Home /News /off-beat /
Engineer turns into Rapido Driver: নামী কর্পোরেট সংস্থায় কর্মরত ইঞ্জিনিয়ারই সপ্তাহান্তে র‍্যাপিডো চালক!

Engineer turns into Rapido Driver: নামী কর্পোরেট সংস্থায় কর্মরত ইঞ্জিনিয়ারই সপ্তাহান্তে র‍্যাপিডো চালক!

Engineer turns into Rapido Driver

Engineer turns into Rapido Driver

Engineer turns into Rapido Driver: তাক লাগালেন বেঙ্গালুরুর এক ইঞ্জিনিয়ার৷ তিনি সপ্তাহান্তে হয়ে যান র‍্যাপিডো চালক ৷

  • Share this:

    মোটা অঙ্কের বেতন, ঝকঝকে জীবনের হাতছানি থাকলেও ৯-৫ টার কর্পোরেট চাকরিতে মাঝে মাঝে একঘেয়ে লাগে ৷ একঘেয়েমি কাটাতে সকলেই কিছুটা সময় কাটান নিজের শখ শৌখিনতার সঙ্গে৷ বেড়াতে যাওয়া, জিমে শরীরচর্চা, ট্রেকিং, ক্যাম্পিং, পার্টি করার মতো হাজারো শখ ছড়িয়ে আছে আজকের দিনে ৷ তবে শখের প্রসঙ্গে  তাঁর কথায় এতে তিনি রিল্যাক্স করতে পারেন৷ নিত্যনতুন লোকের সঙ্গে আলাপও হয়৷

    সম্প্রতি তাঁর কথা সামাজিক মাধ্যমে জানিয়েছেন এক ট্যুইটারেত্তি, নিখিল শেঠ ৷ তিনি সম্প্রতি একটি র‍্যাপিডো যাত্রা বুক করেছিলেন ৷ যাত্রাপথে জানতে পারেন চালক উচ্চশিক্ষিত ইঞ্জিনিয়ার ৷ কর্মরত বেঙ্গালুরুর নামী তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় ৷ তাঁর এই আজব শখের কথা ও কারণ শুনে ওই ট্যুইটারেত্তির ধারণা, জীবনে নিঃসঙ্গতা কাটাতেই এই সাময়িক পেশায় পা রাখেন ওই ইঞ্জিনিয়ার ৷ ট্যুইটারে নিখিল লিখেছেন ‘‘আজ আমার র‍্যাপিডো চালক একজন ইঞ্জিনিয়ার ৷ তিনি জানালেন শুধুমাত্র নিত্যনতুন লোকজনের সঙ্গে কথা বলতে সপ্তাহান্তে এই শখ পূর্ণ করেন৷’’

    আরও পড়ুন :  বরফের ঢালে পেটে ভর দিয়ে সাতসকালে পেঙ্গুইনদের কাজে যাওয়ার তাড়া! অ্যান্টার্কটিকার ভাইরাল ভিডিও দেখুন

    দ্রুত ভাইরাল হয় তাঁর পোস্ট৷ নেটদুনিয়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া পায় তাঁর পোস্ট ৷ অনেকেই শেয়ার করেছেন৷ আবার অনেকে মিম-ও পোস্ট করেছেন ৷ এক নেটিজেন জানান তিনি একবার ক্যাবচালককে দেখেছিলেন যিনি নিজেকে দাবি করেছিলেন ব্যবসায়ী বলে ৷ জানান, তাঁর বাচ্চাদের সময় নেই তাঁর সঙ্গে কথা বলার ৷ তাই তিনি সময় কাটানোর জন্য অ্যাপক্যাব চালান ৷ সপ্তাহে তিন থেকে চার বার নাকি তিনি অ্যাপক্যাব চালকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতেন ৷

    আরও পড়ুন :  লকডাউনে ঘরে বসে নিজের হাতে তৈরি করা বিমানে সপরিবার ইউরোপ সফর করলেন যুবক

    আরও পড়ুন :  ৯০ ডিগ্রি বেঁকে গিয়েছিল ঘাড়, নিখরচায় অস্ত্রোপচারে পাকিস্তানি কিশোরীর নতুন জীবন ভারতের চিকিৎসকের হাতে

    নিখিলের পোস্টে অনেকেই মজা করে বলেছেন র‍্যাপিডো চালক হওয়ার জন্য তাঁর চাকরিও চলে যেতে পারে ৷ কারণ দ্বৈত উপার্জন নিয়মবিরুদ্ধ৷ প্রসঙ্গত রবিবার করা নিখিলের ট্যুইটার ইতিমধ্যেই অগণিত লাইকের বন্যায় ভেসে গিয়েছে৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: Bengaluru, Rapido, Viral

    পরবর্তী খবর