উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

বাজল পুজোর ঢাক!‌ মালদহের একাধিক পুজোর উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী

বাজল পুজোর ঢাক!‌ মালদহের একাধিক পুজোর উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী

উদ্বোধনের নির্দিষ্ট সময়সীমার বহু আগেই মণ্ডপে হাজির হয়ে যান তাঁরা। রাজ্যের মহিলা মুখ্যমন্ত্রীর মাধ্যমে পুজোর উদ্বোধন হওয়ায় খুশি এখানকার মহিলা সদস্যরা।

  • Share this:

#মালদহ: এক সপ্তাহ আগে থেকেই পুজোর আবহ মালদহে। মুখ্যমন্ত্রীর হাত ধরে এক সপ্তাহেরও বেশি আগেই শুরু হয়ে গেল মালদহের দুর্গোৎসব। বুধবার মালদহে আটটি পুজোর ভার্চুয়াল উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মাত্র ২৪ ঘন্টা আগেই মুখ্যমন্ত্রীর হাত দিয়ে পুজো উদ্বোধন সূচি চূড়ান্ত হয়। এরপরে তড়িঘড়ি প্রস্তুতি শুরু করে দেন বিভিন্ন পুজোর উদ্যোক্তারা। রাতভর চলে প্রস্তুতি। বুধবার সকাল থেকেই বিভিন্ন মণ্ডপে গিয়ে চোখে পড়ে দুর্গা প্রতিমার চক্ষুদান থেকে মণ্ডপ তৈরি তৎপরতা। মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই বেশিরভাগ জায়গাতেই সেজেগুজে তৈরী পূজা মন্ডপ। এদিন মালদহের শান্তি ভারতী পরিষদে দুর্গা পুজোর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন মালদহের জেলাশাসক রাজর্ষি মিত্র, জেলা পুলিশ সুপার অলোক রাজরিয়া প্রমূখ। ভার্চুয়াল পুজো উদ্বোধনে প্রয়োজনীয় সাহায্য করে জেলা প্রশাসনই। মুখ্যমন্ত্রী ভার্চুয়াল উদ্বোধন ঘোষণার পর প্রদীপ জ্বালিয়ে উৎসবের সূচনা করেন জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার। মালদহের অন্যান্য পুজোগুলিতেও জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের বিভিন্ন পদস্থ আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। কলকাতা নবান্ন থেকে মুখ্যমন্ত্রী যখন জেলার পুজোর উদ্বোধন ঘোষণা করছেন তখন জেলার বিভিন্ন পূজা মন্ডপে হাতে শাঁখ নিয়ে হাজির মহিলারা, হাজির ছিল ঢাকির দল। উদ্বোধন ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে বেজে ওঠে ঢাকের বাদ্য, বেজে ওঠে শঙ্খধ্বনি। এদিন মালদা শহরের অন্যান্য পূজার সঙ্গেই ১২ নম্বর ওয়ার্ডে মহিলা পরিচালিত দুর্গাপুজোর সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। এখানে পুজোর প্রস্তুতির বেশিরভাগ দায়িত্বেই এলাকার মহিলারা।

উদ্বোধনের নির্দিষ্ট সময়সীমার বহু আগেই মণ্ডপে হাজির হয়ে যান তাঁরা। রাজ্যের মহিলা মুখ্যমন্ত্রীর মাধ্যমে পুজোর উদ্বোধন হওয়ায় খুশি এখানকার মহিলা সদস্যরা। এর পাশাপাশি মালদাহ শহরের সর্বজয়ী ক্লাব, অনিক সংঘ, বিবেকানন্দ ক্রীড়াচক্র, বালুচর কল্যাণ সমিতি, এছাড়া চাঁচোল মহকুমার পাহাড়পুর চণ্ডীমণ্ডপ মন্দির ও পূর্বাঞ্চল দুর্গা মন্দির এর দুর্গাপূজার উদ্বোধন ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। অন্যান্য বছর সাধারণত উত্তরের এই জেলায় এত বেশি আগে দুর্গাপূজা উদ্বোধন হয় না। সেক্ষেত্রে এবারের পুজো ব্যতিক্রমী। এছাড়া প্রতি পুজোতেই উদ্যোক্তারা করোনা সতর্কতা ও স্বাস্থ্যবিধির দিকে বাড়তি নজর দিয়েছেন। সমস্ত বড় উদ্যোক্তারা জানাচ্ছেন, পুজো মণ্ডপ চত্বরে স্যানিটাইজার ট্যানেল, থার্মাল স্ক্রিনিং এর ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। অনেক আগেই পুজোর উদ্বোধন ঘোষণা হওয়ায় আগে থেকেই ভিড় এড়িয়ে প্রতিমা দেখার সুযোগ পাবেন দর্শনার্থীরা।

Sebak DebSarma

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: October 14, 2020, 8:34 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर