Home /News /off-beat /
Expensive Kohitur Mango : একটা আম ১৫০০ টাকা! নবাবি মুর্শিদাবাদে কোহিতুর নাকি খাওয়া হত সোনার টুথপিকে গেঁথে!

Expensive Kohitur Mango : একটা আম ১৫০০ টাকা! নবাবি মুর্শিদাবাদে কোহিতুর নাকি খাওয়া হত সোনার টুথপিকে গেঁথে!

হিরের দুনিয়ায় যেমন কোহিনূর, আমের সাম্রাজ্যে তেমনই কোহিতুর

হিরের দুনিয়ায় যেমন কোহিনূর, আমের সাম্রাজ্যে তেমনই কোহিতুর

Expensive Kohitur Mango : কালোপাহাড় থেকেই ‘কোহিতুর’৷ কথিত, আমের নতুন প্রজাতি তৈরিতে সিদ্ধহস্ত হাকিম আদা মহম্মদী ছিলেন কোহিতুরের জন্ম-কারিগর ৷  

  • Share this:

    কলকাতা : নবাব নেই ৷ নেই তাঁর রাজপাট ৷ রয়ে গিয়েছে তাঁর আম ৷ আমের নাম কোহিতুর ৷ হিরের দুনিয়ায় যেমন কোহিনূর, আমের সাম্রাজ্যে তেমনই কোহিতুর৷ রূপ-রস-বর্ণ-গন্ধে অতুলনীয় এই আমের দাম প্রতিটির দাম ৫০০ টাকা থেকে ১৫০০ টাকা অবধি ৷

    এ রাজ্যে কোহিতুরের আঁতুড়ঘর মুর্শিদাবাদ ৷ জনশ্রুতি, সিরাজ-উদ-দৌলার ফরমানে এ আমের প্রজাতি তৈরি করা হয়েছিল ৷ সিরাজের আদেশে সারা দেশ থেকে মুর্শিদাবাদে আনা হয়েছিল সেরা প্রজাতির আমের চারা ৷ তার পর বিশেষজ্ঞদের হাতে তৈরি হয়েছিল কোহিতুর আমের চারা ৷ একাধিক প্রজাতির আমের চারার সংমিশ্রণে জন্ম এই আমের ৷ সেই প্রজাতিগুলির মধ্যে অন্যতম ছিল ‘কালোপাহাড়’ আম৷ এই কালোপাহাড় থেকেই ‘কোহিতুর’৷ কথিত, আমের নতুন প্রজাতি তৈরিতে সিদ্ধহস্ত হাকিম আদা মহম্মদী ছিলেন কোহিতুরের জন্ম-কারিগর ৷

    কোনও কোনও কিংবদন্তিতে আবার কোহিতুরের সঙ্গে জড়িয়ে আছে  নবাব মুর্শিদকুলি খাঁর নাম ৷ নবাব এক বার তৎকালীন সাবেক রেঙ্গুনে গিয়ে এই আম খেয়েছিলেন ৷ এর স্বাদে মুগ্ধ মুর্শিদকুলি খাঁ নিজের রাজ্যপাটে নিয়ে আসেন কোহিতুর ৷ তার পর থেকেই মুর্শিদাবাদে এর ফলন ৷

    আরও পড়ুন :  ওরা সকলে কোথায় গেল?’ ভূমিকম্পের ভগ্নস্তূপে রোজ পরিবারের সদস্যদের খোঁজে পোষ্য

    তবে মুর্শিদকুলি খাঁ বা সিরাজ-উদ-দৌলা, যিনিই কোহিতুরের পিছনে থাকুন না কেন, এই আম ছিল রাজভোগ্য ৷ নবাবের পরিবারের জন্যই বিশেষ ভাবে আমবাগানে লালনপালন করা হত কোহিতুর আমগাছ ৷ এই আম এতই স্পর্শকাতর, যে গাছ থেকে এক বার মাটিতে পড়লেই এর স্বাদ ও সুবাস দুই-ই মাঠে মারা যায় ৷ তাই দক্ষ হাতে অতি সন্তর্পণে গাছপাকা কোহিতুর তুলে রাখা হয় তুলোর নরম আবরণে ৷

    আরও পড়ুন : একটি আম ৫০০ টাকা! গরমের ছুটির পর স্কুলে প্রথম দিন মহার্ঘ্য কোহিতুর-সহ নানা ফল দিয়ে বরণ পড়ুয়াদের

    সোহাগের এখানেই শেষ নয় ৷ আম আদমির নাগালের বাইরে থাকা এই আম কাটার ক্ষেত্রেও আছে বিশেষত্ব ৷ ছুরি অথবা বঁটি দিয়ে নয় ৷ কোহিতুর কাটতে হবে বাঁশের চাঁচরি বা বাঁশের ছুরি দিয়ে ৷ না হলে নষ্ট হয়ে যাবে এর স্বাদ ও গন্ধ ৷ শোনা যায়, নবাবি আমলে কোহিতুর খাওয়া হত সোনার দাঁত খড়কে বা টুথপিক দিয়ে ৷ গাছে কোহিতুরকে পাহারা দেওয়ার জন্য মোতায়েন থাকতেন আম-পেয়াদা ৷

    আরও পড়ুন : রোজ হলুদ খান? এটাই আসলে আপনাকে অসুস্থ করে তুলছে না তো?

    আম-পেয়াদা পদ না থাকলেও সেই প্রহরা আজও আছে ৷ তবে পাহারা সত্ত্বেও আজ মুর্শিদাবাদে মাত্র ১০ থেকে ১৫ জন উদ্যানপালকের কাছে ২৫ থেকে ৩০ টি কোহিতুর আমগাছ আছে ৷ অন্যান্য প্রজাতির তুলনায় এই আমের ফলনও কম সংখ্যায় হয়৷ এক একটি গাছে প্রত্যেক মরশুমে সর্বোচ্চ ৪০ টি কোহিতুর ফলে হয়তো৷ তাই সব দিক দিয়েই এই আম মহার্ঘ্য ও দুর্লভ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: Kohitur mango, Mango, Murshidabad

    পরবর্তী খবর