• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Corona Virus: করোনা পরীক্ষা কিছুটা বাড়তেই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ল, স্বস্তি দিয়ে সংক্রমণের হার কিছুটা কমল

Corona Virus: করোনা পরীক্ষা কিছুটা বাড়তেই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ল, স্বস্তি দিয়ে সংক্রমণের হার কিছুটা কমল

সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা কিছুটা কমলেও করোনা সংক্রমণ সেই হারে কমেনি

সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা কিছুটা কমলেও করোনা সংক্রমণ সেই হারে কমেনি

Corona Virus: এ দিনও কিছুটা স্বস্তি দিয়ে বেশ কিছুদিন পরে করোনা মুক্ত হওয়ার সংখ্যা আক্রান্তের থেকে অনেকটা বাড়ল

  • Share this:

কলকাতা : একদিনের মধ্যেই দেখা গেলো,করোনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়লেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়তে থাকে। গতকাল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটা কমে গেলেও মঙ্গলবার তা গতকালের থেকে শতাধিকের ওপর বাড়ল। গতকালই দেখা গিয়েছিল, রাজ্যে করোনা সক্রিয় রোগীর সংখ্যা বেশ কিছুটা কমেছে। আর তারপরে এদিনও রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আরও কিছুটা কমল ।  এ দিনও কিছুটা স্বস্তি দিয়ে বেশ কিছুদিন পরে করোনা মুক্ত হওয়ার সংখ্যা আক্রান্তের থেকে অনেকটা বাড়ল। তবে গতকাল একধাক্কায় রাজ্যে করোনা পজিটিভিটি রেট অনেকটাই বাড়লেও এদিন তা আবার কিছুটা কমেছে।

আরও পড়ুন : তিল তিল করে টাকা জমিয়ে বাড়ি বানালেন, গৃহপ্রবেশের দিনই আত্মহত্যা দম্পতির

গত দুদিন ধরে দেশে করোনা আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা এবং মৃত্যুর সংখ্যা বেশ কিছুটা কমেছে। আর আজ গোটা দেশে বেশ কয়েক মাস বাদে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সাত হাজারে নামল। তবে রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এবং সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা কিছুটা কমলেও করোনা সংক্রমণ সেই হারে না কমায় যথেষ্ট উদ্বেগে রেখেছে চিকিৎসক মহলকে। গত কয়েক দিনের মত উত্তরবঙ্গের জেলাগুলির মধ্যে দার্জিলিং জেলায় করোনা গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী। তবে রাজ্যে সবার উপরে যথারীতি শহর কলকাতা এবং তার পার্শ্ববর্তী উত্তর ২৪ পরগনা, হুগলি, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া।

আরও পড়ুন : বিপ্লব সরকারের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক সুদীপ, পুরভোটের ঠিক আগে ত্রিপুরায় ব্যাকফুটে বিজেপি

রাজ্যে গত বেশ কয়েকদিন ধরেই করোনা আক্রান্ত প্রায় প্রতিদিনই আটশোর উপরে থাকছিল। সেখান থেকে গত তিনদিন ধরে আক্রান্তের সংখ্যা বেশ কিছুটা কমে। এদিন তা অনেকটাই বেড়ে যায়। রাজ্যে গতকাল ৬১৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে আজ তা বেশ কিছুটা বেড়ে হয়েছে ৭২০ জন। করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা গতকালের ১৪ জন থেকে কিছুটা কমে আজ ১০ জন হয়েছে। আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছেন ৭৪১ জন।

আরও পড়ুন : পিছোবে না ত্রিপুরার পুরভোট, জানিয়ে দিল সু্প্রিম কোর্ট! নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার নির্দেশ

বর্তমানে রাজ্যের সক্রিয় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা আট হাজারের নীচে নেমে ৭ হাজার ৯১৪ জন। তবে উদ্বেগ বাড়িয়ে গোটা রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় মাত্র ৩৬ হাজার ১৪ জনের করোনা পরীক্ষা হয়েছে, যার মধ্যে ৭২০ জন করোনা পজিটিভ। রাজ্যে করোনা পজিটিভিটি রেট গতকালের ২.৩৪% থেকে একবারে অনেকটাই কমে ২.০০% হল।

রাজ্যের মধ্যে যথারীতি করোনা আক্রান্তের ক্ষেত্রে কলকাতার রেকর্ডকে অন্য কোন জেলা টপকাতে পারছে না। কলকাতা করোনা আক্রান্তের ক্ষেত্রে সবথেকে বেশি। গত ২৪ ঘন্টায় কলকাতায় ২১১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, আর মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের। অন্যদিকে এর পরই উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় ১৩৪  জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে এবং করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১ জনের।

নতুন করে কলকাতার পাশের হাওড়া জেলায় আক্রান্ত বেশ কিছুটা বেড়ে হয়েছে ৫০ জন। দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলাও পিছিয়ে নেই, সেখানে করণা আক্রান্ত হয়েছে ৭১ জন,মৃত্যু হয়েছে একজনের। অন্যদিকে হুগলি  জেলাতেও করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৫৭ জন, মৃত্যু হয়েছে একজনের। নদিয়া জেলায় গত বেশ কয়েকদিন পর আক্রান্তের সংখ্যা আরো কমে হল ১৩ জন। তবে বাঁকুড়া জেলায় গত কয়েকদিন আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে থাকলেও এ দিন বেশ কিছুটা বেড়ে আক্রান্তের সংখ্যা ২২ জন।

অন্যদিকে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলির দার্জিলিং জেলায় করোনা আক্রান্ত সর্বাধিক। দার্জিলিং জেলায় আক্রান্ত ২৬ জন। এর পর দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা এবং কোচবিহার জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছে ১২ জন করে। জলপাইগুড়ি জেলায় ১০ জন আক্রান্ত। তবে অত্যন্ত স্বস্তির হাওয়া ছড়িয়ে গোটা উত্তরবঙ্গে কোন জেলাতেই এদিন করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়নি।

তবে এ দিন রাজ্যের মধ্যে সবথেকে কম করোনা আক্রান্ত হয়েছে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে। কালিম্পং জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় মাত্র একজন করোনা আক্রান্ত হয়েছে। আলিপুরদুয়ার জেলায় ৩ জন আক্রান্ত হয়েছে। অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলির মধ্যে সবচেয়ে কম পুরুলিয়া জেলায়, এক জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে এবং তার পরে মুর্শিদাবাদ জেলায় ৫ জন আক্রান্ত হয়েছে।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: