অনলাইন গেমে আসক্তি মোটেই খারাপ নয় ! কারণ শুনলে চমকে যাবেন

আসক্তি কোনও জিনিসেরই ভাল নয় কিন্তু ভিডিও গেম খেলারও যে কিছু ভাল দিক আছে সেটা জানা আছে কি ?

আসক্তি কোনও জিনিসেরই ভাল নয় কিন্তু ভিডিও গেম খেলারও যে কিছু ভাল দিক আছে সেটা জানা আছে কি ?

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বাবা মায়েরা সারা দিন এই নিয়ে ব্যতিব্যস্ত থাকেন, স্কুল কলেজের শিক্ষক শিক্ষিকারা ছাত্রছাত্রীদের বুঝিয়ে হয়রান হয়ে যান, তবু অনলাইন গেম খেলার অমোঘ আকর্ষণের হাত থেকে বাঁচা যায়না। অথচ এই যে এত চারদিকে খারাপ খারাপ আর গেল গেল রব উঠছে এতটাও কিন্তু ঠিক নয়। আসক্তি কোনও জিনিসেরই ভাল নয় কিন্তু ভিডিও গেম খেলারও যে কিছু ভাল দিক আছে সেটা জানা আছে কি? শুধু ছোটদের দোষ দিয়েও তো লাভ নেই, কারণ বড়রাও লুকিয়ে চুরিয়ে, অফিসের টিফিনে বা বাড়ি ফেরার সময় ভিডিও গেমে মজে থাকে। যদি মনে হয় এগুলো মনগড়া কথা তাহলে এক ঝলকে দেখেই নেওয়া যাক না যে ভিডিও গেম খেলার উপকারিতা ঠিক কীরকম।

যারা ভিডিও গেম খেলার ঘোরতর বিরোধী তাঁরা বলবে এই গেম খেলা মানে হচ্ছে অযথা জীবনের মূল্যবান সময় নষ্ট করা। কিন্তু বেশিরভাগ মানুষই যারা এই গেমে মগ্ন থাকেন তাঁরা অনুভব করেছেন যে এই গেম খেললে তাদের স্ট্রেস বা মানসিক চাপ অনেক কমে যায়। বিশেষ করে যারা অফিসে কাজ করেন তাঁরা সর্বক্ষণ চাপের মধ্যে থাকেন। সেই চাপ থেকে ক্ষণিকের মুক্তি পাওয়া যায় ভিডিও গেম খেলে। একই ফিডব্যাক পাওয়া যায় কোনও কঠিন পরীক্ষার আগের রাত্রে পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে। তাঁরাও এই গেম খেলে পরীক্ষার চাপ থেকে মুক্ত বোধ করেন।

ছোটদের গেম বাদ দিয়ে এমন অনেক গেম আছে যা বেশ কঠিন। সেগুলো খেলতে গেলে ধৈর্য এবং অধ্যাবসায় দুটোরই প্রয়োজন হয়। তার সঙ্গে প্রয়োজন হয় কো অরডিনেশনের। আর গেম খেললে আপনা আপনিই এগুলো শিখে ফেলেন অনেকে। যেহেতু একটা গেমে একেকটা লেভেল বা স্টেপ পার হয়ে যেতে হয় সেহেতু অনেক বুঝে শুনে বুদ্ধি করে পা ফেলতে হয়। ভুল সিদ্ধান্ত নিলে খেলা ছেড়ে বেরিয়ে আসতে হয়। একজন গেমারের কাছে যা অত্যন্ত হতাশাজনক। তাই যারা নিয়মিত ভিডিও গেম খেলেন তাঁরা সিদ্ধান্ত নিতে শিখে যান। অনেক ক্ষেত্রে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতাই তাঁদের বাস্তব কর্ম জীবনেও কাজে এসে যায়।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: