Home /News /malda /
Malda: ফেসবুকে পরিচয়ই কাল! ফাঁদে পড়ে ১৫ লক্ষ টাকা খোয়ালেন মহিলা!

Malda: ফেসবুকে পরিচয়ই কাল! ফাঁদে পড়ে ১৫ লক্ষ টাকা খোয়ালেন মহিলা!

সাইবার ক্রাইম প্রতারণার দায়ে দিল্লি থেকে নাইজেরিয়ান এক যুবককে গ্রেফতার করল মালদহ সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ। ফেসবুকে বন্ধুত্ব করে ১৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ।

  • Share this:

    #মালদহ : সাইবার ক্রাইম প্রতারণার দায়ে দিল্লি থেকে নাইজেরিয়ান এক যুবককে গ্রেফতার করল মালদহ সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ। ফেসবুকে বন্ধুত্ব করে ১৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ। ডাক্তার পরিচয় দিয়ে মালদহের এক মহিলার সঙ্গে ফেসবুকে বন্ধুত্ব করে। ধীরে ধীরে বন্ধুত্ব বাড়াতে থাকে অভিযুক্ত। ফেসবুক পরিচয় থেকেই প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। অভিযুক্ত যুবক নিজেকে ইউকের চিকিৎসক পরিচয় দেয়। তারপর ভারতে আসার পথে দিল্লি কাস্টমসে সমস্যার কথা জানায়। সেখান থেকে ছাড়া পেতে মহিলার কাছে নগদ টাকা চেয়ে পাঠায়। কয়েক ধাপে মহিলার কাছ থেকে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। বিষয়টি জানতে পারেন মহিলা। তারপরেই মালদহ সাইবার থানায় অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে পুলিশ। বিভিন্ন সূত্র ধরে দিল্লি থেকে অভিযুক্ত কে গ্রেফতার করে পুলিশ। মালদহে নিয়ে এসে সোমবার অভিযুক্তকে আদালতে পেশ করে। ১৪ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত।পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে অভিযুক্ত যুবককের নাম বেনে ডিট। দিল্লীতে সে ঘাঁটি তৈরি করে এমন প্রতারণা চালাতো। শুধু বেন ডিট একা নয়, তাদের একটি গ্রুপ এই চক্র গোটা দেশ জুড়ে চালাচ্ছে এমনটাই দাবি পুলিশের। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্তরা মূলত স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে ভারতে আসেন। এখানে এসে এমন প্রতারণা চালায়।

     

     

    মালদহ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাউ কুমার অমিত বলেন, ফেসবুকের ১৫ লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয়। অভিযোগ পেয়ে আমরা ঘটনার তদন্তে নামে। দিল্লি থেকে নাইজেরিয়ার এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আমরা ঘটনার তদন্ত করছি। এই ঘটনার পেছনে আরো কেউ জড়িত রয়েছে কিনা তা তদন্ত করা হচ্ছে। অভিযুক্তকে ১৪ দিনের পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

    আরও পড়ুনঃ হারিয়ে যাচ্ছে মালদহের প্রথম নীলকুঠি! সংস্কার ও সংরক্ষণের দাবি

     

     

    মালদা জেলার সাইবার ক্রাইম থানা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০২১ সালের ১৪ ডিসেম্বর একটি প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয়। মোথাবাড়ি থানা এলাকার এক মহিলা অভিযোগ দায়ের করেন। মহিলা অভিযোগ পত্রে জানান, ফেসবুক থেকে পরিচয় হয়। অভিযুক্ত যুবক নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দেয়। ভারতে আসার সময় দিল্লিতে কাস্টমসে আটকে পড়ে। তারপর তার কাছে টাকা চেয়ে পাঠায়।

    আরও পড়ুনঃ ড্রাগন ফল চাষে জেলায় ব্যাপক সাফল্য!

     

     

    তারপর থেকে দুই মাসে একাধিক একাউন্টে কয়েক দফায় প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা দেয়।প্রতারণা স্বীকার হয়েছেন বুঝতে পেরেই অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার তদন্তে নেমে দিল্লি গিয়ে এক ব্যাক্তিকে প্রথমে পুলিশ আটক করে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে মূল অভিযুক্তকে আগষ্ট গ্রেফতার করে। আগষ্ট তাকে মালদহে নিয়ে আসে। সোমবার মালদহ জেলা আদালতে পেশ করে পুলিশি হেফাজতে নেয়।

     

     

    Harashit Singha

    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Malda, North Bengal

    পরবর্তী খবর