#CAA:শরণার্থীদের কি পাকিস্তানে ফের আত্যাচারের মুখে ফিরিয়ে দিতে পারি?যুব সমাজকে প্রশ্ন মোদির

#CAA:শরণার্থীদের কি পাকিস্তানে ফের আত্যাচারের মুখে ফিরিয়ে দিতে পারি?যুব সমাজকে প্রশ্ন মোদির

এদিন বেলুড় মঠে স্বামীজির জন্মদিবসের মঞ্চে CAA ও NRC নিয়ে মোদির এই বক্তব্য ছিল অত্যন্ত ইঙ্গিতপূর্ণ

  • Share this:

#কলকাতা: বেলুড়ে এসেছিলেন স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিবস পালনে৷ এই উপলক্ষে সকালে বেলুড়মঠে যুব উৎসবে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী৷ হাজার হাজার ছাত্র-যুবদের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন নরেন্দ্র মোদি৷ এবং এই মঞ্চটি ব্যবহার করে সুকৌশলে CAA এবং NRC নিয়ে নিজের ভাবনাকে মেলে ধরেন তিনি৷ তিনি স্পষ্ট করে দেন যে নাগরিকত্বের মাধ্যমে কউকেই দেশছাড়া হতে হবে না৷ নাগরিকত্ব আসলে দেশের সাধারণ নাগরিকদের আশ্রয় দেবে৷ তাদের নিশ্চিন্তে দেশে থাকার ব্যবস্থা করবে৷ তিনি বলেন যে দেশভাগের সময় পাকিস্তানে অনেকেই ধর্মীয় হিংসার শিকার হয়েছিলেন৷ তাদের কোনওভাবে আবার সেদেশে ফেরাতে তিনি পারেন না৷ দেশপ্রধান হিবেসে কি শরণার্থীদের মৃত্যুর মুখে কি ঠেলে দিতে পারেন৷ মঞ্চ থেকে সেই প্রশ্ন তুলেছেন মোদি৷ তার যুক্তি যে সেই কারণে এই নাগরিকত্ব আইন৷ যার মাধ্যমে কোনও নাগরিককে আর পাকিস্তানে ফিরতে হবে না৷ তারা ভারতেই থাকতে পারবেন আজীবন৷ যদিও তার এই যুক্তির অপব্যাখ্যা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী৷

আরও পড়ুন ব্রহ্মচারির কায়দায় শ্বেতবস্ত্র, স্বামীজির জন্মদিবসে বেলুড়ে পুজো, রামকৃষ্ণ শরণংয়ে মজলেন মোদি, দেখুন...

এদিন বেলুড় মঠে স্বামীজির জন্মদিবসের মঞ্চে CAA ও NRC নিয়ে মোদির এই বক্তব্য ছিল অত্যন্ত ইঙ্গিতপূর্ণ৷ কারণ যুগপুরুষ স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিবস উপলক্ষ্যে প্রচুর ছাত্র-যুবর জমায়েত হয়েছিল বেলুড়ে৷ সেই যুব সমাজের সামনে নাগরিকত্ব আইন নিয়ে নিজের মনোভাব রেখে তিনি আখেড়ে যুবদের এই বিষয় সচেতন করতে চাইলেন৷ তার বক্তব্যকে সমর্থনও করেছেন উপস্থিত যুবরা৷ তাই তো মোদি বলেছেন যে যুবসমাজ তার কথা বুঝলেও, অনেক রাজনীতিকা এই কথা বুঝতে পারছেন না৷

আরও পড়ুন ‘CAA নাগরিকত্ব কাড়বে না, দেবে’, যুব সমাজকে বার্তা মোদির

মোদি স্পষ্ট করেছেন যে উত্তর পূর্বে CAA-র প্রভাব পড়বে না৷ পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার চলে নিয়মিত এবং সেখানে মানবাধিকার বলে কিছু নেই বলে জানান মোদি৷ কেন ৭০ বছর ধরে এই অত্যাচার চলছে তার জবাব দিতে হবে পাকিস্তানকে বলেই হুশিয়ারি মোদির৷

First published: January 12, 2020, 11:15 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर