Home /News /bankura /
Bankura: বাড়িতে ফেলে দেওয়া সামগ্রী দিয়ে তৈরি হচ্ছে রাখি

Bankura: বাড়িতে ফেলে দেওয়া সামগ্রী দিয়ে তৈরি হচ্ছে রাখি

বাড়ির নিত্য প্রয়োজনীয় ফেলে দেওয়া বিভিন্ন সামগ্রী দিয়ে প্রায় ১৭ বছর ধরে রাখি তৈরি করে আসছেন বাঁকুড়া শহরের কুচকুচিয়া এলাকার পোদ্দার পরিবার।

  • Share this:

    #বাঁকুড়া : বাড়ির নিত্য প্রয়োজনীয় ফেলে দেওয়া বিভিন্ন সামগ্রী দিয়ে প্রায় ১৭ বছর ধরে রাখি তৈরি করে আসছেন বাঁকুড়া শহরের কুচকুচিয়া এলাকার পোদ্দার পরিবার। তবে রাখি তৈরি বিক্রি করে অর্থ উপার্জনের জন্য নয়। দীর্ঘ ধারাবাহিকতা পরম্পরা মেনে বাড়িতে তৈরি করা হয় এই রাখি। তৈরির পরে এই রাখি একেবারে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পরিবারের পক্ষ থেকে অনুশীলন সমিতি সহ অন্যান্য সংগঠনের সদস্যদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। প্রতিবছরের মত এবছরও রাখির মধ্যে জন সচেতনতামূলক বার্তা থাকছে। সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ, রক্তদান মহান দান, গাছ লাগান প্রাণ বাঁচান দূষণমুক্ত পরিবেশের বার্তা থাকছে এই রাখিতে। পোদ্দার পরিবারের তরফে জানানো হয় এই পরিবারের সদস্য প্রয়াত দেবকী নন্দন পোদ্দার বাঁকুড়া শহরের অন্যতম স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন অনুশীলন সমিতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ১৭ বছর আগে তিনিই আড়াইশো রাখি দিয়ে সংগঠনের উদ্যোগে রাখি বন্ধন অনুষ্ঠান শুরু করেন।

     

     

    পরে প্রতি বছর রাখির পরিমাণ বাড়তে বাড়তে তা প্রায় সতের হাজারে এসে পৌঁছেছে। কয়েক বছর আগে দেবকী নন্দন পোদ্দার প্রয়াত হলেও বর্তমানে তাঁর ছেলে দুর্গাপ্রসাদ পোদ্দার, নাতনী দীপশিখা পোদ্দারদের হাত ধরে এই প্রথা অব্যাহত রেখে চলেছেন পরিবারের সদস্যরা।

    আরও পড়ুনঃ জয়রামবাটী মাতৃমন্দিরে নতুন ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

     

     

    একই সঙ্গে তাঁরা বাড়িতে বসেই ফেলে দেওয়া ওষুধের ট্রীপ, স্ট্র, ক্লীপ ভাঙ্গা, নারকেল ছোবড়া ইত্যাদি দিয়েও রাখি তৈরী করে চলেছেন। প্রয়াত দেবকী নন্দন পোদ্দারের ছেলে দুর্গাপ্রসাদ পোদ্দার বলেন, বাবার দেখানো পথ ধরেই সেই পরম্পরাকে বজায় রাখতে বাবার পথ অনুসরণ করেছেন।

    আরও পড়ুনঃ হাতিতে রক্ষে নেই, সঙ্গে নেকড়ে দোসর! দুই আতঙ্ক বাঁকুড়ার জঙ্গলে

     

     

    এই রাখি তারা আনন্দের সঙ্গে তৈরি করে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের হাতে তুলে দেন। নাতনী দীপশিখা পোদ্দার বলেন রাখি উৎসবের এক মাস আগে থেকেই তাদের পরিবারের সবাই এই রাখি তৈরি করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। তার দাদুর দেখানো পথে এই কাজ করতে তার বেশ ভালোই লাগে। প্রতিবছরের মত এবারও রাখির মধ্যে জনসচেতনতামূলক বার্তা থাকছে।

     

     

     

    Joyjiban Goswami

    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Bankura

    পরবর্তী খবর