আজকের কাগজের সেরা খবর

আজকের কাগজের সেরা খবর

আজকের কাগজের সেরা খবর

  • Share this:

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ বুধবারের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

anandabazar11

১)কুলভূষণকে বাঁচাবোই, গর্জন ভারতের

কুলভূষণ যাদবের ফাঁসি রুখতে আজ গর্জে উঠল সংসদ। একযোগে সমস্ত দল পাকিস্তানের এহেন সিদ্ধান্তের কড়া নিন্দা করে যে কোনও মূল্যে এই মৃত্যুদণ্ড রোখার দাবি জানিয়েছে। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেছে কংগ্রেস-সহ অন্য বিরোধী দলগুলি। নরেন্দ্র মোদী আজ লোকসভা বা রাজ্যসভায় উপস্থিত ছিলেন না। তবে সংসদের দু’কক্ষেই ঝাঁঝালো বিবৃতি দিয়েছেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। জানিয়েছেন, প্রয়োজনে প্রথার বাইরে গিয়েও কুলভূষণের জীবনরক্ষার জন্য লড়বে ভারত। তাঁর মতে, কুলভূষণ কেবল তাঁর বাবা-মায়ের সন্তান নন, গোটা ‘হিন্দুস্থানের বেটা’। একই রকম ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহও।

২) রেস্তোরাঁর প্লেটেও কি মোদীর রেশন!

গান বলেছিল, ‘কেউ যদি বেশি খাও, খাবার হিসেব নাও, কেননা অনেক লোক ভাল করে খায় না।’ রেস্তোরাঁ-হোটেলের প্লেটে খাবারের ভাগ বেঁধে দেওয়ার ইঙ্গিত সত্যিই িদল কেন্দ্র।

খাবারের অপচয় নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী খুবই উদ্বিগ্ন। তাই এই দাওয়াই। যদিও দেশের প্রথম সারির হোটেল-রেস্তোরাঁর কর্তারা এটা অনধিকার চর্চা বলেই মনে করছেন। বড়লোকের রেস্তোরাঁয় খাবার নষ্ট হওয়াটা গরিবের উপরে অবিচার বলে ক’দিন আগেই ‘মন কি বাত’-এ বলেছেন মোদী। তারই সূত্র ধরে মঙ্গলবার খাদ্য ও গণবণ্টন মন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ানের ঘোষণা, মেনু প্লেটে খাবারের পরিমাণ বেঁধে দেওয়া নিয়ে কথা বলতে ডাকা হবে হোটেল-রেস্তোরাঁর কর্তাদের। ফ্রান্স, জার্মানি, স্কটল্যান্ডের মতো অনেক জায়গাতেই খাবার নষ্ট রুখতে নির্দিষ্ট ব্যবস্থা আছে। খাবার নষ্ট করলে জরিমানাও নেওয়া হয় কোথাও কোথাও। তবে রেস্তোরাঁগুলো তাদের প্লেটে কতখানি খাবার দেবে, সেটা রেশন করে দেওয়ার ভাবনাটা কিছুটা নতুন। আর বিতর্ক বেধেছে সেখানেই।

৩)হনুমান উৎসবেও গেরুয়া তাণ্ডব

অস্ত্র নিয়ে আর মিছিল হল না ঠিকই। কিন্তু বাংলায় রামনবমীর মিছিলে সাফল্য পেয়ে এ বার সর্বশক্তি দিয়ে হনুমান জয়ন্তী পালনে ঝাঁপাল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ এবং আরএসএস। এই প্রথম পুলিশের সঙ্গে সংঘাতেও জড়ালেন তাঁরা। এমনকী তাঁদের মদত জোগাতে দিল্লি থেকে বিজেপি নেতারা এসে এই হুমকিও দিয়ে গেলেন যে, ‘বানর সেনাদের’ গায়ে হাত দিলে ফল ভাল হবে না! তৃণমূলের লঙ্কা জ্বালিয়ে দেওয়া হবে!

উত্তরপ্রদেশে গেরুয়া ঝড়ের পর বাংলায় এ বার সুপরিকল্পিত ভাবে রামনবমী পালন করে সঙ্ঘ পরিবার ও বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। তাতে তারা যেমন বিপুল সমর্থন পায়, তেমনই সে দিন অস্ত্র হাতে গেরুয়া বাহিনীর আস্ফালন দেখে উদ্বেগে পড়ে যায় শাসক দলও। এতে

আরও উজ্জীবিত হয়েছেন সঙ্ঘ অনুগামী কর্মী সমর্থকরা। ফলে মঙ্গলবার দ্বিগুণ উৎসাহে বিভিন্ন জেলায় জেলায় হনুমান জয়ন্তী পালনে নেমে পড়েন তাঁরা।

৪)জায়গা নেই, যাত্রীকে তাই গলাধাক্কা বিমানে

বিমানে তিলধারণের জায়গা নেই। বিমানকর্মীদের জায়গা দিতে হবে। তাই যাত্রীদের উপরেই কোপ। যাত্রীকে পুরস্কারের লোভ দেখিয়ে কাজ হলে ভাল, নয়তো সোজা গলাধাক্কা! তেমনটাই ঘটেছে শিকাগো থেকে লুইভিলগামী ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের একটি বিমানে। এক চিনা যাত্রীকে রীতিমতো জখম করে বিমান থেকে নামিয়ে দেওয়ার সেই দৃশ্য ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিমানসংস্থার সমালোচনায় সরব চিনও।

bartaman_big11

১) ভারতীয় নাগরিককে মৃত্যুদণ্ডের জের,পরিণামের জন্য তৈরি থাকুন, পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দিল্লির

গুপ্তচর আখ্যা দিয়ে ভারতীয় নৌবাহিনীর অফিসার কুলভূষণ যাদবকে পাকিস্তানের সামরিক আদালত মৃত্যুদণ্ড দেওয়ায় তীব্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয়েছে ভারতে। আজ সংসদে এই নিয়ে রীতিমতো তোলপাড় হয়। বিরোধীরা সরকারকে চেপে ধরে দাবি করেছে যেভাবেই হোক কুলভূষণকে ফিরিয়ে আনতেই হবে। আচমকা পাকিস্তানের এই কড়া মনোভাবে মোদি সরকার চাপে। তাই পালটা পাকিস্তানকেও হুমকি দেওয়া শুরু হয়েছে। আজ বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং সংসদে বলেছেন, কুলভূষণের যাতে কোনও ক্ষতি না হয় তা নিশ্চিত করে তাঁকে সুবিচার দেওয়ার জন্য সবরকম চেষ্টা করা হচ্ছে। সুষমা একধাপ এগিয়ে পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, ওই মৃত্যুদণ্ডাদেশ তড়িঘড়ি কাযর্কর হলে পাকিস্তান যেন পরিণামের জন্য প্রস্তুত থাকে। অন্যদিকে, রাজনাথ বলেছেন, পাকিস্তান মিথ্যা বলছে। কুলভূষণ মোটেই চর নয়। তবে সব ছাপিয়ে বিহারের বিজেপি এমপি রাজকুমার সিংয়ের মন্তব্য তীব্র আলোড়ন ফেলেছে। তিনি বলেছেন পাকিস্তান অত্যাচার করে জেলে আগেই মেরে ফেলেছে কুলভূষণকে। এখন মৃত্যুদণ্ডের কথা বলে সেই হত্যাকেই ধামাচাপা দিতে চাইছে।

২)রাজ্যে কয়েকশো মেডিকেল সিট আটকে দিল দিল্লি, বিতর্ক

মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জমানায় গত পাঁচ বছরে বৃদ্ধি পাওয়া পাঁচশোর বেশি এমবিবিএস আসনে আসন্ন শিক্ষাবর্ষে ছাত্রছাত্রী ভরতি আটকে দিল দিল্লির মেডিকেল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া (এমসিআই)। এর মধ্যে কলকাতা মেডিকেল কলেজ, আরজিকর, এনআরএস, ন্যাশনাল, পিজি, বর্ধমান, উত্তরবঙ্গ, বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিকেল কলেজ রয়েছে। মমতার জমানায় মেডিকেলে ৯৫টি, আরজিকর এবং এনআরএস-এ ১০০টি, পিজি, ন্যাশনাল, বর্ধমান, উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও বাঁকুড়ায় ৫০টি করে এমবিবিএস আসন বেড়েছে। এইগুলিতেই মূলত কোপ পড়েছে। গোটা ঘটনায় ঘুম উড়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের। সোমবারই দিল্লি ছুটেছেন রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্যসচিব আর এস শুক্লা ও বিশেষ সচিব (স্বাস্থ্য শিক্ষা) ডাঃ তমালকান্তি ঘোষ। মঙ্গলবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত এমসিআই কর্তাদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে বৈঠক হয়েছে। যদিও এভাবে এতগুলি আসনে ভরতি বন্ধ করে দেওয়া নিয়ে স্বাস্থ্যকর্তা ও কলেজ অধ্যক্ষদের একাংশ চটে লাল।

৩)জুনের প্রথম সপ্তাহেই চীন যাচ্ছেন মমতা

চীনের আমন্ত্রণে আগামী জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে সেদেশে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চীনা কমিউনিস্ট পার্টিও তাঁকে চীনে যাওয়ার জন্য চিঠি দিয়েছে। সম্প্রতি চীনের রাষ্ট্রদূত লুও ঝাওহুই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে এ রাজ্যে উৎপাদন এবং ক্ষুদ্র-কুটির শিল্পে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখান। মুখ্যমন্ত্রীও তাঁকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, এখানে শিল্পস্থাপনে জমির কোনও সমস্যা হবে না। চীন সফরে মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও অর্থ-শিল্পমন্ত্রী অমিত মিত্র, মুখ্যসচিব বাসুদেব বন্দ্যোপাধ্যায়সহ শিল্পসংস্থার প্রতিনিধিরা যাবেন। মুখ্যমন্ত্রী বেজিং ও সাংহাই শহরে যাবেন বলে ঠিক করেছেন। ম্যানুফ্যাকচারিং শিল্পে চীন উল্লেখযোগ্য স্থান অর্জন করেছে।

৪)মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড দেড় বছরের মধ্যে তিন তালাক বন্ধ করে দেবে, দাবি প্রতিষ্ঠানের সহ-সভাপতির

সর্বভারতীয় মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড বছর দেড়েকের মধ্যে নিজে থেকেই তিন তালাকের প্রথা বন্ধ করে দেবে। এবিষয়ে সরকারের হস্তক্ষেপ করা উচিত নয়। এই মন্তব্য করলেন বোর্ডের সহ-সভপতি কালবি সাদিক। পাশাপাশি মুসলিমদের গোমাংস না খাওয়ার পরামর্শও দিলেন তিনি। সাদিক গতকাল একটি অনুষ্ঠান উপলক্ষে বিজনোর আসেন। জেলা সিভিল বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতির বাড়িতে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এই শিয়া শিক্ষাবিদ বলেন, তিন তালাক প্রথা মহিলাদের জন্য যথাযথ নয়।

First published: 09:56:54 AM Apr 12, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर