• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • Viral: Russian dog Monika : চার পা-ই কেটে দিয়েছিল কেউ, কৃত্রিম অঙ্গ পেয়ে নতুন জীবনে ছোট্ট মনিকা

Viral: Russian dog Monika : চার পা-ই কেটে দিয়েছিল কেউ, কৃত্রিম অঙ্গ পেয়ে নতুন জীবনে ছোট্ট মনিকা

মনিকা ( Monika)

মনিকা ( Monika)

Viral: Russian dog Monika : কেউ জানেন না তার এই অবস্থা কী করে হয়েছিল৷ তবে অনুমান, পৈশাচিক নৃসংসতায় কেউ তার চারটে পা-ই কেটে নিয়েছিল৷

  • Share this:

    রাশিয়ার কুকুর মনিকা (Russian dog Monika) তৈরি তার নতুন জীবনের জন্য৷ অর্থবহুল এবং জটিল অস্ত্রোপচারের পর তার শরীরে এখন বসানো হয়েছে দু’ জোড়া কৃত্রিম পা (prosthetic titanium paws )৷ অস্ত্রোপচারের দু’ সপ্তাহ পর এখনও বেশ ক্লান্ত এবং দুর্বল ৷ তবে চার পায়ে উঠে দাঁড়াতে পারছে দিব্যি (Russian dog Monika is getting back to a new life )৷

    দু’ থেকে চার বছর বয়সি মনিকাকে সঙ্কটজনক অবস্থায় পাওয়া গিয়েছিল দক্ষিণ রাশিয়ার ক্রাসনোডর শহরের কাছে এক জঙ্গলে৷ তার চারটি পা-ই ছিল না শরীরে৷ কেউ জানেন না তার এই অবস্থা কী করে হয়েছিল৷ তবে অনুমান, পৈশাচিক নৃসংসতায় কেউ তার চারটে পা-ই কেটে নিয়েছিল৷

    আরও পড়ুন : গভীর জঙ্গলে দু’টি জিপের মাঝে ৬ টি বাঘ একসঙ্গে! রণদীপ হুডার পোস্ট করা ভিডিও দেখে শিহরিত সোশ্যাল মিডিয়া

    মনিকা অবস্থা হতেই পারত আর পাঁচটা অসহায় পথকুকুরের মতো৷ তিল তিল করে ঘনিয়ে আসত তার মৃত্যু৷ কিন্তু হল না আলা লিওনকিনার দৌলতে৷ ক্রাসনোডর শহরের বাসিন্দা আলা এক জন পশুপ্রেমী৷ তিনি মনিকাকে উদ্ধার করে নিয়ে যান নিজের বাড়িতে৷ তার পর এক বছর ধরে আলা এবং তাঁর এক বন্ধু দেখভাল করেন মনিকার৷

    আরও পড়ুন : তরুণের হাতেই বিস্ফোরণ স্মার্টফোনে! জ্বলে উঠল দাউদাউ আগুন, দেখুন রোমহর্ষক ভিডিও

    এই অবস্থায় আলা জানতে পারেন সের্গেই গোর্শকোভের কথা৷ সাইবেরিয়া প্রদেশের নোভোসিবির্স্ক শহরের বাসিন্দা সের্গেই একজন পশুচিকিৎসক৷ প্রায় ৪ হাজার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে মনিকাকে নিয়ে আলা পৌঁছন সের্গেইয়ের কাছে৷ বিমানে আলাপ পাশেই বসে ছিল আহত মনিকা৷ তার পর সের্গেইয়ের তত্বাবধানে শুরু হয় দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসা প্রক্রিয়া ও জটিল অস্ত্রোপচারের প্রস্তুতি৷

    আরও পড়ুন : আকাশ থেকে নেমে এল বিশালাকার সাপ ! আতঙ্কে জনতা, ভাইরাল ভিডিও শিহরণ জাগাবে

    সের্গেই জানান, তিনি এর আগে প্রায় ৩০ টি বিড়ালের ক্ষেত্রে কৃত্রিম অঙ্গ প্রতিস্থাপন করেছেন৷ কিন্তু এই প্রথম কোনও কুকুরের দেহে চারটি কৃত্রিম পা যুক্ত করলেন৷ তাঁর কথায়, মনিকার সুস্থ হয়ে ওঠার পিছনে ভাগ্য এবং অভিজ্ঞতা, দুই-ই কাজ করেছে৷

    মনিকার চিকিৎসা ও অস্ত্রোপচারের পিছনে বিপুল অঙ্কের অর্থ ব্যয় হয়েছে৷ তার বড় অংশই এসেছে ক্রাউড ফান্ডিং থেকে৷ এমনকি, কৃত্রিম অঙ্গ টাইটানিয়াম লেগ-এর খরচও যোগান দিয়েছে ক্রাউড ফান্ডিং৷ চিকিৎসক সের্গেই জানিয়েছেন, মনিকার শরীরে হাড়ের অংশ বৃদ্ধি পাবে৷ তার পর সে কৃত্রিম পায়ের সঙ্গে অভ্যস্ত হয়ে যাবে৷ নিজের পায়ে হেঁটেই ফিরতে পারবে বাড়িতে৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: