• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Suvendu Adhikari: দুপুরে হাইকোর্টে নন্দীগ্রাম মামলার শুনানি, সকালেই অন্য কৌশল শুভেন্দু অধিকারীর!

Suvendu Adhikari: দুপুরে হাইকোর্টে নন্দীগ্রাম মামলার শুনানি, সকালেই অন্য কৌশল শুভেন্দু অধিকারীর!

যুযুধান

যুযুধান

Suvendu Adhikari: নন্দীগ্রাম মামলায় সুপ্রিম কোর্টের শুনানি না হওয়া পর্যন্ত হাইকোর্টের শুনানি পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

  • Share this:

    #কলকাতা: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দায়ের করা নন্দীগ্রাম মামলার (Nandigram Case) শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে সোমবার দুপুরে। আর তার ঠিক আগেই এদিন সকালে হাইকোর্টের কাছে ওই মামলার শুনানি পিছোনোর আবেদন জানালেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। তাঁর আইনজীবী হাইকোর্টে জানিয়েছেন, একই বিষয়ে একটি মামলা সুপ্রিম কোর্টেও শুনানির অপেক্ষায়। সেই মামলারও সোমবার শুনানি হওয়ার কথা। তাই সুপ্রিম কোর্টের শুনানি না হওয়া পর্যন্ত হাইকোর্টের শুনানি পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন শুভেন্দু। যদিও হাইকোর্টের তরফে এখনও এ বিষয়ে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি।

    নন্দীগ্রাম মামলা‌ পশ্চিমবঙ্গের বাইরে স্থানান্তরিত করার আর্জি জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর পক্ষে রয়েছেন প্রবীণ আইনজীবী মনিন্দর সিং। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এন ভি রমন্না, বিচারপতি এ এস বোপন্না এবং বিচারপতি হিমা কোহলির বেঞ্চে মামলাটি শুনানির জন্য ওঠার কথা। যদিও মামলাটি শুনানির জন্য স্থায়ীভাবে সূচিবদ্ধ হয়নি। তবে, এদিন মামলাটি শুনানির জন্য প্রাথমিক তালিকায় সূচিবদ্ধ হয়েছে। যার ফলে সোমবার সুপ্রিম ও হাইকোর্টে একসঙ্গেই শুনানি হওয়ার কথা নন্দীগ্রাম-‌মামলার।

    আরও পড়ুন: আচমকা 'বায়ো'তে পরিবর্তন, বড় বিস্ফোরণের ইঙ্গিত তথাগত রায়ের! না কি দলত্যাগ?

    আরও পড়ুন: কলকাতা-হাওড়া পুরভোটে প্রার্থী কারা, স্পষ্ট করে দিলেন TMC শীর্ষ নেতৃত্ব

    যদিও মুখ্যমন্ত্রী বনাম বিরোধী দলনেতার আইনি লড়াই নিয়ে আইনজীবীদের অনেকেই মনে করছেন, শীর্ষ আদালতে মামলার শুনানি হলে এমনিতেই পিছিয়ে যেতে পারে হাইকোর্টের শুনানি। শীর্ষ আদালতে বিচারপতি হিমা কোহলির বেঞ্চে নন্দীগ্রাম ভোট মামলার শুনানি হতে পারে। তবে, এই আইনি জট নিয়ে আইনজীবীদের একাংশ মনে করছেন, যেহেতু শীর্ষ আদালতে মামলাটি উঠছে, তাই হাইকোর্টে শুনানি না-ও হতে পারে। এদিন সেই প্রেক্ষিতেই মামলার শুনানি পিছোনোর আর্জি জানালেন শুভেন্দু অধিকারী নিজেও।

    প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবারই সুপ্রিম কোর্ট রেজিস্ট্রারের দফতরকে নির্দেশ দেয়, শুভেন্দু অধিকারীর আর্জি মামলা ১৫ তারিখের তালিকা থেকে যেন না সরানো হয়। গত বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর জয়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই মামলায় প্রথমে বিচারপতি ছিলেন কৌশিক চন্দ। কিন্তু কৌশিক চন্দের সঙ্গে বিজেপি-র যোগাযোগের অভিযোগ তুলে মামলাটি অন্য বিচারপতির এজলাসে পাঠানোর আর্জি জানান মুখ্যমন্ত্রী।

    ঘটনাচক্রে ওই মামলা থেকে সরে যান বিচারপতি কৌশিক চন্দ। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা করেন। এরপরই এই মামলাটি পশ্চিমবঙ্গের বাইরে অন্য কোনও আদালতে স্থানান্তরিত করার আর্জি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন শুভেন্দু অধিকারী। সেই মামলারই এদিন শুনানি হওয়ার কথা সুপ্রিম কোর্টে, ফলে হাইকোর্টের শুনানি নিয়ে সন্দিহান অনেকেই।

    Published by:Suman Biswas
    First published: