Home /News /national /
স্ট্যালিনের কংগ্রেস-প্রেম, কেসিআর ফিরলেন খালি হাতেই, ফেডারেল ফ্রন্ট কী হবে?

স্ট্যালিনের কংগ্রেস-প্রেম, কেসিআর ফিরলেন খালি হাতেই, ফেডারেল ফ্রন্ট কী হবে?

-- ফাইল ছবি

-- ফাইল ছবি

দক্ষিণের এই দ্রাবিড় দল কিন্তু খুব একটা ইচ্ছে এখনও দেখায়নি তৃতীয় ফ্রন্টে যাওয়ার৷ যার নির্যাস, তেলেঙ্গনা রাষ্ট্রীয় সমিতির প্রধান তথা তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওকে খালি হাতেই ফিরতে হল স্ট্যালিনের সঙ্গে বৈঠকের পর৷

  • Share this:

    #হায়দরাবাদ: এম কে স্ট্যালিনের ডিএমকে-র সঙ্গে কংগ্রেসের সম্পর্ক খুবই ভালো৷ ইউপিএ জোটের অন্যতম শরিক ডিএমকে৷ প্রস্তাবিত ফেডারেল ফ্রন্টে এই ডিএমকে-কেই পেতে চাইছে ফেডারেল ফ্রন্টের ছাতার তলায় আসা দলগুলি৷ দক্ষিণের এই দ্রাবিড় দল কিন্তু খুব একটা ইচ্ছে এখনও দেখায়নি তৃতীয় ফ্রন্টে যাওয়ার৷ যার নির্যাস, তেলেঙ্গনা রাষ্ট্রীয় সমিতির প্রধান তথা তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওকে খালি হাতেই ফিরতে হল স্ট্যালিনের সঙ্গে বৈঠকের পর৷ স্ট্যালিন গোটা বিষয়টিই ঝুলিয়ে রেখেছে৷

    দেশের সব আঞ্চলিক দলগুলিকে একছাতার তলায় আনার চেষ্টা করছেন কেসিআর৷ কংগ্রেস ও বিজেপি-র বিকল্প শক্তি হিসেবে৷ সোমবার রাতে স্ট্যালিনকে নিজের বাসভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন কেসিআর৷ ডিএমকে সূত্রের খবর, মূলত ফেডারেল ফ্রন্ট নিয়েই আলোচনা হয় দুই নেতার মধ্যে৷ স্ট্যালিনকে ফেডারেল ফ্রন্টে আসার অনুরোধ করেন কেসিআর৷

    এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলা ওই বৈঠকে কেসিআর-কে স্ট্যালিন জানিয়ে দেন, ভোটের আগে থেকেই কংগ্রেসের সঙ্গে তাদের দলের জোট রয়েছে৷ এবং তিনি রাহুল গান্ধিকেই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাওয়ার কথাও ঘোষণা করেছেন৷ ডিএমকে-র একটি সূত্র News18-কে জানিয়েছেন, থালাইভার (স্ট্যালিন) উল্টে কেসিআর-কে বলেছেন, আপনরাই বরং কংগ্রেসকে সমর্থন করুন৷ যাতে কংগ্রেসের নেতৃত্বে কেন্দ্রে সরকার তৈরি হয়৷

    দিন কয়েক আগে কেরলে পিনারাই বিজয়নের সঙ্গেও দেখা করেন কেসিআর৷ আঞ্চলিক দলগুলি এক ছাতার তলায় এলে কতটা শক্তিশালী জোট তৈরি হবে, তা বোঝান৷ তা হলে কংগ্রেস বা বিজেপি-- কেউই একা সরকার গড়তে পারবে না৷

    এই পরিস্থিতিতে বিজেপি কটাক্ষ করতে ছাড়েনি৷ বিজেপি-র তামিলনাড়ুর রাজ্য সভাপতি তামিলিসাই সুন্দরাজনের তির্যক মন্তব্য, 'স্ট্যালিন এখন যেমন কংগ্রেসের সঙ্গ ছাড়তে দোনামনা করছে, তেমনই একই রকম দোটানায় ছিলেন, যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ব্রিগেডে বিরোধীদের নিয়ে সভায় তাঁকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন৷ আসলে ডিএমকে অপেক্ষা করছে, ভোটের ফলের উপর৷ গিরগিটির মতো রং বদলানো ওদের স্বভাব৷'

    আরও ভিডিও: Video : উনিশের ব্রিগেডে কী কী হল দেখে নিন এক নজরে

    First published:

    Tags: Elections 2019, Federal Front, Lok Sabha elections 2019

    পরবর্তী খবর