PUBG Mobile India: লঞ্চ নিয়ে ক্রমবর্ধমান জল্পনার মাঝেই সরকারের তরফে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা

শোনা গিয়েছিল ১৯ জানুয়ারি লঞ্চ হতে পারে PUBG Mobile India। কিন্তু সেদিনও কিছু হয়নি। এই পরিস্থিতিতে সরকারের তরফে এক নতুন বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হল

শোনা গিয়েছিল ১৯ জানুয়ারি লঞ্চ হতে পারে PUBG Mobile India। কিন্তু সেদিনও কিছু হয়নি। এই পরিস্থিতিতে সরকারের তরফে এক নতুন বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হল

  • Share this:

PUBG Mobile India: ব্যান হওয়ার পর থেকে PUBG Mobile গেম ফিরে আসা নিয়ে বারবার একাধিক জল্পনা তৈরি হয়েছে। বাজারে বহু APK ডাউনলোড লিঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। একাধিক সম্ভাব্য তারিখ নিয়েও বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে। এর মাঝেই শোনা গিয়েছিল ১৯ জানুয়ারি দেশের বাজারে লঞ্চ করতে পারে PUBG Mobile India। কিন্তু সেদিনও কিছু হয়নি। এই পরিস্থিতিতে সরকারের তরফে এক নতুন বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হল। যা শোনার পর থেকে কার্যত হতাশ হয়ে পড়েছেন PUBG-প্রেমীরা।

সংবাদ সংস্থা PTI সূত্রে জানা গিয়েছে, আপাতত গেম রি-লঞ্চ নিয়ে কোনও পদক্ষেপ করছে না দেশের সরকার। সম্প্রতি এক বিজ্ঞপ্তিতে সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, TikTok ও অন্যান্য চিনা অ্যাপে ব্যান জারি থাকবে। অদূর ভবিষ্যতেও এই ব্যান তোলা নিয়ে কোনও পদক্ষেপ করছে না সরকার। এক্ষেত্রে PUBG Mobile ও PUBG Mobile Lite গেমের উপরও লাগু থাকবে একই নির্দেশিকা। আপাতত এই গেমের লঞ্চে কোনও রকম অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। একই তথ্য উঠে এসেছে bgr.in-এর একটি প্রতিবেদনে। আর এই খবর ছড়িয়ে পড়ার থেকে ফের দুঃখের ছায়া PUBG-প্রেমীদের মনে।

তখন ভারত-চিন সীমান্ত সংঘর্ষ চরমে। সেই সূত্র ধরে ২ সেপ্টেম্বর তথ্য লেনদেন, তথ্য ফাঁস ও তথ্য চুরির যোগে ব্যান হয়ে যায় ১১৮টি অ্যাপ। সেই সূত্র ধরে ব্যান হয়েছিল PUBG গেমও। এক্ষেত্রে তথ্য গোপনীয়তা ও সুরক্ষা নিয়ে অভিযোগ ওঠে। ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যাক্টের ৬৯ A ধারার অধীনে অ্যাপগুলি নিষিদ্ধ করা হয়। এর পর থেকে একাধিক জল্পনা তৈরি হয়। প্রথমে শোনা যাচ্ছিল, ডিসেম্বরের শুরুতেই আসতে চলেছে গেম। বিপরীত পরিস্থিতিতে ভারতের জন্য নিজস্ব ভার্সন তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেয় PUBG কর্পোরেশন। কিছু প্রতিবেদন সূত্রে জানা যায়, মূলত ভারতীয় গেমারদের কথা মাথায় রেখেই এই গেম ডিজাইন করা হয়েছে। তাই গেমটির নাম দেওয়া হয়েছে PUBG Mobile India। গেমের ভার্চুয়াল নেচার ও ক্যারেক্টারগুলিকেও সেভাবে তৈরি করা হচ্ছে। ডেভেলপারদের তরফে এক বিবৃতিতে জানা গেছে, ইন্ডিয়ান গেমারদের কথা মাথায় রেখেই পুরো গেমটিকে সাজিয়ে তোলা হবে। পরে শোনা যায়, ১৯ জানুয়ারি লঞ্চ করবে গেমটি। কিন্তু সেই তারিখও এখন অতীত। আপাতত বিভ্রান্তি আর অপেক্ষা।

উল্লেখ্য, এরই মাঝে আগামীকাল অর্থাৎ ২৬ জানুয়ারি FAU-G আসার কথা রয়েছে। গত বছর সেপ্টেম্বরে একটি ঘোষণায় অক্ষয় কুমার (Akshay Kumar) এ নিয়ে বিস্তারিত জানিয়েছিলেন। অক্ষয়ের কথায়, FAU-G লঞ্চ হওয়ার পর সেই গেম থেকে প্রাপ্ত লভ্যাংশের ২০ শতাংশ সেনাদের ট্রাস্টে দেওয়া হবে। অক্ষয় কুমার নিজেই এই ট্রাস্ট শুরু করেছেন। তিনি আরও জানান, ভারতের ইয়ংস্টারদের কাছে ধীরে ধীরে বিনোদনের একটি বড় মাধ্যমে হয়ে উঠছে গেমিং। এক্ষেত্রে FAU-G গেমের হাত ধরে এক নতুন দিগন্তের সূচনা হতে চলেছে। তাঁর আশা, গেমটি খেলার মধ্য দিয়ে দেশের সেনাদের আত্মত্যাগকে আরও ভালো করে উপলব্ধি করতে পারবে দেশের যুবকেরা। আর পরোক্ষ ভাবে সেনাদের ট্রাস্টেও সাহায্য করতে পারবে। এই পরিস্থিতিতে PUBG-র বাজার টানবে FAU-G।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: