কথা কম, কাজ বেশি-নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিয়েই চেতনের শপথ

কথা কম, কাজ বেশি-নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিয়েই চেতনের শপথ

ফাইল ছবি

সিনিয়র নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর চেতন জানিয়েছেন, ‘‘আমি অভিভূত। ক্রিকেট মাঠে দেশের জার্সি গায়ে যেমন লড়াই করতাম, চেয়ারম্যান হিসেবে একইভাবে দায়িত্ব পালন করব।’’

  • Share this:

    #মুম্বই: একটা সময় ভারতীয় ক্রিকেটের কপিল দেবের ঠিক পরেই অলরাউন্ডার হিসেবে দেখা হত তাঁকে। হরিয়ানার চেতন শর্মা বল হাতে যেমন উইকেট নিতেন, ব্যাট হাতে গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলতেও দক্ষ ছিলেন। সিনিয়র নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর চেতন জানিয়েছেন, ‘‘আমি অভিভূত। ক্রিকেট মাঠে দেশের জার্সি গায়ে যেমন লড়াই করতাম, চেয়ারম্যান হিসেবে একইভাবে দায়িত্ব পালন করব। আমি কম কথা বলতে পছন্দ করি। কাজ দিয়েই আমাকে বিচার করবেন।’’ হরিয়ানার হয়ে খেলা শুরু করা চেতন ভারতের হয়ে খেলেছেন ২৩টি টেস্ট এবং ৬৫টি একদিনের ম্যাচ।

    প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক মাত্র ষোলো বছর বয়সে। দেশের জার্সিতে অভিষেক আঠারো বছর বয়সে। একদিনের ম্যাচে জাতীয় দলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম অভিষেক হয় তাঁর। টেস্ট অভিষেক পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। পরে ১৯৮৭ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করেন তিনি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কেরিয়ার এগারো বছরের। টেস্ট ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বার্মিংহামে দুই ইনিংস মিলিয়ে দশ উইকেট তুলে নেওয়ার রেকর্ড আছে তাঁর। এছাড়াও কপিল দেবের মত লর্ডস ক্রিকেট মাঠের হল অব ফেমে রয়েছে চেতন শর্মার নাম।

    নিজের ক্রিকেট জীবনে কপিল দেবকেই আদর্শ মানতেন। দুজনের গুরু একই। দেশপ্রেম আজাদের কাছেই হাতেখড়ি চেতন শর্মার। অবশ্য ১৯৮৬ সালে এই চেতন শর্মার বলে ছয় মেরে পাকিস্তানকে জয় এনে দিয়েছিলেন জাভেদ মিয়াঁদাদ। খেলা ছাড়ার পর কমেন্ট্রি করেছেন, লোকসভার ভোটে দাঁড়িয়েছেন। এছাড়াও দেবাশীষ মোহান্তি এবং আবে কুরুভিল্লাকে নেওয়া হয়েছে কমিটিতে। সঙ্গে বহাল থাকছেন সুনিল জোশী এবং হরবিন্দর সিং।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: