• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • Birbhum Police: পুলিশের মানবিক মুখ, অন্নসংস্থানের জন্য দুর্ঘটনাগ্রস্ত গাড়িচালককে টোটো উপহার

Birbhum Police: পুলিশের মানবিক মুখ, অন্নসংস্থানের জন্য দুর্ঘটনাগ্রস্ত গাড়িচালককে টোটো উপহার

Birbhum Police: স্বভাবতই এই টোটো উপহার পেয়ে দারুণ খুশি গোপাল বাগদি

Birbhum Police: স্বভাবতই এই টোটো উপহার পেয়ে দারুণ খুশি গোপাল বাগদি

Birbhum Police: স্বভাবতই এই টোটো উপহার পেয়ে দারুণ খুশি গোপাল বাগদি

  • Share this:

খয়রাশোল : বীরভূমের (Birbhum) খয়রাশোলের লোকপুর থানা নাকড়াকোন্দা গ্রামের বাসিন্দা গোপাল বাগদি । বয়স প্রায় ৩২ বছর । ওই ব্যক্তি পেশায় ছিলেন গাড়িচালক , গাড়ি চালিয়েই সংসার চলে তাঁর  । গত ২০১৮ সালে নিজের কাজে যাওয়ার সময় মোটরবাইক নিয়ে হজরতপুর যাচ্ছিলেন তিনি । ঠিক সেই সময় হজরতপুর ব্রিজের কাছে দুর্ঘটনার মুখে পড়েন । বাসের সঙ্গে তার মোটরবাইকের ধাক্কা লাগে । সেই দুর্ঘটনায় গোপাল বাগদির ডান পা, ডান হাত ও কলারবোন ভেঙে যায় ।

আরও পড়ুন : ধানক্ষেতে ৫০ হাতির তাণ্ডব ক্যামেরাবন্দি আকাশে ড্রোনপথে

দু্র্ঘটনার অভিঘাতে কর্মক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন গোপাল বাগদি । তারপর দীর্ঘ দিন চিকিৎসা চলার পর কিছুটা সুস্থ হতে থাকেন  গোপাল । কিন্তু সুস্থ হতে লাগলেও আগের মতো কাজ করতে পারেন না তিনি। বেশির ভাগ সময় ঘরে বসেই কাটাতে হয় তাঁকে । ঠিক তখনই গোপাল বাগদির  উপর নজর পড়ে লোকপুর থানার ওসি সন্তোষ ভকতের । ওসি সন্তোষ ভকত শোনেন তাঁর কথা । তারপর লোকপুর থানার ওসি সন্তোষ ভকত গোপাল  বাগদিকে উপার্জনের জন্য উপহার দেন একটি টোটো ।

আরও পড়ুন : জলে কুমির, আতঙ্কে গঙ্গাস্নান বন্ধ রেখেছেন কালনা পূর্বস্থলীর বাসিন্দারা

স্বভাবতই এই টোটো উপহার পেয়ে দারুণ  খুশি গোপাল বাগদি । বলেন, " আমি গাড়ি চালাই । গাড়ি চালিয়েই  সংসার চলে আমাদের । কিন্তু ২০১৮ সালের দুর্ঘটনায় আমি হারিয়ে ফেলি আমার কাজ করার ক্ষমতা । বেশ কদিন দারুণ কষ্টে চলে আমাদের সংসার । এরপর আমাদের লোকপুর থানার ওসি সন্তোষ ভকত স্যার আমার কথা শুনেন । তারপর আমি উপার্জনের জন্য একটি টোটো কিনে দেন । এই টোটো পেয়ে খুব উপকৃত আমি ।’’

আরও পড়ুন : গ্যাসের সিলিন্ডার খুলে ঘরে আগুন লাগিয়ে বাবা মাকে খুনের চেষ্টা ছেলের

এই খবর এলাকাতে ছড়াতেই গোপাল বাগদির পাশাপাশি  এলাকার বিশিষ্ট মানুষজনও সাধুবাদ জানিয়েছেন লোকপুর থানার ওসি সন্তোষ ভকতের এই উদ্যোগকে ।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: