• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • Mamata Banerjee: ট্রেনে মালদহের পথে মমতা, পছন্দের চপ মুড়ি নিয়ে স্টেশনে হাজির কেষ্ট

Mamata Banerjee: ট্রেনে মালদহের পথে মমতা, পছন্দের চপ মুড়ি নিয়ে স্টেশনে হাজির কেষ্ট

বোলপুর স্টেশনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

বোলপুর স্টেশনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

ট্রেন বোলপুরে এসে থামলে কামরার দরজার সামনে এসে দাঁড়ান মমতা৷ তাঁকে দেখেই স্লোগান দিতে থাকেন তৃণমূল কর্মী, সমর্থকরা (Mamata Banerjee)৷

  • Share this:

    #বোলপুর: ট্রেনে করে মালদহ যাবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)৷ ট্রেন থামবে বোলপুরে৷ আর বোলপুরের উপর দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী যাবেন অথচ প্রিয় কেষ্টর সঙ্গে তাঁর দেখা হবে না, তা কী করে হয়? আর তৃণমূলনেত্রীর পছন্দ অপছন্দ যাঁরা খুব খুঁটিয়ে জানেন, তাঁদের মধ্যে অন্যতম অনুূব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal)৷ তাই বোলপুর স্টেশন থেকে মুখ্যমন্ত্রীর কামরায় উঠল মুখ্যমন্ত্রীর পছন্দের চপ, মুড়ি৷ সঙ্গে ছিল মিষ্টিও৷

    আজ হেলিকপ্টারেই মালদহ পৌঁছনোর কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রীর (Mamata Banerjee)৷ কিন্তু খারাপ আবহাওয়ার জন্য হেলিকপ্টারের বদলে ট্রেনে মুখ্যমন্ত্রী মালদহ যাবেন বলে ঠিক হয়৷ সেই মতো এ দিন হাওড়া- মালদহ জনশতাব্দী এক্সপ্রেসে এ দিন মালদহ রওনা হন মুখ্যমন্ত্রী৷ বিকেল চারটে নাগাদ বোলপুর স্টেশনে পৌঁছয় ট্রেন৷

    আরও পড়ুন: কলকাতায় চাই সবুজ-ঝড়, দুদিনেই 'গুরুদায়িত্ব' সামলাবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

    মুখ্যমন্ত্রীর আসার খবর পেয়ে আগে থেকেই বোলপুর স্টেশনে অপেক্ষা করছিলেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল৷ সঙ্গে এসেছিলেন তৃণমূলের বহু কর্মী, সমর্থক৷ এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলাশাসক বিধান রায়, এসপি নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী৷

    ট্রেন বোলপুরে এসে থামলে কামরার দরজার সামনে এসে দাঁড়ান মমতা৷ তাঁকে দেখেই স্লোগান দিতে থাকেন তৃণমূল কর্মী, সমর্থকরা৷ প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন অনুব্রত৷ মুখ্যমন্ত্রীর জন্য তাঁর পছন্দের চপ, মুড়ি নিয়ে এসেছিলেন অনুব্রত৷ এ ছাড়াও ছিল মিষ্টি৷ ট্রেনে সেসব তুলে দেওয়া হয়৷ অনুব্রতর পাশাপাশি পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গেও কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী৷

    আরও পড়ুন: ট্রেন-সফরে মুখ্যমন্ত্রী, মালদহের জন্য রয়েছে বড় চমক!

    মুখ্যমন্ত্রী যখনই বীরভূম সফরে আসেন, তাঁর মেনুতে থাকে চপ মুড়ি৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠরা অনেকেই জানেন মুড়ির সঙ্গে তেলেভাজা খেতে যথেষ্টই পছন্দ করেন তিনি৷ ফলে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে আসার সময় তাঁর পছন্দের চপ, মুড়ি আনতে ভোলেননি অনুব্রত৷

    মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার পর অনুব্রত বলেন, 'তিনি যেমন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, আমাদের দলনেত্রীও৷ তাই তিনি বোলপুরের দিয়ে গেলে তাঁর সঙ্গে দেখা করাটা আমাদের দায়িত্ব৷' অনুব্রত অবশ্য জানিয়েছেন, ছোট্ট সাক্ষাতে তাঁর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর কুশল বিনিময় ছাড়া বিশেষ কোনও কথা হয়নি৷

    Indrajit Ruj
    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: