Home /News /purba-bardhaman /
East Bardhaman News: সংসার চালাতে মাঠে খেতমজুরি, কাজের পাশাপাশি পড়াশোনাও চালাচ্ছেন এই পঞ্চায়েত প্রধান

East Bardhaman News: সংসার চালাতে মাঠে খেতমজুরি, কাজের পাশাপাশি পড়াশোনাও চালাচ্ছেন এই পঞ্চায়েত প্রধান

পঞ্চায়েত [object Object]

East Bardhaman News: পঞ্চায়েত প্রধান হিসাবে পাওয়া টাকা দিয়ে আরও পড়াশুনা করে স্নাতক হওয়ার । স্নাতক হয়ে একটা সরকারি চাকরি জোগাড় করে নিজেকে জীবনে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যেই ঝুমা কোড়া অবিচল ।

  • Share this:

    পূর্ব বর্ধমান: এক ব্যতিক্রমী দৃষ্টান্ত হলেন পূর্ব বর্ধমানের মেমারী এক নং ব্লকের দলুইবাজার দুই গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ঝুমা কোড়া । ঝুমাদেবী স্বপ্ন দেখেন, পঞ্চায়েত প্রধান হিসাবে পাওয়া টাকা দিয়ে আরও পড়াশুনা করে স্নাতক হওয়ার । স্নাতক হয়ে একটা সরকারি চাকরি জোগাড় করে নিজেকে জীবনে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যেই ঝুমা কোড়া অবিচল ।

    মেমারীর দুলুইবাজার (দুই) পঞ্চায়েত এলাকার প্রত্যন্ত গ্রাম চোঁয়াডাঙার ছয় নং সংসদের আদিবাসী প্রধান অঞ্চলের বাসিন্দা ঝুমা কোড়া। তাঁর স্বামী সঞ্জয় কোড়া চাষের মরশুমে পরিবারের দেড় বিঘা জমি ও অন্যের কাছ থেকে ভাগে নেওয়া ২-৩ বিঘা জমি চাষ করেন । চাষের মরশুম বাদে অন্য সময়ে সঞ্জয় বাবু বালি খাদানে শ্রমিকের কাজ করেন । স্বামী, শশুর, শাশুড়ি এবং দুই সন্তানকে নিয়ে সংসার ঝুমার । কোনও রকমে কষ্ট করেই কোড়া পরিবারের সকলে দিন গুজরান করেন ।

    স্কুলজীবনেই ঝুমার মনে তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মাতৃভক্তি ও সংগ্রামের বিষয়টি দাগ কাটে । তার পর থেকে মনেপ্রাণে তাঁর ভক্ত হয়ে ওঠেন ও তৃণমূলের হয়ে কাজ করা শুরু করেন ।

    আরও পড়ুন :  মা আসছেন, অতিমারি কাটিয়ে কুমোরপাড়ায় সাজো সাজো রবে ফের মূর্তি তৈরির প্রস্তুতি

    নবম শ্রেণিতে পড়ার সময়ই ঝুমার সঙ্গে গ্রামেরই যুবক সঞ্জয়ের বিয়ে হয় । তার পর নিজের সংসারের হাল ধরার জন্য তিনিও খেতমজুরির কাজ শুরু করেন । আর তাঁর স্বামী বালি খাদানে শ্রমিকের কাজ করা শুরূ করেন । সংসারে অভাব থাকায় বিয়ের পর তিনি আর পড়াশুনা চালিয়ে যেতে পারেননি । এরই মধ্যে রাজ্য রাজনীতিতে পালাবদল ঘটে । তাঁর প্রিয় নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হন । বাংলায় তৃণমূল কংগ্রেস সরকার প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর প্রথম পঞ্চায়েত নির্বাচনে তাঁদের এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস নেতা উত্তম ঘোষ তাঁকে গ্রামের প্রার্থী মনোনীত করেন । ভোটে জিতে তিনি সাধারণ সদস্য হন।

    আরও পড়ুন : মা-ছেলের তৈরি প্রতারণার ফাঁদে পা দিয়ে সর্বস্বান্ত অসংখ্য যুবক যুবতী

    পরের পঞ্চায়েত ভোটে গ্রামের ৬ নম্বর সংসদের প্রার্থী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জয়ী হন । দলীয় নেতৃত্ব তাঁকে দুলুইবাজার (২) গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান পদে মনোনীত করেন । তার পর থেকেই সামলাচ্ছেন পঞ্চায়েত প্রধানের দায়িত্ব ।

    আরও পড়ুন :  চোখে ঘুম এলেই গলায় শুকনো কাশি? সহজ ঘরোয়া টোটকা আপনার জন্য

    অন্যদিকে সংসার চালাতে তিনি কাজ করেন খেতমজুরের । একইসঙ্গে পড়াশোনা চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তিনি । স্নাতক পাস করে সরকারি চাকরির করার ইচ্ছে রয়েছে ঝুমার । রবীন্দ্র মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে পড়াশুনা করে ২০২১ সালে তিনি মাধ্যমিক পাশ করেছেন । এখন উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে পড়াশোনা করছেন । প্রত্যেক সপ্তাহের শনি ও রবিবার ক্লাস করতে যান । উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করার পর স্নাতক স্তরের পরীক্ষা দিয়েও তিনি উত্তীর্ণ হতে চান ।

    ঝুমা কোড়া জানান, পঞ্চায়েত প্রধান হয়েও লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি স্বামীকে চাষের কাজে সর্বতোভাবে সহযোগিতা করেন। খেতমজুরির কাজেও তাঁর অনীহা নেই।

    (Malobika Biswas)

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: East Burdwan

    পরবর্তী খবর