Home /News /south-bengal /
India-Bangladesh Border: মায়ের মৃত্যু ভারতে, মেয়েরা ছিলেন বাংলাদেশে! সীমান্তে কী কাণ্ড ঘটল শুনলে অবাক হবেন

India-Bangladesh Border: মায়ের মৃত্যু ভারতে, মেয়েরা ছিলেন বাংলাদেশে! সীমান্তে কী কাণ্ড ঘটল শুনলে অবাক হবেন

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

India-Bangladesh Border: ঘটনার সূত্রপাত রবিবার সকালে। নদিয়ার মাটিয়ারি গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ারা হালসানা, দীর্ঘ রোগ ভোগের পর মারা যান।

  • Share this:

#নদিয়া: দিন কয়েক আগেই এক মায়ের শেষ ইচ্ছা পূরণের সাক্ষী ছিলেন দুই বাংলার সীমান্তের জওয়ানরা। আর এবার আন্তর্জাতিক মাতৃ দিবসের দিন নদিয়ার মাটিয়ারি গ্রাম লাগোয়া নো-ম্যানস-ল্যান্ডের মাটি ভাসল চোখের জলে। মায়ের মৃত্যুর পর শেষ দেখা দেখতে ছুটে এলেন দুই মেয়ে। জিরো পয়েন্টে মায়ের শায়িত দেহে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর সুযোগ করে দিল দুই দেশের সীমান্ত বাহিনী।

আরও পড়ুন: আদৌ কি আর বিধায়ক থাকতে পারবেন মুকুল রায়? সব নজর ১২ মে!

ঘটনার সূত্রপাত রবিবার সকালে। নদিয়ার মাটিয়ারি গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ারা হালসানা, দীর্ঘ রোগ ভোগের পর মারা যান। তাঁর ছেলে নিওথালি হালসানা খবর দেন বাংলাদেশে থাকা দুই বোন ডালিয়া বিবি ও ওমেহার বিবিকে। মায়ের মৃত্যু সংবাদ শুনে শেষ বারের মতো মাকে দেখার ইচ্ছা প্রকাশ করেন দুই বোন। কিন্ত অতি-দ্রুত কী ভাবে সীমান্ত পেরিয়ে এ বাংলায় আসবেন ? তাহলে কি মায়ের মৃতদেহ দেখার সুযোগ হবে না? দাদার কাছে ফোনে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন ডালিয়ারা। বোনেদের সান্ত্বনা দিয়ে দাদা যোগাযোগ করেন বিএসএফের ৮২ নম্বর ব্যাটেলিয়নের সঙ্গে। জানানো হয় মাতৃবিয়োগের কথা। একইসঙ্গে অনুরোধ করা হয় দুই বোনকে একবারের জন্য সুযোগ করে দেওয়া হোক শেষকৃত্যের আগে একেবার মায়ের মুখ দেখার। বিএসএফের তরফে যোগাযোগ করা হয় বিজিবি-র সঙ্গে। দু’তরফে আলোচনা করে ঠিক হয় জিরো পয়েন্টে দেহ আনা হোক। সেখানে দুই বোনকে মাকে শেষ বারের মতো দেখার সুযোগ করে দেওয়া হবে।

 খবর দেওয়া হয় বাংলাদেশের চুয়াডাঙা জেলার কুতুবপুর গ্রামে । ডেকে পাঠানো হয় ডালিয়া ও ওমেহারকে। কিছু সময়ের মধ্যে আনোয়ারার মৃত দেহ নিয়ে যাওয়া হয় জিরো পয়েন্টে। আসেন দুই মেয়েও। মিনিট ৩০ -এর জন্য ভারাক্রান্ত হয়ে ওঠে পরিবেশ। জিরো পয়েন্টে চোখের জলে মাকে বিদায় জানান দুই মেয়ে। আর আন্তর্জাতিক মাতৃ দিবসে আন্তর্জাতিক সীমানা সাক্ষী থাকল এক বিরল ঘটনার। সাক্ষী থাকল মা-হারা দুই মেয়ের, যাঁরা দুই দেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীকে কৃতজ্ঞতা জানালেন চোখের জলে।

Amit Sarkar

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: BSF

পরবর্তী খবর