Home /News /west-midnapore /
Paschim Medinipur: প্রকৃতি রক্ষাকারী পাখিদের রক্ষা করতে পাখিদের তৃষ্ণা নিবারণ কর্মসুচি

Paschim Medinipur: প্রকৃতি রক্ষাকারী পাখিদের রক্ষা করতে পাখিদের তৃষ্ণা নিবারণ কর্মসুচি

পাখি ছাড়া প্রকৃতি বেমানান। তাই গ্রীষ্মের সময় পাখিদের কষ্ট অনুধাবন করে ক্ষুদে পখিদের তৃষ্ণা মেটাতে বিশেষ উদ্যোগ নিল খড়্গপুরের অন্যতম স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা Born 2 Help

  • Share this:

    পশ্চিম মেদিনীপুর: পাখি ছাড়া প্রকৃতি বেমানান। তাই গ্রীষ্মের সময় পাখিদের কষ্ট অনুধাবন করে ক্ষুদে পখিদের তৃষ্ণা মেটাতে বিশেষ উদ্যোগ নিল খড়্গপুরের অন্যতম স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা Born 2 Help. সংস্থার কর্মকর্তা বরুণ পালের প্রচেষ্টায় খড়্গপুর ২ নং ব্লকের গঙ্গারামপুর এলাকার মানুষদের হাতে তুলে দেওয়া হল মাটির পাত্র। সামান্য মূল্যের মাটির পাত্র হাতে পেয়ে সংস্থার পরিকল্পনাকে বাস্তব রূপ দিলেন গ্রামের মানুষেরা। নিজেদের বাড়ির আশেপাশের গাছে, বাঁশের মাচায়, সেই মাটির পাত্র ঝুলিয়ে দিয়ে তাতে ঢালা হল জল। আর এভাবেই পাখিদের তৃষ্ণা নিবারণে উদ্যোগী ভূমিকা পালন করল Born 2 Help এর সাহায্যে খড়্গপুর গ্রামীন এলাকার মানুষেরা। যার জন্য সেইসব গ্রামবাসীদেরকে ধন্যবাদও জানালেন Born 2 Help এর কর্মকর্তা ও সদস্য সদস্যারা। প্রসঙ্গত : রাজ্যের বনবিভাগের পক্ষ থেকে জেলা ও ব্লক স্তরে প্রায়শই সচেতনতামূলক প্রচার চালানো হয়, জঙ্গলের গাছ না কাটার জন্য।

    কিন্তু তারপরেও একাংশ অসাধু ব্যবসায়ী জঙ্গলের গাছ কেটে ফেলছে। যার ফলে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে মাইলের পর মাইল বনাঞ্চল। লুপ্ত হচ্ছে জঙ্গলের পশুপাখি থেকে বিভিন্ন প্রাণী। তাই সেইসব পাখিদের জল তৃষ্ণা মেটাতে এই অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা Born 2 Help.

    আরও পড়ুনঃ খড়্গপুরের আদিবাসী পাড়ায় জলসঙ্কট মেটাতে শিল্প সংস্থার চেষ্টা

    এদিন খড়গপুর গ্রামীণের গঙ্গারামপুর এলাকায় প্রায় দুই শতাধিক মানুষের বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয় মাটির পাত্র। আরে মাটির পাত্র কি কাজে লাগানো হবে তাও বিস্তারিত বুঝিয়ে দেওয়া হয় গ্রামের মহিলাদের। সেইমতো গ্রামের মহিলারা মাটির পাত্রটিকে বাড়ির আশেপাশে গাছে ঝুলিয়ে দেন, আর সেই পাত্রে দেওয়া হয় পাখিদের জন্য পানীয় জল।

    আরও পড়ুনঃ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের প্রতিষ্ঠা দিবসে রবীন্দ্র-নজরুল স্মরণ মেদিনীপুরে

    পশ্চিম মেদিনীপুরের বনাধিকারিক Born 2 Help এর এই উদ্যোগের ভূয়শী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন বনদপ্তর এর পাশাপাশি সাধারণ মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে প্রকৃতি রক্ষা করার জন্য।

    Partha Mukherjee
    First published:

    Tags: Kharagpur, Paschim medinipur

    পরবর্তী খবর