Home /News /life-style /

Viral: নিজেকে দেখতে হবে হুবহু রিকি মার্টিনের মতো, ৩০ বার সার্জারি করালেন যুবক

Viral: নিজেকে দেখতে হবে হুবহু রিকি মার্টিনের মতো, ৩০ বার সার্জারি করালেন যুবক

পছন্দের গায়ক রিকি মার্টিনের (Ricky Martin) মতো হওয়ার জন্য, মুখে ৩০ বার অস্ত্রোপচার করিয়ে নিজের চেহারা বদলাতে চেয়েছেন আর্জেন্টিনার এক ব্যক্তি।

  • Share this:

#বুয়েনো আইরেস: আমরা প্রায় সকলেই কোনও-না-কোনও সেলিব্রিটির ভক্ত। তাঁদের মতো করে সাজগোজ করতে চাই, অথবা তাঁদের মতো কাজও করতে চাই। মোদ্দা কথা হল, বিশ্বের প্রায় প্রতিটা মানুষই নিজের পছন্দের সেলিব্রিটিকে অনুকরণ করে থাকে। কিন্তু যদি কেউ ভেবে বসেন যে, আমাকে আমার পছন্দের সেলিব্রিটির মতোই দেখতে হবে, তা হলে কিন্তু মুশকিল!

আরও পড়ুন: প্রিয় মানুষ সারাক্ষণ খিটখিট করছে? 'শান্ত' করার সহজ টিপস জানুন

সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা সামনে এসেছে। পছন্দের গায়ক রিকি মার্টিনের (Ricky Martin) মতো হওয়ার জন্য মুখে ৩০ বার অস্ত্রোপচার করিয়ে নিজের চেহারা বদলাতে চেয়েছেন আর্জেন্টিনার এক ব্যক্তি। সূত্রের খবর, আর্জেন্টিনার রাজধানী শহর বুয়েনো আইরেসের বাসিন্দা ৩৩ বছর বয়সি ফ্রান্সিসকো মারিয়ানো জেভিয়ার ইবানেজ (Francisco Mariano Javier Ibanez)। যাঁর পছন্দের গায়ক রিকি মার্টিন। নব্বইয়ের দশকে যাঁর গানে মেতে উঠেছিল গোটা বিশ্বই। বিশ্ববন্দিত এই তারকাকে পাগলের মতো পছন্দ করতেন ফ্রান্সিসকো। এতটাই পছন্দ করতেন যে, গায়ক রিকি মার্টিনের মতো নিজের মুখের আদলের রূপ দিতে মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: ব্রেকফাস্ট হোক পুষ্টিতে ভরা, বাড়িতেই সহজে বানিয়ে নিন সকালের পাউরুটি

আসলে ফ্রান্সিসকোকে অনেকেই বলতেন, তাঁকে না কি জনপ্রিয় গায়ক রিকি মার্টিনের মতোই দেখতে। আর সেখান থেকেই তাঁর মাথায় প্লাস্টিক সার্জারির ভূত চেপে বসে। সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, মাত্র ১২ বছর বয়সেই প্রথম এই ভাবনা মাথায় আসে ফ্রান্সিসকোর। কারণ সংবাদমাধ্যমের কাছে তিনি জানিয়েছেন, ছোটবেলায় বাবা খুবই মারধর করতেন। সেই সময় থেকে তাঁর মধ্যে একটা আতঙ্ক কাজ করত। শুধু মনে হত, বাবা যদি ছুরির কোপে মেরে ফেলেন! তাই ফ্রান্সিসকো প্রচুর পরিমাণে খাওয়াদাওয়া শুরু করে দেন। কারণ তাঁর মনে হয়েছিল যে, শরীরে মেদ থাকলে ছুরি সহজে দেহের মধ্যে ঢুকতে পারবে না। তার পর কেউ তাঁকে রিকি মার্টিনের সঙ্গে মিলের কথা জানান। সেই সময় থেকে ধীরে ধীরে ফ্রান্সিসকোর মাথায় এই ভূত চেপে বসে।

ফ্রান্সিসকো আরও জানান যে, রিকি মার্টিনের মতো চেহারা পাওয়ার জন্য তিনি মোট ৩০ বার অস্ত্রোপচার করিয়েছেন। আর এর জন্য তাঁর খরচ হয়েছে সাত লক্ষ টাকারও বেশি।

তবে এত কিছুর পরে অবশ্য নিজের ভুলটা বুঝতে পেরেছেন ফ্রান্সিসকো। অস্ত্রোপচারের সময়ে তাঁর মানসিক অবস্থা প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, “যখন অস্ত্রোপচার শুরু হয়েছিল, তখনই বুঝতে পেরে গিয়েছিলাম যে, পরিস্থিতি আমার নাগালের বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছে।” তিনি এ-ও জানান যে, অস্ত্রোপচারের সাত বছর পরেও তাঁর শরীর নতুন পরিবর্তনগুলির সঙ্গে খাপ খাইয়ে উঠতে পারছে না। সব শেষে ফ্রান্সিসকো স্বীকার করে নিয়েছেন যে, “আমি মনে করি যে, আমাদের জীবনের একটা সময়ে আসে, যখন আমরা কোনও কিছুর উপর আসক্ত হয়ে পড়ি। আর এই আসক্তি এতটাই বেড়ে যায় যে, সেটা খারাপ দিকে চলে যেতে থাকে এবং ক্ষতিকর হয়ে ওঠে।”

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Ricky Martin

পরবর্তী খবর