Home /News /life-style /
Common myths about men: ছেলেরাও কাঁদতে পারে, আবেগপ্রবণ হয়, তাঁদেরও মানসিক সাহায্য প্রয়োজন

Common myths about men: ছেলেরাও কাঁদতে পারে, আবেগপ্রবণ হয়, তাঁদেরও মানসিক সাহায্য প্রয়োজন

Common myths about men

Common myths about men

মেয়েদের মতো মিথের কুয়াশা ঘিরে থাকে পুরুষদেরও৷ সবার আগে ভাঙা দরকার সেগুলি (Common myths about men)

  • Share this:

    ‘মেয়েদের মতো কাঁদিস না’-কথাটা শুনতে হয় ছেলেদের ছেলেবেলায়৷ কিন্তু ‘ছিঁচকাঁদুনে’ বিশেষণ শুধু মেয়েদের জন্য নয়৷ এই সহজ সত্যি এখনও মানতে নিমরাজি সমাজ (men also cry)৷ উদ্বেগ, দুশ্চিন্তা, হতাশার শিকার হয় নারীপুরুষ নির্বিশেষে, মানুষমাত্রই৷ নারী, পুরুষ, মহিলা, প্রাপ্তবয়স্ক, শিশু-যে কোনও বয়সে, যে কোনও লিঙ্গ পরিচয়ের উপর নেমে আসতে পারে মানসিক সমস্যার ছায়া৷ কিন্তু প্রন্মের পর প্রজন্ম ধরে গ্রন্থিত ‘শিক্ষা’ পুরুষদের আটকে রাখে মনের আবেগ প্রকাশ করা থেকে৷ কোভিডকালে বিশ্ব জুড়ে মানসিক স্বাস্থ্য অনেক বেশি চর্চিত৷ পুরুষরাও অকপটে স্বীকার করছেন, তাঁরাও কাঁদেন৷ বা চোখের জল ফেলতে তাঁদেরও ইচ্ছে করে৷

    মেয়েদের মতো মিথের কুয়াশা ঘিরে থাকে পুরুষদেরও৷ সবার আগে ভাঙা দরকার সেগুলি (Common myths about men)-

    পুরুষমানুষ কখনও কাঁদে না-

    শেখানো হয় ছেলেদের আশৈশব৷ সত্যি ছবিটা বেশ আলাদা৷ কাঁদলে  মনের ভার লাঘব হয়৷ যখন ছেলেরা না কেঁদে আবেগ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে যান, তখন ভিতরে ভিতরে অধৈর্য হয়ে পড়েন৷ কিন্তু তার পরিবর্তে প্রয়োজন হল মনের অনুভূতি শেয়ার করা এবং উপযুক্ত সময়ে পেশাদারের সাহায্য নেওয়া৷

    আরও পড়ুন : অনেক দিন পর্যন্ত ধরে রাখতে চান মশলাপাতির স্বাদ-বর্ণ-গন্ধ? রাখুন এভাবে

    পুরুষমানুষ আবেগপ্রবণ নয়-

    কথাটা যেন সদর্থক-এই ধারণা শুধু মাথায় নয়, পারলে ছেলেদের অস্থিমজ্জায় ঢুকিয়ে দেওয়া হয়৷ কিন্তু প্রকৃতির সৃ্ষ্টি হিসেবে পুরুষও আবেগপ্রবণ হতেই পারেন৷ এবং আবেগপ্রবণ হওয়া কোনও দুর্বলতার লক্ষণ নয়৷ মনোবিদ এবং চিকিৎসকরা মনে করেন, আবেগপ্রবণ হয়ে মনের ভাব প্রকাশ করে ফেলা একজন পুরুষের পক্ষে খুবই স্বাভাবিক৷

    আরও পড়ুন : অর্শের সমস্যা নিবারণ থেকে হৃদযন্ত্রের সুস্থতা, কালো তিলেই লুকিয়ে ভালো থাকার আলো

    পুরুষমানুষের মানসিক সমর্থন অপ্রয়োজনীয়-

    এই ভুল ধারণাকেও সাধারণ বিশ্বাস তৈরি করার চেষ্টা বহুদিনের৷ কিন্তু আমরা সকলেই জানি পুরুষরাও ‘মানুষ’৷ তাঁদেরও প্রয়োজন মানসিক সমর্থন৷

    আরও পড়ুন : ঘরোয়া এই খাবারেই শীতকালে কমবে গাঁটের ব্যথা

    পুরুষমানুষ বেশি রাগী-

    শব্দগুলিও ছেলেদের মনের মধ্যে গেঁথে দেওয়াই নিয়ম এই সমাজের৷ মানুষের স্বভাবের স্বাভাবিক অঙ্গ হল রাগ বা ক্রোধ৷ মানুষের লিঙ্গের সঙ্গে এর কোনও সম্পর্ক নেই৷ যদি কেউ মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হন এবং সেই মনের ছবি যদি প্রকাশ করতে না পারেন, একটা সীমা অবধি লিঙ্গপরিচয় নির্বিশেষে রাগ আসতেই পারে৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: Men Psychology

    পরবর্তী খবর