গ্রাহকদের জন্য সুখবর! আপাতত নতুন প্রাইভেসি পলিসি স্থগিত করল WhatsApp

৮ ফেব্রুয়ারি কোনও ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড বা ডিলিট হবে না

৮ ফেব্রুয়ারি কোনও ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড বা ডিলিট হবে না

  • Share this:

    WhatsApp: অবশেষে পিছু হটল হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp)। আপাতত নতুন প্রাইভেসি পলিসি স্থগিত করল হোয়াটসঅ্যাপ। অর্থাৎ ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে WhatsApp-এর গোপনীয়তার নয়া নীতি ও শর্তাবলী না মানলে ইউজারদের অ্যাকাউন্ট ডিলিট হওয়ার ভয় এই মুহূর্তে আর রইল না। ব্যবহারকারীদের মধ্যে যাতে কোনও ভুল বোঝাবুঝি না থাকে, সেই কারণে তাঁদের আরও বেশি সময় দিতে চায় কোম্পানি। হোয়াটসঅ্যাপের দাবি, 'ভুল তথ্য উদ্বেগের কারণ', এই বলে তাঁরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

    কোম্পানি নিজের ব্লগপোস্টে জানিয়েছে যে, 'আমরা তারিখটি পিছনে নিয়ে যাচ্ছি। ৮ ফেব্রুয়ারি কোনও ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড বা ডিলিট করা হবে না। সেই সঙ্গে WhatsApp-এর প্রাইভেসি এবং নিরাপত্তা নিয়ে যে সব গুজব ছড়িয়ে পড়েছে, সেগুলিকে আমরা স্পষ্ট করে তুলবো। গ্রাহকদের কাছে। নতুন নীতি সম্পর্কে গ্রাহকেরা স্বেচ্ছায় রিভিউ জানানোর পরই আমরা ১৫ মে থেকে নতুন প্রাইভেসি পলিসি লাগু করব।'

    সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপ তার ব্যবহারকারীদের প্রাইভেসি পলিসির আপডেটের ঘোষণা করেছিল। আর তারপর থেকেই নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল। অনেক বহু ইউজাররা হোয়াটসঅ্যাপ ছেড়ে সিগন্যাল বা টেলিগ্রামের মতো অন্য অ্যাপের দিকে ঝুঁকছিলেন। এই পরিস্থিতে এই সিদ্ধান্ত নিতে হয় হোয়াটসঅ্যাপকে।

    আপডেটের ঘোষণা করার পর থেকে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল এর পর থেকে রীতিমতো আতঙ্কে রয়েছেন মানুষজন। তা হলে কি সমস্ত তথ্য শেয়ার হয়ে যাবে? ফেসবুক সমস্ত চ্যাট পড়তে পারবে? এই বিষয়ে হোয়াটসঅ্যাপও তথ্য প্রকাশ করেছিল। FAQ সেগমেন্টে হোয়াটসঅ্যাপের তরফে এই জাতীয় কিছু প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, সম্প্রতি প্রাইভেসি ও পলিসিতে আপডেটের কথা ঘোষণার পর থেকেই কিছু সাধারণ ও গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উঠে এসেছে। একাধিক গুজবও রটেছে। তবে এই সমস্ত কিছুর মাঝে কিছু প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। ব্যবহারকারীদের জানানো হচ্ছে, তাঁদের তথ্য সুরক্ষিত থাকবে। হোয়াটসঅ্যাপ বা ফেসবুক কোনও অ্যাপই প্রাইভেট মেসেজ দেখতে পায় না।

    হোয়াটসঅ্যাপের আশ্বাস, নতুন পলিসির মধ্য দিয়ে সামগ্রিক ভাবে পরিষেবাগুলিকে আরও সহজ ও মজবুত করে তোলা হবে। এমন লক্ষ্যে এই সোশাল মিডিয়া অ্যাপকে গড়ে তোলা হচ্ছে, যাতে মানুষজন প্রাইভেসি বজায় রেখে কথা বলতে পারেন। একটা কথা মাথায় রাখতে হবে, পলিসি আপডেট মানে প্রাইভেসির উপরে হস্তক্ষেপ নয়। এক্ষেত্রে পরিবার-পরিজন, বন্ধু-বান্ধবদের করা SMS বা পাঠানো তথ্য সুরক্ষিত থাকবে।

    FAQ সেগমেন্টে যে বিষয়গুলি উঠে এসেছে, তা হল- হোয়াটসঅ্যাপ বা ফেসবুক, কোনও অ্যাপই প্রাইভেট মেসেজ দেখতে পায় না কিংবা কল শুনতে পায় না। শেয়ার লোকেশন দেখতে পায় না হোয়াটসঅ্যাপ বা ফেসবুক। হোয়াটসঅ্যাপ ফেসবুকের সঙ্গে কনট্যাক্ট শেয়ার করে না। হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপগুলি বরাবরই প্রাইভেট থাকে। এক্ষেত্রে আপনি আপনার WhatsApp Message Disappear ফিচারটি এনেবল করতে পারেন। প্রয়োজনে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: