Home /News /life-style /
বাড়ির দশভুজাদের সুস্থতা নিয়ে চিন্তা? প্রতিদিন খান এই ৪ ধরনের চা, রোগ দূরে পালাবে

বাড়ির দশভুজাদের সুস্থতা নিয়ে চিন্তা? প্রতিদিন খান এই ৪ ধরনের চা, রোগ দূরে পালাবে

বাড়ির দশভূজাদের সুস্থতা নিয়ে চিন্তা? প্রতিদিন খান এই ৪ ধরনের চা, রোগ দূরে পালাবে

বাড়ির দশভূজাদের সুস্থতা নিয়ে চিন্তা? প্রতিদিন খান এই ৪ ধরনের চা, রোগ দূরে পালাবে

Teas for women: কয়েক রকম চায়ের হদিশ দেওয়া হল, যেগুলো পান করলে শরীর মন তরতাজা হয়ে উঠবে তাই নয়, সামগ্রিক স্বাস্থ্যেরও উন্নতি হবে।

  • Share this:

#কলকাতা: দশ হাতে এই সংসার সামলায় মেয়েরাই। এই নিয়ে কোনও দ্বিমত থাকতে পারে না। রান্নাবান্না, বাচ্চাকে সামলানো, পরিবারের গুরুজনদের দেখভাল থেকে নিজের কর্মক্ষেত্র, দশভূজা না হয়ে উপায় কী! সব দিক একা হাতে সামলাতে গিয়ে মেয়েদের শারীরিক এবং মানসিক স্বাস্থ্যের উপর যে ভয়ানক চাপ পড়ে সেটা বলে দিতে হয় না। তাই তাঁদের সুস্থ থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ। নাহলে সংসার অচল। এখানে বাড়ির মেয়েদের জন্য বেশ কয়েক রকম চায়ের হদিশ দেওয়া হল, যেগুলো পান করলে শরীর মন তরতাজা হয়ে উঠবে তাই নয়, সামগ্রিক স্বাস্থ্যেরও উন্নতি হবে (Teas for women)।

ক্যামোমাইল চা: ঋতুস্রাবের আগে শরীরে বেশ কিছু পরিবর্তন আসে। প্রতিদিন ক্যামোমাইল চা পানে গা-হাত ম্যাজম্যাজ করা, মাথাব্যথা, মেজাজ পরিবর্তন ইত্যাদি কমাতে সাহায্য করে। শুধু তাই নয়, ক্যামোমাইল চা স্নায়ু শিথিল করে, প্রদাহ কমায়, ইনসুলিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং শরীরকে ফোলাভাব থেকে রক্ষা করে।

আরও পড়ুন-গরম কমায়, ফিগার ভাল রাখে সুইমিং! তবে জলে নামার আগে-পরে এই ডায়েট মানলে লাভ দ্বিগুণ

আদা চা: ক্লান্তি এবং জ্বালাভাব কমাতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে আদা চা। এমনিতেই বিভিন্ন ওষুধ এবং ঘরোয়া টোটকায় আদার বহুল ব্যবহার প্রচলিত। দুপুরে এবং রাতে খাবারের পর এক কুচি আদা খেলে হজম ভাল হয়, ওজন কমাতেও সাহায্য করে। পিরিয়ডের সময় এই চা পান করলে ব্যথা এবং প্রদাহ কমে যায়। গলা ব্যথা, জ্বরে তো বটেই, গর্ভাবস্থায় বমি বমি ভাব এবং মাথাব্যথার জন্যেও এটা সমান কার্যকর। চুল পড়ার সমস্যায় ভুগছেন এমন মহিলারাও আদা চা পান করতে পারেন। কারণ এটা মাথার ত্বকে রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়।

পুদিনা চা: পুদিনা চা মহিলাদের জন্য দারুণ কার্যকরী, কারণ এতে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ক্র্যাম্প কমায়, ব্যথা নিরাময় করে, স্নায়ুতন্ত্র সতেজ রাখে এবং পেশি সংকোচন প্রতিরোধ করে। তা ছাড়া অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ভাইরাল বৈশিষ্ট্যগুলির কারণে এই চা সংক্রমণ এবং অ্যালার্জির হাত থেকেই রক্ষা করে।

আরও পড়ুন-লাল পেঁয়াজের তেলের ছোঁয়ায় চুল হবে তরতাজা ও জেল্লাদার, রইল তেল তৈরির সহজ প্রক্রিয়াও

ব্ল্যাক টি: এই চায়ে সর্বোচ্চ পরিমাণে ক্যাফিন থাকে, যা তাৎক্ষণিক ভাবে এনার্জি লেভেলকে বাড়িয়ে দেয়। চিনি ছাড়া ব্ল্যাক টি পান উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে, বিপাক ক্রিয়াকে উন্নত করতে এবং পেটের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। কিছু ক্ষেত্রে এটি সকালের অসুস্থতা এবং বমি বমি ভাব কমাতেও সহায়ক। গরমের সময় ঠান্ডা ব্ল্যাক টি পান করলে ডায়রিয়া সেরে যায়।

গ্রিন টি: এতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ক্যাটেচিন রয়েছে। তাই দিনে ২ বার গ্রিন টি পান করলে তা অকালবার্ধক্য প্রতিরোধ করে। গ্রিন টি শরীরকে ডিটক্সিফাই করতে সাহায্য করে, স্ট্রেস, উদ্বেগ কমায় এবং ক্ষতিগ্রস্ত কোষগুলিকে নিরাময় করে। নিয়নিত গ্রিন টি পান করলে অন্ত্রের স্বাস্থ্যের উন্নতি হয়, ফলে ওজন কমাতে সাহায্য করে।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Health drink, Tea

পরবর্তী খবর