Home /News /kolkata /

গতি বাড়ছে শহরের! আগামী দিনে একাধিক উড়ালপুল পাচ্ছে কলকাতা

গতি বাড়ছে শহরের! আগামী দিনে একাধিক উড়ালপুল পাচ্ছে কলকাতা

মসৃণ রাস্তার পাশাপাশি, যানজট কমানো লক্ষ্য, প্রচারে বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর।

  • Share this:

#কলকাতা: গতি বাড়ছে কলকাতার। শহরকে যানজট মুক্ত করতে একাধিক উড়ালপুল তৈরি করা হচ্ছে। কোথাও উড়ালপুল তৈরি করবে কেএমডিএ। কোথাও আবার উড়ালপুল তৈরি করা হবে রাজ্য পূর্ত দফতরের সহযোগিতায়। ইতিমধ্যেই একাধিক উড়ালপুল নিয়ে ডিপিআর তৈরি করেছে রাজ্য সরকার।

আরও পড়ুন: ১ কোটি টাকার লাইফ ইনস্যুরেন্স প্ল্যান? এক নজরে দেখে নিন কত টাকার প্রিমিয়াম দিতে হয়!

কলকাতা পুর ভোটের প্রচারে মহানগরের নাগরিকদের এই বিষয়ে আবারও বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে সমস্ত জায়গায় নয়া উড়ালপুল বানানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তা হল,  রুবি থেকে কালিকাপুর পর্যন্ত একটি উড়ালপুর তৈরি করবে রাজ্য সরকার। থাকবে স্কাইওয়াকও। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় বিশেষজ্ঞ সংস্থা RITES এর ডিপিআর তৈরি করেছে। শীঘ্রই কাজ শুরু হতে পারে। টালা থেকে ডানলপ পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার ৬ লেনের একটি উড়ালপুল তৈরি করা হবে।এয়ারপোর্ট গেট থেকে যশোহর রোড ও ভিআইপি রোড সংযুক্তিকরণের জন্য একটি উড়ালপুল তৈরি হবে।

উল্টোডাঙা ও বাঙ্গুর অ্যাভিনিউয়ের মধ্যে ৩ কিলোমিটার সংযোগকারী করিডোর তৈরি করা হবে।সৈয়দ আমির আলি অ্যাভিনিউয়ে মা উড়ালপুল থেকে গুরুসদয় দত্ত রোড পর্যন্ত একটি উড়ালপুল নির্মাণ করা হবে।খিদিরপুরে পুরনো লোহার সেতুর জায়গায় একট নতুন সেতু তৈরি করা হবে। ইএম বাইপাস থেকে নিউ টাউনকে জুড়ে দেওয়া হবে একটি উড়ালপুল দিয়ে। জীবনানন্দ সেতু থেকে টিপু সুলতান মসজিদের কাছ পর্যন্ত প্রিন্স আনোয়ার শা রোড বরাবর আরও একটি উড়ালপুল তৈরি হবে। উল্টোডাঙা থেকে পোস্তা বাজারকে জুড়ে দেওয়া হবে একটি উড়ালপুল দিয়ে। পাইকপাড়া থেকে শিয়ালদহ স্টেশন পর্যন্ত উড়ালপুল।গড়িয়া থেকে যাদবপুর পর্যন্ত ফ্লাইওভার।পার্কসার্কাস কানেক্টরে একটি স্কাইওয়াক তৈরি হবে। এছাড়া মা উড়ালপুলের একটি র‍্যাম্প থেকে গুরুসদয় দত্ত রোড অবধি একটি উড়ালপুলের শাখা বা র‍্যাম্প নামানো হবে৷ ইতিমধ্যেই, বাজেটে কলকাতার একাধিক উড়ালপুলের পাশাপাশি রাজ্যের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ঢেলে সাজানোর কথাও ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার।

আরও পড়ুন: ৩৫ পয়সার শেয়ার হয়েছে ২০০ টাকা, ৩ বছরে ১ লাখ টাকা হয়েছে ৫ কোটি টাকার বেশি!

পথশ্রী প্রকল্পের অধীনে রাজ্যের গ্রামীণ এলাকায় ৪৬ হাজার কিলোমিটার নতুন রাস্তা তৈরির প্রস্তাব দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি সংস্কার করা হবে রাজ্যের ১০ হাজার কিলোমিটার রাস্তা। সব রাজ্যসড়কে জুড়ে দেওয়া হবে গ্রামীণ রাস্তাগুলিকে। রাজ্যেরদাবি, স্বাধীনতার পর থেকে রাজ্যে তৈরি হয়েছিল ২৯ হাজার কিলোমিটার । ২০১১ সালের পর থেকে বর্তমান সরকার ৮৯ হাজার কিলোমিটার রাস্তা তৈরি করেছে।  নন্দীগ্রামে হলদি নদীর উপরে একটি সেতু তৈরি করা হবে। কলকাতাকে বাসন্তীর সঙ্গে জুড়ে জুড়ে দেওয়া হবে ৪ লেনের রাস্তা দিয়ে। প্রগতি ময়দান থেকে বানতলা পর্যন্ত রাস্তা চওড়া করা হবে। বারুইপুর থেকে আমতলা রাস্তার  উন্নয়ন হবে। কোচবিহারেরর বক্সিরহাটে রায়ডাক নদীর উপরে ৯ কিলোমিটার দীর্ঘ সেতু নির্মাণ করা হবে। বালসন নদীর উপরে একটি সেতু নির্মাণ করা হবে।

আরও পড়ুন: অ্যামাজনের বক্তব্যের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করল সিএআইটি

কিন্তু কলকাতা পুরভোটের আগে শহরের গতি বাড়াতে আরও বেশ কয়েকটি উড়ালপুলের ঘোষণা করে শহরের বিকাশের বার্তা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে তৃণমূল তাদের ইস্তাহারে আগেই ঘোষণা করেছিল কলকাতার সব রাস্তা হবে মসৃণ। এবার শহরের গতিও হতে চলেছে মসৃণ।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published:

Tags: Flyovers, Mamata Banerjee

পরবর্তী খবর