Home /News /south-bengal /
Maoist fear in Jhargram: দিনে দুপুরে গুলি করে বাইক ছিনতাই, পিছনে মাওবাদীরা? আতঙ্ক বাড়ছে ঝাড়গ্রাম

Maoist fear in Jhargram: দিনে দুপুরে গুলি করে বাইক ছিনতাই, পিছনে মাওবাদীরা? আতঙ্ক বাড়ছে ঝাড়গ্রাম

আহত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন সুদীপ মহাপাত্র৷

আহত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন সুদীপ মহাপাত্র৷

যেভাবে গুলি করে বাইক ছিনতাই করা হয়েছে, তাতে এই ঘটনার পিছনে মাওবাদীরা থাকতে পারে বলে সন্দেহ করছে পুলিশ৷

  • Share this:

    #ঝাড়গ্রাম: নতুন করে মাওবাদী আতঙ্ক জাঁকিয়ে বসছে ঝাড়গ্রাম জুড়ে৷ দিনে দুপুরে ঝাড়গ্রামের চন্দ্রী এলাকায় ৬ নম্বর জাতীয় সড়কের উপরে এক যুবককে গুলি করে মোটরবাইক এবং মোবাইল ফোন ছিনতাই করল দুই দুষ্কৃতী৷

    যেভাবে গুলি করে বাইক ছিনতাই করা হয়েছে, তাতে এই ঘটনার পিছনে মাওবাদীরা থাকতে পারে বলে সন্দেহ করছে পুলিশ৷ ঘটনাস্থল থেকে ঝাড়গ্রাম সীমান্তের দূরত্ব মাত্র তিন কিলোমিটার৷ ফলে মাওবাদীদের উপরে সন্দেহ আর বেড়েছে পুলিশের৷

    আরও পড়ুন: 'তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে খেলা হবে!' ঝাড়গ্রামে উদ্ধার মাওবাদীদের নামে পোস্টারে হুমকি

    জানা গিয়েছে, আহত যুবকের নাম সুদীপ মহাপাত্র৷ তিনি স্থানীয় একজন রেশন ডিলারের ভাইপো৷ এ দিন দুপুরে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর দিয়ে মোটরবাইকে করে যাওয়ার সময় অন্য একটি বাইকে করে তাঁকে তাড়া করে দুই দুষ্কৃতী৷ খুব কাছ থেকে সুদীপ মহাপাত্রকে গুলি করে তারা৷ গুলি লাগে সুদীপের শরীরের পিছন দিকে৷ সুদীপ মাটিতে পড়ে যেতেই তাঁর বাইক ও মোবাইল ফোন নিয়ে পালায় দু' জন৷

    আরও পড়ুন: অবশেষে বাস্তবায়নের পথে ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান? খরচ নিয়ে কেন্দ্র- রাজ্য সহমত, খবর সূত্রের

    সম্প্রতি, গোয়েন্দাদের কাছে খবর ছিল যে নতুন করে অপারেশনের জন্য মোটরবাইক ছিনতাই করতে পারে মাওবাদীরা৷ কোনও নাশকতামূলক কাজে সেই বাইক ব্যবহার করা হতে পারে৷ তার পরই এই ঘটনা ঘটায় এর পিছনে মাওবাদী যোগের তত্ত্ব সামনে আসছে৷ কারণ বাইক ছিনতাই করতে এ ভাবে সচরাচর গুলি চালায় না দুষ্কৃতীরা৷ আতঙ্ক ছড়াতেই এ ভাবে বাইক ছিনতাই করা হয়েছে বলেই অনুমান পুলিশের৷ আহত যুবককে প্রথমে মোহনপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ সেখান থেকে পরে তাঁকে ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে পাঠানো হয়৷

    এ দিনই ঝাড়গ্রামের মানিকপাড়ায় তৃণমূল নেতাদের হুমকি দিয়ে মাওবাদীদের নামাঙ্কিত পোস্টার মিলেছে৷ তার পরই এ দিন গুলি চালিয়ে বাইক ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটায় সাধারণ মানুষের মধ্যেও আতঙ্ক বাড়ছে৷ গত কয়েক মাসে জঙ্গলমহলে মাওবাদী তৎপরতা বৃদ্ধির বেশ কিছু প্রমাণ সামনে এসেছে৷ এ দিনের ঘটনার পিছনে কারা আছে, তা খুঁজে বের করতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷

    স্থানীয় সূত্রে খবর, যে যুবকের উপরে এ দিন হামলা চালানো হয়েছে, তিনি স্থানীয় এক রেশন ডিলারের ভাইপো৷ তাঁর সঙ্গে এলাকার তৃণমূল নেতাদেরও ওঠাবসা রয়েছে৷

    Raju Singh
    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    Tags: Jhargram, Maoist

    পরবর্তী খবর