উত্তরবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

পথশ্রী  প্রকল্পের সূচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী   

পথশ্রী  প্রকল্পের সূচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী   

প্রথমে লকডাউন, তারপরে বর্ষায় রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের রাস্তার হাল বেহাল হয়ে পড়েছে। রক্ষণাবেক্ষণের কাজে অনেক দেরি হয়ে গেছে। সেই কাজে যাতে আর ঢিলেমি না হয়, সেদিকে নজর রাখতে হবে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: রাস্তা হতে হবে মসৃণ। পুজোর আগেই রাস্তা সারিয়ে ফেলতে হবে। বড় রাস্তা রক্ষণাবেক্ষণের জন্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রথমে লকডাউন, তারপরে বর্ষায় রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের রাস্তার হাল বেহাল হয়ে পড়েছে। রক্ষণাবেক্ষণের কাজে অনেক দেরি হয়ে গেছে। সেই কাজে যাতে আর ঢিলেমি না হয়, সেদিকে নজর রাখতে হবে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এই বিষয়ে উদ্যোগী হলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর উত্তরবঙ্গ সফরের আজ, বৃহস্পতিবার তৃতীয় দিনে জলপাইগুড়ির রাজগঞ্জ ব্লক থেকে 'পথশ্রী' প্রকল্পের সূচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। আজ, ১ অক্টোবর থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে এই অভিযান। এই প্রকল্পের মূল কাজ হল ১২ হাজারের বেশি গ্রামীণ রাস্তা পুনর্গঠন করা। যা আসলে হবে বাংলার গ্রাম সড়ক যোজনার অন্তর্গত। এছাড়া জেলা পরিষদ-সহ অনেক রাস্তা রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। তার সব কিছুই এই প্রকল্পের মধ্যে দিয়ে অগ্রসর হবে।

পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দফতর এই বিষয়ে ইতিমধ্যেই সমীক্ষার কাজ শেষ করে ফেলেছে। মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন প্রশাসনিক বৈঠকে রাস্তার বেহাল দশা নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছিলেন। এবার তাই দ্রুত রাস্তা সংষ্কারের কাজ করতে চাইছে দায়িত্বে থাকা বিভিন্ন বিভাগ। মুখ্যমন্ত্রী এদিন লক্ষ্যমাত্রা বেছে নিয়েছেন, চলতি বছরের মধ্যেই রাস্তার হাল ফেরাতে হবে। ইতিমধ্যেই পঞ্চায়েত এবং গ্রামোন্নয়ন বিভাগের সচিব এম ভি রাও, এই প্রকল্প ও কাজের গতি দুই বিষয়েই অবহিত করে জেলাশাসকদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। আজ, বৃহস্পতিবার গোটা রাজ্যের বিভিন্ন ব্লকে এই কর্মসূচী পালিত হচ্ছে। এই প্রকল্প যেখানে যেখানে শুরু হবে, সেখানে রাস্তার নাম নির্দিষ্টভাবে লেখা থাকবে। স্থানীয় স্তরে এ ব্যপারে ব্যাপক প্রচার চালানো হচ্ছে। রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে গ্রামীণ এলাকার বহু রাস্তা বেহাল হয়ে পড়েছে।

বহু ক্ষেত্রেই অভিযোগ গ্রামের কাঁচা রাস্তা দিয়ে ভারী গাড়ি  চলাচল করছে। ওভারলোডিং-এর কারণে আরও রাস্তা খারাপ হতে শুরু করে দিয়েছে। গ্রামীণ রাস্তা ভেঙে যাওয়া নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী নবান্নের বৈঠকে সরব হয়েছিলেন। সেই কারণেই এই সব রাস্তা দ্রুত সারানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন, যে সব প্রধান রাস্তা যা পূর্ত দফতর রক্ষণাবেক্ষণ করছে সেই কাজও দ্রুত শেষ করতে বলা হয়েছে।

আবীর ঘোষাল

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: October 1, 2020, 3:05 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर