Corona 2nd Wave : করোনা পরিস্থিতিতে বদলানো হবে প্রধানমন্ত্রীর সভার রূপরেখা : কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

Corona 2nd Wave : করোনা পরিস্থিতিতে বদলানো হবে প্রধানমন্ত্রীর সভার রূপরেখা : কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

কৈলাস বিজয়বর্গীয় Photo : File

প্রসঙ্গত করোনার দাপটের মধ্যেই রাজ্যে আগামী ২৪ এপ্রিল জনসভা রয়েছে মোদির। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খাস-তালুক ভবানীপুর ছাড়াও আরও ৩ সভা করার কথা প্রধানমন্ত্রীর।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : দেশে বিদ্যুত গতিতে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ (Covid-19 Second Wave)। এরই মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে চলছে বিধানসভা নির্বাচন। চলছে প্রচার পর্ব। সভা-সমাবেশ-রোড শো। সমাবেশে যোগ দিতে বারবারই বঙ্গে আসছেন প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রথম সারির নেতা-মন্ত্রীরা। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির দ্রুত অবনতি ঘটায় এবার নড়ে চড়ে বসলো কেন্দ্র। আগামীদিনে প্রধানমন্ত্রীর জনসভাগুলির রূপরেখা নিয়ে নতুন করে ভাবনা চিন্তা শুরু করেছে প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয়। করোনার সংক্রমণের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর সভার রূপ পরিবর্তন করার জন্য ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ট্যুইট করে সোমবার এই বার্তা জানালেন BJP কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় (Kailash Vijayvargiya)।

    তাঁর ট্যুইটে বিজয়বর্গীয় বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জনসভাগুলোতে সামাজিক দূরত্বের জন্য বিশেষ মনোযোগ দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। আগামী দিনে সেভাবেই দল সভা সমাবেশের আয়োজন করবে কার্যত ট্যুইটবার্তায় এই ইঙ্গিতই দিলেন বিজয়বর্গীয়।

    প্রসঙ্গত করোনার দাপটের মধ্যেই রাজ্যে আগামী ২৪ এপ্রিল জনসভা রয়েছে মোদির। ঐদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খাস 'তালুক' ভবানীপুর ছাড়াও আরও ৩ সভা করার কথা প্রধানমন্ত্রীর। বিজেপি সূত্রে এমনই খবর মিলেছে। সূত্রের খবর, সেদিনই বাংলার ভোটপ্রচারে ইতি টানবেন মোদী। তবে পশ্চিমবঙ্গ-সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যখন করোনাভাইরাসের কামড় অব্যাহত, তখন মোদীর চার জনসভা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। জানা গিয়েছে ভবানীপুর ছাড়াও মালদহ, মুর্শিদাবাদ এবং বোলপুরে সভা করার কথা মোদির। প্রাথমিকভাবে অবশ্য ঠিক ছিল, ২১ এপ্রিল থেকে ২৪ এপ্রিলের মধ্যে চারটি জনসভা করবেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু সেই পরিকল্পনা পালটে একদিনেই চার জনসভা করার কথা বিজেপি সূত্রে শোনা যাচ্ছে।

    যদিও করোনার বাড়বাড়ন্তর মধ্যে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন মহল থেকে। ইতিমধ্যেই বিজেপির প্রধান প্রতিপক্ষ তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে খোদ সুপ্রিমো জানিয়ে দিয়েছেন তিনি কলকাতায় আর কোনও সভা করবেন না। বড় জনসভায় 'না' বামেদেরও ঘোষণা। এই অবস্থায় মোদির চার জনসভা ঘিরে প্রশ্ন উঠছে। যদিও বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের দাবি, সব জনসভায় সামাজিক দূরত্বের বিধি মেনে চলা হবে। করোনা বিধি মেনেই সুরক্ষার আয়োজন করা হয়েছে।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: