নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত!করোনা পরিস্থিতিতে ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য পড়ুয়াদের ৫০০ টাকা দিচ্ছে এই বিশ্ববিদ্যালয়

নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত!করোনা পরিস্থিতিতে ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য পড়ুয়াদের ৫০০ টাকা দিচ্ছে এই বিশ্ববিদ্যালয়

University will provide students 500 rupees for internet usage -Photo Representive

তবে জঙ্গলমহলের এই বিশ্ববিদ্যালয় এই ধরনের নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিলেও কলকাতা বাজার সংলগ্ন কোন বিশ্ববিদ্যালয় এই সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি।

  • Share this:

#কলকাতা: অনলাইনে ক্লাস করানোর জন্য নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিল পুরুলিয়ার সিধু কানহু বিরসা বিশ্ববিদ্যালয়। করোনা পরিস্থিতিতে যাতে অনলাইনে ক্লাস করতে পারেন ছাত্রছাত্রীরা তাই ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ৫০০ টাকা করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। মূলত ছাত্র-ছাত্রীদের আর্থিক সমস্যা দূর করতে বিশ্ববিদ্যালয় তবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেই দাবি কর্তৃপক্ষের। রাজ্যজুড়ে করোনা সংক্রমণ ক্রমশই ঊর্ধ্বমুখী।এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে ক্লাস নিচ্ছে। সে দিক মাথায় রেখেই জঙ্গলমহলের এই বিশ্ববিদ্যালয় নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য দীপক কুমার কর জানিয়েছেন " বর্তমানে অনলাইনে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। অনেক ছাত্র-ছাত্রীদের এই ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য আর্থিক সমস্যার মধ্যে পড়তে হচ্ছে। তার জন্যই আমরা ছাত্রছাত্রীদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।"

বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে স্নাতকোত্তর স্তরের দ্বিতীয় এবং চতুর্থ সেমিস্টার ও স্নাতক স্তরের তৃতীয় চতুর্থ ও ষষ্ঠ সেমিস্টারের ছাত্র ছাত্রীরাই আপাতত এই সুযোগ পাবেন। বিশ্ববিদ্যালয় তরফের বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয়েছে শুধুমাত্র ইভেন সেমিস্টারের ছাত্র-ছাত্রীরা আপাতত এই সুযোগ পাবেন। তবে সে ক্ষেত্রে এই টাকা সরাসরি সেই ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যাংক একাউন্টে দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে ছাত্র-ছাত্রীদের নাম,তার রেজিস্ট্রেশন নম্বর,রোল নম্বর, বিষয়, সেমিস্টার এবং মোবাইল নম্বর চাওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের থেকে এই বিস্তারিত তথ্য গুলি পাওয়ার পরপরই এই টাকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করা হবে। গতবছর করোনা সংক্রমনের প্রথম পর্যায় স্যানিটাইজার তৈরি থেকে শুরু করে বিভিন্ন মাধ্যমে পাশে দাঁড়িয়েছিল পুরুলিয়ার এই বিশ্ববিদ্যালয়।এবার অনলাইনে ক্লাস করানোর জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের ৫০০ টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত কে ইতিবাচক বলেই মনে করছে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাংশ।

তবে জঙ্গলমহলের এই বিশ্ববিদ্যালয় এই ধরনের নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিলেও কলকাতা বাজার সংলগ্ন কোন বিশ্ববিদ্যালয় এই সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। যদিও করোনা সংক্রমণে প্রথম পর্যায়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়াদের একাংশ ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইল সহ একাধিক দাবি তুলেছিল। কিন্তু কার্যত তা সেই ভাবে বাস্তবায়িত হয়নি। রাজ্যের মধ্যে কার্যত প্রথম কোন বিশ্ববিদ্যালয় এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিল বলেই দাবি অধ্যাপকদের একাংশের। বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহারের খরচ অনেকটাই কমেছে। বলতো এক্ষেত্রে ছাত্রছাত্রীদের কাছে ইন্টারনেট ব্যবহার আরও সহজলভ্য হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। অনেকেই দাবি করছেন রাজ্যের মধ্যে প্রথম কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়ে কার্যত পথ দেখাল।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by:Debalina Datta
First published: