• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Dilip Ghosh: পুরভোটে পয়সা নিয়ে প্রার্থী? শোরগোল ফেলা অডিও নিয়ে এবার দিলীপ ঘোষ বললেন...

Dilip Ghosh: পুরভোটে পয়সা নিয়ে প্রার্থী? শোরগোল ফেলা অডিও নিয়ে এবার দিলীপ ঘোষ বললেন...

দিলীপ ঘোষের প্রতিক্রিয়া

দিলীপ ঘোষের প্রতিক্রিয়া

Dilip Ghosh: দলের লোকেরাই আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ তুলছে বিজেপির বিরুদ্ধে। তাতে বিড়ম্বনা বাড়ছে গেরুয়া শিবিরের। সেই বিষয়েও দিলীপ ঘোষ বলেন, ''কেউ অভিযোগ তুললেই হবে না। বিভিন্ন অর্থে বিভিন্ন স্বার্থে লোকে এসব করে থাকে।''

  • Share this:

#কলকাতা: প্রায় প্রতিদিনের মতো সোমবারও নিউটাউনের ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমনে আসেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হতেই ফের মুখ খোলেন একাধিক বিষয়ে।

সিবিআই ইডির আধিকারিকদের কার্যকালের মেয়াদ শেষ হওয়ার পরেও তাঁদের মেয়াদকাল বাড়ানো হল। এপ্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, ''সুযোগ্য অফিসারদের সময়কাল বাড়িয়ে যদি তাঁদের সেবা নেওয়া যায়, দোষের কী আছে। পশ্চিমবঙ্গে কী হচ্ছে? মুখ্যসচিব অবসর নেওয়ার পরেও আবার তাঁকে কাজে লাগানো হচ্ছে। সমস্ত ডিপার্টমেন্টে অবসরপ্রাপ্ত লোকেদেরই ভিড়। নতুন চাকরি পাচ্ছে না। যারা সমালোচনা করেন, তারাই তো এগুলো শুরু করেছেন। কেন্দ্রে কংগ্রেসের সরকার ছিল যখন, তারাও করেছেন। আমরা জানি সব জায়গায় এমনিতে অফিসার-কর্মী কম আছে, অভিজ্ঞ লোক কম আছে, যারা অভিজ্ঞ তাঁদের সেবা যদি সরকার নেয়, আমার মনে হয় এটা ভালোই হয়েছে।

দলের লোকেরাই আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ তুলছে বিজেপির বিরুদ্ধে। তাতে বিড়ম্বনা বাড়ছে গেরুয়া শিবিরের। সেই বিষয়েও দিলীপ ঘোষ বলেন, ''কেউ অভিযোগ তুললেই হবে না। বিভিন্ন অর্থে বিভিন্ন স্বার্থে লোকে এসব করে থাকে। এর কোন প্রমাণ লাগে না। কিন্তু যারা জেল খেটে এসেছে, যাদের নামে কেস চলছে, সেটা তো আর প্রমাণ করতে হবে না। দিনের পর দিন তারা জেল খেটে তারা বড় বড় কথা বলছে।''

আরও পড়ুন: একটি কাউন্সিলর টিকিটের দাম ১ লক্ষ! অডিও প্রকাশ্যে, বঙ্গ বিজেপি তোলপাড়

আরও পড়ুন: হাইকোর্টের লালবাড়ি জিততে মরিয়া তৃণমূল, রোডম্যাপ বানালেন খোদ আইনমন্ত্রী    

এরপরই ত্রিপুরা প্রসঙ্গে তৃণমূলের অভিযোগের প্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষ সংযোজন করেন, ''আমি বলেছিলাম ত্রিপুরাতে চোর ডাকাতরা গেছে দেখে রাখুন। যে যে নেতারা গেছে তারা কারা। তাদের বিরুদ্ধে আমরা কেস করিনি। টিএমসি-র সরকার তার লোকেরাই কেস করেছে। যত দাগী নেতাদের ওখানে পাঠিয়েছে লাইন দিয়ে। তৃণমূলের একাধিক নেতার বিরুদ্ধে দুর্নীতি, হিংসার অভিযোগ আছে। পুরো তৃণমূল দলটাই আজ দুর্নীতিতে ছেয়ে গেছে। ওরা লোককে কী প্রশ্ন করবে? রাস্তায় অনেক ভিডিও চলে, অনেক লোক অনেক কিছু বলে। পার্টির তার মধ্যে কোন দায় নেই।''

এদিনই হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টে নন্দীগ্রাম মামলার শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে। এ নিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, ''কোর্ট কাছাড়িতে যে কেউ যেতে পারে। কোর্ট যেমন নির্দেশ দেবে, সেটা মানতে হবে। সবার এ বিষয়ে সহযোগিতা করা উচিত।'' এদিকে দলে ফেরার পর রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে তৃণমূলের বড় অংশের আপত্তি, মন্তব্য নিয়েও প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হয় দিলীপ ঘোষের কাছে। তা নিয়ে বিজেপি-র সর্বভারতীয় সহ সভাপতি বলেন, ''ওদের ব্যাপার। কে কাকে ঢুকতে দেবে না দেবে। ওই পার্টিটাই ওই রকম। সেখানে নিজস্ব সবার ব্যবসা চলে। কেউ কাউকে জায়গা ছাড়তে চায় না। পশ্চিমবঙ্গের রন্ধ্র রন্ধ্রে দুর্নীতি ও হিংসা ঢুকিয়ে দিয়েছে ওরা।''

Published by:Suman Biswas
First published: