• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • Live In Relationships: ‘লিভ ইন সম্পর্ক এখন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ’, মন্তব্য এলাহাবাদ হাই কোর্টের

Live In Relationships: ‘লিভ ইন সম্পর্ক এখন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ’, মন্তব্য এলাহাবাদ হাই কোর্টের

Live In relationships সহবাস প্রসঙ্গে আদালত...

Live In relationships সহবাস প্রসঙ্গে আদালত...

Live In Relationships: সম্প্রতি দুই লিভ ইন কাপল এলাহাবাদ হাই সম্প্রতি দুই লিভ ইন কাপল এলাহাবাদ হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। দুই ক্ষেত্রেই অভিযোগ এক।

  • Share this:

    লখনৌ : লিভ ইন (Live-in relationship) সম্পর্ককে সামাজিক নৈতিকতার দিক থেকে না দেখে ব্যক্তিগত স্বায়ত্তশাসনের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখা দরকার। এই সম্পর্ক বর্তমানে জীবনেরই অংশ হয়ে উঠেছে। একটি মামলায় এমনই মন্তব্য করল এলাহাবাদ হাই কোর্ট। এই প্রসঙ্গে আদালতের বক্তব্য, ”মাননীয় শীর্ষ আদালতের সম্মতিক্রমে লিভ ইন সম্পর্ক জীবনেরই অংশ হয়ে উঠেছে।”

    আরও পড়ুন: তীক্ষ্ণ চিৎকার! প্রেমিককে ঘিরে তিন যুবতীর খণ্ডযুদ্ধ মাঝরাস্তায়, নিমেষে ভাইরাল ভিডিও... 

    সম্প্রতি দুই লিভ ইন কাপল এলাহাবাদ হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। দুই ক্ষেত্রেই অভিযোগ এক। মেয়েদের পরিবার তাঁদের দৈনন্দিন জীবনযাপনে হস্তক্ষেপ করতে শুরু করেছে। শুধু তাই নয় তাঁদের প্রতিনিয়ত দেওয়া হচ্ছে হুমকিও। এই মামলার শুনানিতেই এমন মন্তব্য করেছে প্রীতিঙ্কর দিবাকর ও আশুতোষ শ্রীবাস্তবের বেঞ্চের।

    আসুন দেখা যাক, ঠিক কী জানিয়েছে এই বেঞ্চ? শুনানির সময় বিচারপতিরা জানিয়েছেন, ”লিভ ইন সম্পর্ককে ভারতীয় সংবিধানের ২১ নম্বর ধারার অনুসরণে ব্যক্তিগত স্বায়ত্তশাসনের দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখতে হবে। সামাজিক নৈতিকতার দিক দিয়ে নয়।” প্রসঙ্গত, সংবিধানের ২১ নম্বর ধারায় জীবনযাপনের ব্যক্তিগত স্বাধীনতার বিষয়ে বলা হয়েছে। লিভ ইন সম্পর্কের সমর্থনে সেই ধারাই উল্লেখ করল আদালত।

    আরও পড়ুন:৩০ অক্টোবর পর্যন্ত ভারী বৃষ্টি দক্ষিণ ভারতে! কেমন থাকবে West Bengal Weather? দেখুন আবহাওয়ার পূর্বাভাস...

    এই মামলায় আদালতে যে দু’টি পিটিশন জমা পড়েছে তার একটি জমা দিয়েছেন কুশীনগরের বাসিন্দা সায়রা খাতুন ও তাঁর লিভ ইন পার্টনার। অন্যটি জমা দিয়েছেন জিনাত পারভিন ও তাঁর লিভ ইন সঙ্গী। তাঁদের অভিযোগ, পুলিশের কাছে গিয়েও সুরাহা হয়নি। স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করার পরও পুলিশের তরফে কোনও রকম পদক্ষেপ করা হয়নি।

    এই মামলা প্রসঙ্গে আদালত বেশ কড়া মন্তব্য করেছে এই মর্মে যে, পুলিশের কর্তব্য অভিযোগকারীদের রক্ষা করা। পুলিশকে ধমক দিয়ে বিচারপতিরা জানিয়েছেন, আইনের অধীনে থেকে নিজের কর্তব্য পালন করাই পুলিশের কাজ। সেই হিসেবে অভিযোগকারীদের কোনও হুমকি দেওয়া হলে সেবিষয়ে পদক্ষেপ করতে হবে পুলিশকে।

    গত মাসে রাজস্থান হাই কোর্টে লিভ ইন সংক্রান্ত একটি মামলায় আদালতের মন্তব্য ঘিরে শোরগোল পড়েছিল। আদালত জানিয়েছিল, লিভ ইন সম্পর্কের ক্ষেত্রে মহিলা যদি বিবাহিত হন তবে আর তাকে আইনের চোখে গ্রাহ্য বলা যাবে না।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: