়া যায়। প্রসেসর বা গ্রাইন্ডারের জারে চাল দিয়ে মিহি করে পিষে নিলেই চালের আটা প্রস্তুত!

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Rice flour

পরবর্তী খবর