সরকারে যোগ দেওয়ার দু'দিনের মধ্যেই ৭০ হাজার কোটির দুর্নীতি মামলায় ক্লিনচিট অজিতকে

সরকারে যোগ দেওয়ার দু'দিনের মধ্যেই ৭০ হাজার কোটির দুর্নীতি মামলায় ক্লিনচিট অজিতকে
অজিত পাওয়ার

মহারাষ্ট্রের কুখ্যাত ৭০ হাজার কোটি টাকার সেচ দুর্নীতিতে অভিযুক্ত ছিলেন অজিত পাওয়ার৷ তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন জায়গায় সেচ প্রকল্প অনুমোদন ও প্রক্রিয়ায় প্রচুর বেআইনি কাজ হয়েছিল কংগ্রেস-এনসিপি জমানায়৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বিজেপি-র সঙ্গে হাত মিলিয়ে মহারাষ্ট্রে উপমুখ্যমন্ত্রী শপথ নিয়েছেন অজিত পাওয়ার৷ মাত্র ৪৮ ঘণ্টা আগের ঘটনা৷ সেচ দুর্নীতি মামলায় ক্লিনচিট পেয়ে গেলেন এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পাওয়ারের ভাইপো৷ আজ অর্থাত্‍ সোমবার অজিত পাওয়ারের বিরুদ্ধে সেচ দুর্নীতিতে ৯টি মামলায় ক্লিনচিট দিল মহারাষ্ট্র সরকার৷

মহারাষ্ট্রের কুখ্যাত ৭০ হাজার কোটি টাকার সেচ দুর্নীতিতে অভিযুক্ত ছিলেন অজিত পাওয়ার৷ তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন জায়গায় সেচ প্রকল্প অনুমোদন ও প্রক্রিয়ায় প্রচুর বেআইনি কাজ হয়েছিল কংগ্রেস-এনসিপি জমানায়৷ সেই দুর্নীতিতে অন্যতম অভিযুক্ত ছিলেন অজিত পাওয়ার৷

কংগ্রেস-এনসিপি জমানায় অজিত পাওয়ার ছিলেন সেচমন্ত্রী৷ ১৯৯৯ ও ২০১৪ সালের মধ্যে কংগ্রেস-এনসিপি জমানায় সেচ দফতরের একাধিক বার দায়িত্ব পেয়েছেন অজিত পাওয়ার৷ মহারাষ্ট্র অ্যান্টি কোরাপশন ব্যুরো-র ডিজি পরমবীর সিং-এর কথায়, 'আমরা খুব শীঘ্রই সার্টিফিকেট ইস্যু করব৷ এই মামলায় অভিযুক্ত নন অজিত পাওয়ার৷'

 

মহারাষ্ট্র সরকারের ক্লিনচিটের পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হন বিরোধীরা৷ শিবসেনা মুখপাত্র প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদির ট্যুইট, 'একেই বলে ক্ষমতার খেলা৷ এবার বোঝা গেল, কেন মাঝরাতে হাত মিলিয়েছিলেন৷ নির্লজ্জ পাওয়ার৷'

বিদর্ভ সেচ দুর্নীতির পরিমাণ ৭০ হাজার কোটি টাকা৷ এই দুর্নীতি নিয়ে গত বছর মহারাষ্ট্র অ্যান্টি-কোরাপশন ব্যুরো বলেছিল, এই কয়েক হাজার কোটি টাকার কেলেঙ্কারি অজিত পাওয়ারের দায়িত্বেই পড়ে৷

First published: 05:08:15 PM Nov 25, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर