• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • EX AFGHAN ARMY OFFICER NOW WORKS IN A FIRSTFOOD STALL IN DELHI SB

Afghan in Delhi: জীবন-বদল! ছিলেন আফগান সেনা অফিসার, তিনিই এখন দিল্লিতে এই কাজ করছেন!

জীবন-বদল!

Afghan in Delhi: এমনই এক সময় মাস নয়েক আগে তালিবানের সঙ্গে গুলিযুদ্ধে আহত হন উমেদ। বাধ্য হন দেশ ছাড়তে। আশ্রয় নেন দিল্লিতে। কাজ নেন একটি ফার্স্টফুডের দোকানে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ছিলেন আফগানিস্তানের সেনা অফিসার। মাত্র ৯ মাসের ব্যবধানে সেই তিনিই এখন দিল্লিতে ফার্স্টফুডের স্টলে মাসিক ৯ হাজার মাইনেতে কাজ করছেন। জীবন বদল বোধহয় একেই বলে। তিনি উমেদ, এখনও বিশ্বাস করতে পারেন না জীবন এভাবে বদলে যেতে পারে। ঝটিকা আক্রমণে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করেছে তালিবান। কিন্তু এ পরিকল্পনা ছিল দীর্ঘদিনের। ধৈর্য্য ধরে, অস্ত্রের ব্যবহারে ধীরেধীরে ক্ষমতা এসেছে তালিবানের হাতে। এমনই এক সময় মাস নয়েক আগে তালিবানের সঙ্গে গুলিযুদ্ধে আহত হন উমেদ। বাধ্য হন দেশ ছাড়তে। আশ্রয় নেন দিল্লিতে। কাজ নেন একটি ফার্স্টফুডের দোকানে। সেখানেই এখন ৯ হাজার টাকা মাস মাইনেতে কাজ করছেন আফগান সেনা অফিসার।

    এদিকে, প্রায় দু'দশক আগে তালিবানি অত্যাচারে দেশ ছেড়ে আসা, ভারতে বসবাসকারী আফগানি শরণার্থীরা চাইছেন ভারতের মতো বিশ্বের অন্যান্য দেশও তাঁদের পাশে দাঁড়াক। সেই আর্জি নিয়ে দিল্লিতে কানাডা দূতাবাসের সামনে কার্যত ধর্নায় বসেছেন শতাধিক আফগান নারী-পুরুষ। পোস্টারে "আমাদের সাহায্য করুন", "তালিবানদের হাত থেকে বাঁচান", "মহিলাদের সম্মান রক্ষায় সাহায্য করুন", ইত্যাদি লিখে দূতাবাসের সামনে বসে রয়েছেন শতাধিক আফগানি মহিলা।

    দূতাবাসের সামনে শরণার্থীদের এই জমায়েত অবশ্য অস্বস্তিতে ফেলেছে দিল্লি পুলিশকে। কড়া নিরাপত্তার বলয় থাকলেও মানবিকতার খাতিরে তাদের হটিয়ে দিতে মন চাইছে না পুলিশ কর্মীদের। দূতাবাসের আধিকারিক শরণার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তবে খুব একটা আশ্বাস মেলেনি। আফগান শরণার্থীদের এই ধর্ণায় সমর্থন জানিয়ে হাজির হয়েছিলেন পেশায় দন্ত চিকিৎসক আমানউদ্দিন খান। ছোটবেলায় তালিবানদের গুলিতে মামাকে হারিয়ে বাবা-মার সঙ্গে দিল্লিতে এসে উঠেছিলেন আজকের যুবক আমানউদ্দিন। সম্প্রতি করোনায় বাবাকে হারিয়েছেন তিনি। বয়স ৩৫ বছর। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের অনিশ্চয়তার কথা ভেবে তিনি বৈবাহিক সম্পর্কেও যেতে চান না।

    Published by:Suman Biswas
    First published: