• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • Health Benefits of Bay Leaves : হৃদরোগ ও মধুমেহ থেকে দূরে থাকতে চান? রান্নায় তেজপাতা দিতে ভুলবেন না

Health Benefits of Bay Leaves : হৃদরোগ ও মধুমেহ থেকে দূরে থাকতে চান? রান্নায় তেজপাতা দিতে ভুলবেন না

তেজপাতা রান্নায় দেওয়ার ফলে একাধিক খাদ্যগুণ যোগ হয় আমাদের শরীরে (health benefits of bay leaves)

তেজপাতা রান্নায় দেওয়ার ফলে একাধিক খাদ্যগুণ যোগ হয় আমাদের শরীরে (health benefits of bay leaves)

সরাসরি না খেলেও তেজপাতা রান্নায় দেওয়ার ফলে একাধিক খাদ্যগুণ যোগ হয় আমাদের শরীরে (health benefits of bay leaves)

  • Share this:

    দোকান থেকে কিনে আনি, রান্নায় দিই, কিন্তু শেষ পর্যন্ত খাই না-এই ধাঁধাঁর উত্তর তেজপাতা (Bay Leaves )৷ সরাসরি না খেলেও তেজপাতা রান্নায় দেওয়ার ফলে একাধিক খাদ্যগুণ যোগ হয় আমাদের শরীরে (health benefits of bay leaves)৷ মূলত সুবাসের জন্যই বিখ্যাত ভারতীয় রান্নার অন্যতম অঙ্গ এই মশলাপাতা৷ কিন্তু কেবল সুন্দর গন্ধই নয়৷ তেজপাতার গুণও অনস্বীকার্য৷

    আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে তেজপাতার ওষধি গুণ সমাদৃত৷ তেজপাতায় আছে ভিটামিন এ, সি, ফলিক অ্যাসিড এবং প্রয়োজনীয় প্রচুর খনিজ৷ ফলে পুষ্টিমূল্যে এই পাতা জুড়িহীন৷ যে কোনও রান্নায় তেজপাতা দিলে একলাফে তার গুণাগুণ বেড়ে যায়৷ যোগ হয় বাড়তি স্বাদ ও গন্ধও৷ আসুন, দেখে নিই তেজপাতার কিছু গুরুত্বপূর্ণ কিন্তু অজানা গুণ৷

    আরও পড়ুন : চাটনি হোক বা আচার, বহু জটিল অসুখ দূর রাখতে শীতের আহারে অবশ্যই রাখুন জলপাই

    আমাদের শরীরের পরিপাক ক্রিয়ার উপর তেজপাতার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে৷ শরীরে টক্সিসিটি কমায়৷ তাছাড়া শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ প্রত্যঙ্গ যাতে ভালভাব কাজ করতে পারে, সেদিকও সুনিশ্চিত করে৷ তেজপাতায় যে জৈব যৌগ আছে, তার প্রভাবে পেটের গণ্ডগোল এবং ইরিটেবল বাওয়েল সিন্ড্রোম বা IBS-এর উপশম হয়৷ কিছু জটিল প্রোটিন শরীরে চট করে হজম হতে চায় না৷ সেক্ষেত্রে বড় ভূমিকা পালন করে তেজপাতা৷ এই পাতায় থাকা উৎসেচকগুলি পরিপাক ক্রিয়াকে মজবুত করে৷

    আরও পড়ুন : ত্বকের রুক্ষতাকে ফুৎকারে উড়িয়ে উপভোগ করুন শীত

    তেজপাতায় আছে ক্যাফেইক অ্যাসিড এবং রাটিন৷ এই উপাদানগুলির ফলে আমাদের হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্য ভাল থাকে৷ এই দুই উপাদান আমাদের হার্টের ক্যাপিলারি ওয়াল মজবুত করে৷ এলডিএল বা খারাপ কোলেস্টেরল কমিয়ে কার্ডিওভাসক্যুলার সিস্টেম ঠিক রাখে৷

    আরও পড়ুন : সহজ এই উপায়গুলিতে শীতেও চুল থাকে মোলায়েম

    গবেষণায় দাবি, প্রতিদিন ডায়েটে ১ থেকে ৩ গ্রাম তেজপাতা থাকলে রক্তে শর্করা, কোলেস্টেরল এবং ট্রাইগ্লিসারাইডের পরিমাণ কম রাখে৷ ইনসুলিন যাতে ঠিকমতো কাজ করে, সেদিকেও বড় ভূমিকা পালন করে তেজপাতা৷ ফলে মধুমেহ রোগীদের ক্ষেত্রে সেটি আশীর্বাদস্বরূপ৷

    মানসিক উদ্বেগ ও ডিপ্রেশনের মোকাবিলাতেও তেজপাতা কার্যকর৷ আমাদের শরীরের স্ট্রেস হরমোনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে তেজপাতার লিনালুল৷ তাছাড়া এই পাতার বিভিন্ন উপাদান ডিপ্রেশনের তীব্রতাও প্রশমিত করে৷

    তেজপাতায় আছে অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান৷ তাছাড়া তেজপাতার পার্থেনোলাইড উপাদানের উপস্থিতিতে বাতের ব্যথা সমস্যাতেও এই মশলা কার্যকর৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: