corona virus btn
corona virus btn
Loading

LAC-তে ঝড়ল রক্ত, শহিদ ২৬ বছরের ভারতীয় জওয়ান, ছেলের মৃত্যুতে শোকাতুর বাবা-মা

LAC-তে ঝড়ল রক্ত, শহিদ ২৬ বছরের ভারতীয় জওয়ান, ছেলের মৃত্যুতে শোকাতুর বাবা-মা

শহিদ রানা তাঁর পরিবারের একমাত্র রোজগেরে ব্যক্তি ছিলেন। তাঁর আয়ে চলত গোটা পরিবার৷ বাবা-মা ছাড়াও তাঁর ২ বোন এবং ৩ ভাই রয়েছে।

  • Share this:

#সিমলা: ভারতীয় সেনাবাহিনীতে কর্মরত হিমাচল প্রদেশের সিমলা জেলার চৌপাল মহকুমার কুপ্পি তহসিলের আতর রানা দেশ সেবা করার সময় শহিদ হয়েছেন। বলা হচ্ছে যে শহিদ আতর রানা পাঞ্জাব রেজিমেন্টের হয়ে প্রকৃত নিয়ন্ত্রনণরেখায় নিজের দায়িত্ব পালন করছিলেন৷ অরুণাচল প্রদেশের ভারত-চিন সীমান্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (LAC) ছিল তাঁর পোস্টিং। যদিও মৃত্যুর কারণ এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করা যায়নি, তবে জানা গিয়েছে যে  দেশের সেবা করার সময় তাঁর মৃত্যু হয়েছে৷

শহিদ রানা তাঁর পরিবারের একমাত্র রোজগেরে ব্যক্তি ছিলেন। তাঁর আয়ে চলত গোটা পরিবার৷ বাবা-মা ছাড়াও তাঁর ২ বোন এবং ৩ ভাই রয়েছে। রানা অবিবাহিত ছিলেন এবং ২৬ বছর বয়সে দেশের সেবায় মৃত্যু বরণ করেন তিনি। ১৯৯৪ সালে ধর চন্দনা পঞ্চায়েতের ধারে গ্রামে জন্ম হয় ভারতীয় এই বীর জওয়ানের৷ ২০১২ সালে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগ দেন তিনি।

তাঁর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে পঞ্চায়েত প্রধান আত্মা রাম লোধা জানান যে, শহিদের বড় ভাই ডালিপ সিং ওরফে দিনেশের কাছে সেনাবাহিনীর সদর দফতরের এক আধিকারিক ফোনে এই দুঃসংবাদটি দেন৷ পঞ্চায়েত প্রধান জানিয়েছেন যে, গতকাল রাত থেকে এলাকার শতাধিক মানুষ শহিদ পরিবারকে সান্ত্বনা জানাতে তাঁর বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছিলেন। সৈনিক কল্যাণ বোর্ডের উপ-পরিচালক কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) এনপি আত্রি বলেছেন যে, ভারত-চিন সীমান্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় ২৬ বছরের জওয়ানের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে৷ শনিবারের মধ্যেই শহিদ জওয়ানের দেহ আকাশপথ দিয়ে দিল্লিতে নিয়ে আসা হবে বলে মনে করা হচ্ছে৷

আরও পড়ুন সীমান্তে চিনকে ১ ইঞ্চিও ছাড় নয়! লাদাখে হাড় কাঁপানো ঠাণ্ডায়েও থাকবে সেনা, হল তারই প্রস্তুতি

এদিকে বৃহস্পতিবার মস্কোয় ভারত ও চিনের বিদেশমন্ত্রীদের মধ্যে বৈঠক হয়। আশা করা হচ্ছিল যে এই বৈঠকের পর পূর্ব লাদাখের (India-China Border Tension) প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (LAC) দু'দেশের মধ্যে উত্তেজনা কমে যেতে পারে। তবে সূত্রের খবর, এখনও উত্তেজনা রয়েই গিয়েছে। বলা হচ্ছে যে, চিনের মনোভাবে কোনও পরিবর্তন হবে এমন কোনও আশ্বাস নেই। বর্তমান পরিস্থিতি কী, দু’দেশের মধ্যে কীভাবে সমঝোতা হয়, সে সব স্থির করতেই মস্কোয় ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর (S Jayshankar)এবং চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ইয়ের মধ্যে আড়াই ঘন্টা বৈঠকের পরেও বেইজিংয়ের অবস্থান সেভাবে স্পষ্ট হয়নি বলে খবর৷

পূর্ব লাদাখ সীমান্তে অচলাবস্থা কাটাতে করার জন্য পাঁচ দফা পরিকল্পনায় একমত হয়েছে ভারত ও চিন। এর মধ্যে রয়েছে সীমান্ত চুক্তি ও নিয়ম অনুসরণ করা, শান্তি বজায় রাখা এবং অশান্তি হয় এমন পদক্ষেপ এড়ানো। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মস্কোতে জয়শঙ্কর এবং চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ইয়ের মধ্যে আলোচনায় এই বিষয়ে দুই দেশ একমত হয়। জয়শঙ্কর ও ওয়াং সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার (Shanghai Cooperation Organization) বৈঠকে যোগ দিতে মস্কোয় রয়েছেন।
Published by: Pooja Basu
First published: September 11, 2020, 4:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर