সারছে না গণপিটুনির অসুখ, ছেলেধরা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে মার

দেশজুড়ে বেড়েই চলেছে গণপিটুনির ঘটনা। রাজ্যেও ডালপালা ছড়িয়েছে গণপিটুনির ক্যানসার। গণপিটুনি রুখতে কঠোর আইন আনতে চলেছে রাজ্য সরকার।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 12, 2019 11:36 AM IST
সারছে না গণপিটুনির অসুখ, ছেলেধরা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে মার
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 12, 2019 11:36 AM IST

#আসানসোল: সারছেই না গণপিটুনির অসুখ। আজ আসানসোলের সালানপুরে চোর সন্দেহে গণপিটুনিতে মৃত্যু হল এক যুবকের। মঙ্গলবার রাতে কোচবিহারের দিনহাটায় ছেলেধরা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে মারধর করে উত্তেজিত জনত। আহত যুবক দিনহাটা হাসপাতালে ভরতি।

দেশজুড়ে বেড়েই চলেছে গণপিটুনির ঘটনা। রাজ্যেও ডালপালা ছড়িয়েছে গণপিটুনির ক্যানসার। গণপিটুনি রুখতে কঠোর আইন আনতে চলেছে রাজ্য সরকার। যে আইনে থাকছে কঠোর শাস্তির নিদান। যার সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড। কিন্তু তারপরেও সারছে না গণপিটুনির অসুখ। বুধবারই আসানসোলে যার শিকার হয়ে প্রাণ হারালেন এক যুবক।

এদিন সকালে ঘটনাটি ঘটে আসানসোলের সালানপুরের দেনদুয়া রেলগেটের কাছে। চোর সন্দেহে এক যুবককে বেধড়ক মারধর করে এলাকাবাসী। রাস্তায় ফেলে চলে এলোপাথাড়ি লাথি। প্রায় আধ ঘণ্টা ধরে চলে অত্যাচার। খবর পেয়ে সালানপুর থানার পুলিশ যখন পৌঁছয়, ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছিল। আসানসোল জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। নিহত যুবকের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। ঘটনার সময় অনেকেই মোবাইলে ভিডিও তোলেন। সেই ভিডিওর সূত্র ধরেই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

আসানসোলের মতো কোচবিহারেরও সন্দেহের বশে জনরোষের শিকার এক যুবক। মঙ্গলবার রাতে দিনহাটার বরাইবাড়ি গ্রামে, মানসিক ভারসাম্যহীন এক যুবককে ঘুরতে দেখা যায়। জিজ্ঞাসাবাদের পর সদুত্তর না পেয়ে বাসিন্দারা চড়াও হন যুবকের ওপর। তাঁকে গাছে বেঁধে মারধর করে উত্তেজিত জনতা। প্রায় দু ঘণ্টার পর পুলিশ গিয়ে উদ্ধার করে আহত যুবককে। ভরতি করা হয় দিনহাটা হাসপাতালে। আসানসোলের মতো এক্ষেত্রেও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

First published: 11:36:28 AM Sep 12, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर