Home /News /kolkata /
West Bengal Municipal Election 2022: "তৃণমূলকে ভোট না দেওয়ার প্রচার করেছেন সাংবাদিকদের একাংশ" দাবি কুণাল ঘোষের

West Bengal Municipal Election 2022: "তৃণমূলকে ভোট না দেওয়ার প্রচার করেছেন সাংবাদিকদের একাংশ" দাবি কুণাল ঘোষের

Kunal Ghosh: রক্তারক্তি, ভাঙচুর এবং সাংবাদিক নিগ্রহের ঘটনায় রাজনৈতিক মহলের একাংশের মত, এমন হিংসাত্মক পুরভোট গণতন্ত্রের লজ্জা।

  • Share this:

#কলকাতা: রবিবার সকাল থেকেই রাজ্যের নানান অংশ থেকেই উঠে এসেছে পুরভোটের (West Bengal Municipal Election 2022) হিংসার দৃশ্য। রক্তারক্তি, ভাঙচুর এবং সাংবাদিক নিগ্রহের ঘটনায় রাজনৈতিক মহলের একাংশের মত, এমন হিংসাত্মক পুরভোট গণতন্ত্রের লজ্জা। যদিও রাজ্যজুড়ে যে পুরভোট (West Bengal Municipal Election 2022) হচ্ছে তাতে বিক্ষিপ্ত কিছু অশান্তির ঘটনা ঘটেছে বলেই মনে করছেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh)। নির্দিষ্ট কিছু ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে বলেই দাবি তাঁর। কুণাল ঘোষ এদিন জানিয়েছেন, যেখানে সমস্যা হয়েছে সেখানে প্রশাসন ব্যবস্থা নিয়েছে এবং নিরপেক্ষ ভূমিকাই পালন করেছে।

কুণাল ঘোষের দাবি যে দল পুরভোটে লড়ার জন্য যোগ্য প্রার্থী পাননি বা এজেন্ট পাননি তারাই এইসব হিংসাত্মক কর্মকাণ্ড ঘটিয়েছেন। “নাটক করে দৃষ্টি ঘোরাচ্ছেন” বলেও দাবি করেছেন কুণাল। পরিসংখ্যান দিয়ে তিনি জানান, “হিংসার ঘটনা এবং বুথ দেখলে বোঝা যাবে মোট ১১২৮০ বুথের মধ্যে শতাংশের হিসাবে ০.৩% গণ্ডগোল হয়েছে।”

আরও পড়ুন- জনপ্রিয় ভারতীয় গানে নিজেদের ভিডিও করুক ভারতের যুবরা! মন কি বাতে আর্জি মোদির

পুরভোটে (West Bengal Municipal Election 2022) সাংবাদিকদের ওপর আক্রমণের ঘটনাকে অনভিপ্রেত বলে মনে করেছেন কুণাল। তার পরেও নিশানাতেই রেখেছেন সাংবাদিকদের। কুণাল বলেন, “সাংবাদিকদের একাংশ ভোটের সময় তৃণমূলকে ভোট দেবেন না বলে প্রচার করেছেন। এটা চাপের রাজনীতি, ব্ল্যাকমেলিং, সরকার ও শাসক দলকে প্ররোচনা দেওয়া। সাংবাদিকদের সঙ্গে আমাদের দলের কোনও সম্পর্ক নেই। তাঁদের ওপর আক্রমণ আমরা সমর্থন করিনা। ঘটনায় তৃণমূলের কেউ জড়িত থাকলে, দল খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেবে।”

অন্যদিকে বিরোধীদের ভূমিকাকে তাচ্ছিল্য করে কুণালের বক্তব্য, বিজেপি-সিপিএম-কংগ্রেস দেউলিয়া হয়ে গিয়েছে। বিজেপির সঙ্গে আর মানুষের সমর্থন নেই বলে দাবি করে তিনি বলেন, “কে বিজেপি! কোথায় বিজেপি! অর্জুন সিং কাকে ভোট দেবেন? প্রার্থীই নেই। তাই হম্বিতম্বি করছেন তিনি। বিজেপির পাশে মানুষ নেই৷ তাই তারা ইভিএম (West Bengal Municipal Election 2022) ভাঙছেন।”

আরও পড়ুন- যুদ্ধের বিরুদ্ধে ইউটিউব! রাশিয়ার চ্যানেলগুলিকে বিজ্ঞাপন থেকে টাকা রোজগারে বাধা

পুর নির্বাচনে (West Bengal Municipal Election 2022) দ্বিতীয় আর তৃতীয় হওয়ার লড়াই করছে বামে ও কংগ্রেস, মনে করেন কুণাল। তিনি আরও বলেন, “সুকান্তবাবু রাস্তায় দেখলাম বচসা করছেন৷ দিলীপ-অর্জুন-অধীর কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে নির্বাচনী বিধি ভেঙে উড়ছেন। নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই চাপিয়ে দিচ্ছেন তৃণমূলের ওপরে। এরা শুধু টিভি, ফেসবুক, ট্যুইটারেই রয়েছেন। এই বিরোধী নেতারা নিজেদের কর্মীদের কাছে মুখরক্ষা করতে, চেয়ার বাঁচাতে এই সব করছেন। হতাশা থেকেই প্ররোচনা দিয়ে চলেছেন বিরোধীরা।”

তৃণমূলের মুখপাত্র আরও জানিয়েছেন, “কাঁথিতে বিজেপির লোক নেই। তাই জন্যেই শিশির বাবু চুপি চুপি কথা বলেছেন। আজ দেখছেন ক্যাম্প ফাঁকা। রেজাল্ট বেরোলে দেখবেন বিজেপি ফাঁকা।”

বিরোধীদের অভিযোগকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে দাবি করে রাজ্য পুলিশের ভূমিকার প্রশংসায় কুণাল জানান, পুলিশ দক্ষভাবেই হিংসার বিষয় সামাল দিয়েছে।

Abir Ghoshal

Published by:Madhurima Dutta
First published:

Tags: Bengal Municipal Election 2022, Kunal Ghosh, Municipal Election 2022

পরবর্তী খবর