Home /News /life-style /
Lip Care in Winter: শীতেও মিলবে সুন্দর গোলাপি ঠোঁট, ঘরোয়া টোটকাতেই লুকিয়ে সমাধান

Lip Care in Winter: শীতেও মিলবে সুন্দর গোলাপি ঠোঁট, ঘরোয়া টোটকাতেই লুকিয়ে সমাধান

Lip Care in Winter

Lip Care in Winter

কোনও রকম প্রসাধনী ছাড়াই স্বাভাবিক সুন্দর গোলাপি ঠোঁট মিলবে। (Lip Care in Winter)

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: আজকাল সেলফির যুগ। পাউট করে ছবি তোলাই ফ্যাশন। সে জন্য চাই টুকটুকে সুন্দর গোলাপি ঠোঁট। কিন্তু শীতকালে ত্বকের মতো ঠোঁটেরও দফারফা অবস্থা। ফেটেফুটে একশা। তাহলে কি এই শীতে সেলফি তোলা হবে না? অবশ্যই হবে। লিপস্টিক বা কোনও রকম প্রসাধনী ছাড়াই স্বাভাবিক সুন্দর গোলাপি ঠোঁট মিলবে। সে জন্য মেনে চলতে হবে কয়েকটা টিপস।

শীতে এমনিতেই জল কম খাওয়া হয়। তার সঙ্গে আবহাওয়ায় থাকে আর্দ্রতার অভাব। এই দুইয়ের ফলে ঠোঁট শুকিয়ে যায়। আর ঠোঁটের রুক্ষতা বেড়ে গিয়ে একসময় ঠোঁট ফাটতে শুরু করে।

এক্সফোলিয়েশন

রতি ২৭ দিন অন্তর আমাদের ত্বক নতুন জীবন পায়। অর্থাৎ প্রতি ২৭ দিন পরপর ত্বকের উপরের মৃত কোষ উঠে গিয়ে সেখানে জন্ম নেয় নতুন কোষ। কিন্তু এই মৃত কোষ ত্বকের সঙ্গেই আলগাভাবে লেগে থাকে, ফলে ত্বক বিবর্ণ ও নিষ্প্রাণ দেখায়। নিয়মিত এক্সফোলিয়েশনের মাধ্যমে ত্বকের মৃত কোষ তুলে ফেলতে হয়। ঠোঁট থেকে মৃত কোষ আর চামড়া তুলে ফেলতে পারলে ঠোঁটে আর্দ্রতা ধরে রাখা আরও সহজ হয়।

আরও পড়ুন: দুই কুসুমযুক্ত ডিম খাওয়া কি স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো? জানুন বিশেষজ্ঞদের মত

বাজারে নানাধরনের লিপস্ক্রাব কিনতে পাওয়া যায় ঠিকই, কিন্তু প্রাকৃতিক জিনিসের কোনও বিকল্প নেই বিশেষ করে তা যদি বাড়িতে নিজের হাতে বানানো হয়। তাতে কেমিক্যালের ক্ষতিকর প্রভাব যেমন এড়ানো সম্ভব, তেমনি খরচের দিকটাও নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। তবে এক্সফোলিয়েশন শুরুর আগে ঠোঁট ভালো ভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে। এখানে কয়েকটি প্রাকৃতিক উপাদানের হদিশ দেওয়া হল, যা অবিশ্বাস্য ফলাফল দেবে। ১। গ্রাউন্ড ওটস, চিনি, মধু এবং উদ্ভিজ্জ তেল। ২। চিনি, নারকেল তেল, দারুচিনি, এবং মধু। ৩। কমলার খোসার গুঁড়ো এবং বাদাম তেল। ৪। নারকেল তেল, মধু এবং হালকা গরম জল। ৫। গ্রাউন্ড কফি, চিনি, মধু, এবং বাদাম তেল। ৬। লেবুর রস, পেট্রোলিয়াম জেলি এবং গ্রাউন্ড চিনি।

এই উপাদানগুলি সস্তা এবং ভিটামিন ও খনিজ সমৃদ্ধ। এগুলি কেবল ঠোঁটকে প্রয়োজনীয় আর্দ্রতা এবং পুষ্টি সরবরাহ করবে তাই নয়, অ্যান্টিসেপটিক হিসেবেও কাজ করবে।

আরও পড়ুন: অকালেই বুড়িয়ে যাচ্ছেন? তারুণ্য ধরে রাখতে যা জরুরি...

লিপ মাস্ক

স্ক্রাবিংয়ের পর ঠোঁটে লাগাতে হবে লিপ মাস্ক। এটা লিপ বামের থেকেও বেশি কার্যকরী ও সাশ্রয়ীও। ঠোঁটে ১০-১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখলেই হবে। ১। মধু, দই, এবং জলপাই তেল। ২। মধু এবং লেবুর রস। ৩। নারকেল তেল। ৪। খাঁটি বাদাম তেল। এই উপাদানগুলো ঠোঁটের ত্বকে পুষ্টি জোগাবে, করবে নরম ও মসৃণ। ঠোঁটে স্বাভাবিক রং এবং আভা বজায় রাখতে চাইলে ব্যবহার করতে হবে ১। গোলাপের পাপড়ি এবং দুধ। ২। বিটরুটের রস এবং মধু। ৩। ম্যাশড স্ট্রবেরি, বাদাম তেল এবং মধু। প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি এবং অ্যান্টিবায়োটিক বৈশিষ্ট্যে পরিপূর্ণ।

ময়েশ্চারাইজার

কৃত্রিমভাবে তৈরি লিপ বামের বদলে ঘরে তৈরি লিপ বাম ঠোঁটকে অনেক বেশি তরতাজা রাখবে। এর জন্য দরকার এক টুকরো বিট রুট এবং ঘি। বিটে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। যা ঠোঁটকে তাজা রাখবে। আর ঘি আর্দ্রতা পূরণ করবে।

তৈরির পদ্ধতি: আধ কাপ বিটের জুসে ১ থেকে ২ চা চামচ ঘি মেশাতে হবে। তারপর মিশ্রণটা শক্ত হওয়া পর্যন্ত থাকুক ফ্রিজে। শক্ত হয়ে গেলে বামের মতো ব্যবহার করা যাবে।

Published by:Raima Chakraborty
First published:

Tags: Lips, Winter care

পরবর্তী খবর