Home /News /education-career /
Seats Vacant in IIT, NIT: দু'বছর ধরে ১০ হাজারের বেশি আসন ফাঁকা আইআইটিগুলিতে, ৮৭০০ আসন ফাঁকা এনআইটিতে

Seats Vacant in IIT, NIT: দু'বছর ধরে ১০ হাজারের বেশি আসন ফাঁকা আইআইটিগুলিতে, ৮৭০০ আসন ফাঁকা এনআইটিতে

Seats Vacant in IITs: ২০২০-২০২১ সালে আইআইটিগুলিতে ফাঁকা পড়েছিল ৫৪৮৪ টি আসন। ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে আইআইটিতে ফাঁকা আসনের সংখ্যাটা আগের তুলনায় সামান্য কমে হয় ৫২৯৬।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: প্রায় দু’বছর ধরে তালা ঝুলেছে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে। দেশজুড়ে বেড়েছে স্কুলছুটদের সংখ্যা। করোনাকালীন শিক্ষাব্যবস্থায় মূল্যায়ন প্রথা নিয়েও স্বাভাবিকভাবেই উঠেছে বিতর্ক। এরই মধ্যে সামনে এল শিক্ষাব্যবস্থার আরেক দিক। দেশের নাম করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে (Seats Vacant in IIT, NIT) ফাঁকা পড়ে রয়েছে আসন। দেশজুড়ে বিভিন্ন আইআইটিগুলিতে (Indian Institutes of Technology) বিভিন্ন পাঠ্যক্রমে ফাঁকা (Seats Vacant in IIT, NIT) পড়ে রয়েছে দশ হাজারেরও বেশি আসন! অন্যদিকে এনআইটিগুলিতে (National Institutes of Technology) খালি পড়ে রয়েছে ৮৭০০ টিরও বেশি আসন। বুধবার এই তথ্য জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। রাজ্যসভায় একটি প্রশ্নের উত্তরে লিখিত এই তথ্য পাঠ করেন তিনি।

    আরও পড়ুন- কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা কি অফলাইনেই বাধ্যতামূলক? UGC যা জানাল...

    সরকারের দেওয়া এই তথ্যানুসারে, ২০২০-২০২১ সালে আইআইটিগুলিতে ফাঁকা (Seats Vacant in IIT, NIT) পড়েছিল ৫৪৮৪ টি আসন। এর মধ্যে, স্নাতক বিভাগে অর্থাৎ BTechএ ফাঁকা ছিল ৪৭৬ টি আসন। স্নাতকোত্তর স্তরে ৩২২৯ টি আসন এবং পিএইচডিতে ফাঁকা পড়েছিল ১৭৭৯ টি আসন। ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে আইআইটিতে ফাঁকা আসনের সংখ্যাটা আগের তুলনায় সামান্য কমে হয় ৫২৯৬। এর মধ্যে বিটেক-এর বিভিন্নি কোর্সে ফাঁকা রয়েছে ৩৬১ টি। ৩০৮৩ টি আসন খালি রয়েছে স্নাতকোত্তর বিভাগে এবং গবেষণায় ফাঁকা পড়ে রয়েছে ১৮৫২ টি আসন।

    আরও পড়ুন- ভারত পে, শাদি ডটকম, লেন্সকার্ট...জানুন শার্ক ট্যাঙ্ক ইন্ডিয়ার উদ্যোগপতিদের পরিচয়

    এনআইটি ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ফাঁকা (Seats Vacant in IIT, NIT) ছিল ৩৭৪১ টি আসন। ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে এই সংখ্যাটাই বেড়ে দাঁড়ায় ৫০১২ টি। এর মধ্যে অধিকাংশ আসনই ফাঁকা রয়েছে স্নাতকোত্তরের বিভিন্ন পাঠ্যক্রমে। ২৪৮৭ টি আসন ফাঁকা ছিল ২০২১-২১ শিক্ষাবর্ষে এবং ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ফাঁকা রয়েছে ৩৪১৩ টি আসন। “IIT, NIT এবং IIIT-র মতো প্রথমসারির ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলিকে বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তির শিক্ষা প্রসারে দেশের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান হিসেবেই গণ্য করা হয়। যারা ভীষণ যোগ্য এবং র‍্যাঙ্কিংয়ের দিক থেকে এগিয়ে রয়েছেন কেবলমাত্র সেই পড়ুয়ারাই এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলিতে পড়াশোনার সুযোগ পান,” বলেন শিক্ষামন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান।

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: IIT

    পরবর্তী খবর