Home /News /technology /
Instagram-এর এই ফিচার কি আপনারও পছন্দ নয়? বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হল সংস্থা

Instagram-এর এই ফিচার কি আপনারও পছন্দ নয়? বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হল সংস্থা

তারা নিজেদের প্ল্যাটফর্মে টিকটকের মতো ফিচার বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

  • Share this:

ব্যবহারকারীদের অভিযোগ পেয়ে অবশেষে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল ইনস্টাগ্রাম। বহু দিন ধরেই সোশ্যাল নেওয়ার্কিং প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রামে টিকটকের মতো ফিচারগুলি নিয়ে ব্যবহারকারীদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা যাচ্ছিল। এমনিতে ফটো এবং ভিডিও শেয়ারিং সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রাম নিজেদের প্রতিদ্বন্দ্বী টিকটক -কে ভিউয়ের দৌড়ে হারানোর চেষ্টা করছে। অথচ টিকটকের ছবি ও ভিডিও ইনস্টাগ্রামে রিলের আকারে ব্যাপক ভাবে শেয়ার হওয়ার কারণে Instagram নিজস্বতা হারাচ্ছে। তাই তারা নিজেদের প্ল্যাটফর্মে টিকটকের মতো ফিচার বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আসলে মেটা (Meta) ইনস্টাগ্রাম এবং ইউটিউবের ইন্টারফেস বদলে দিয়েছিল। যার ফলে ব্যবহারকারীরা এই প্ল্যাটফর্মে টিকটকের মতো ভিডিও অথবা ফটো দেখতে পারেন। আর কোম্পানি কর্তৃক আনা কিছু পরিবর্তনের ব্যাপক সমালোচনা করেছেন ব্যবহারকারীরা। এর মধ্যে অন্যতম হল, টিকটকের মতো ফুল স্ক্রিন ডিসপ্লে এবং অজানা-অচেনা ব্যবহারকারীর পোস্ট সাজেশন দেওয়া ইত্যাদি।

আরও পড়ুন: মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের এই ৫ ট্রিক আসান করে দেবে লেখালিখি

পরিবর্তন না-পসন্দ ব্যবহারকারীদের:

বলে দেওয়া ভালো যে, TikTok-এর মতো ফিচার চালু করার এই সিদ্ধান্ত Instagram ব্যবহারকারীরা ভালো ভাবে নেননি। ফলে তাঁরা এই সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন। শুধু ব্যবহারকারীরাই নন, এই অভিযানে সামিল হয়েছিলেন আন্তর্জাতিক তারকারাও। আর এই অভিযানের উদ্দেশ্য সফল হয়। সাড়া মেলে ইনস্টাগ্রামের তরফে।

উল্লেখযোগ্য ভাবে, এই সপ্তাহেই কিম কার্দাশিয়ান (Kim Kardashian) এবং কাইলি জেনার (Kylie Jenner) সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কয়েকটি পোস্ট করেছেন। যেখানে ইনস্টাগ্রামকে আবার ইনস্টাগ্রাম করে দেওয়ার জন্য এবং টিকটকের মতো না-হওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন এই সব তারকারা।

আরও পড়ুন: ১৩টি নতুন মোবাইল প্ল্যানে বিনামূল্যে অ্যামাজন প্রাইম! দেখুন অসাধারণ এই অফার

TikTok-এর সঙ্গে প্রতিযোগিতা:

এই ফিচারগুলি সরানোর আগে, ইনস্টাগ্রাম-এর প্রধান অ্যাডাম মোসেরি (Adam Mosseri) ট্যুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করে জানিয়েছিলেন যে, বর্তমানে এই ফিচারগুলির উপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। এমনকী কিছু ব্যবহারকারীর সঙ্গেও এর পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল যে, মেটা (Meta) এবং গুগল (Google) উভয়ই TikTok-এর সঙ্গে সরাসরি প্রতিযোগিতায় নেমেছে। ফলে এই পরিস্থিতিতে উভয় সংস্থাই ব্যবহারকারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে আরও নতুন নতুন ফিচার (Feature) নিয়ে আসছে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

Tags: Facebook, Instagram, Meta, TikTok

পরবর্তী খবর