হোম /খবর /কলকাতা /
পরীক্ষা বাড়তেই অনেকটাই বাড়ল করোনা আক্রান্ত ও সংক্রমণের হার

Coronavirus: পরীক্ষা বাড়তেই অনেকটাই বাড়ল করোনা আক্রান্ত ও সংক্রমণের হার, এক দিনে দার্জিলিঙে আক্রান্ত ৪০ জন

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

Coronavirus: রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেশ কিছুটা কমলেও রীতিমতো নিয়ম করে করোনা আক্রান্তের ক্ষেত্রে কলকাতার রেকর্ডকে অন্য কোনও জেলা টপকাতে পারছে না।

  • Share this:

কলকাতা : ব্রিটেন ফেরত আলিপুরের বাসিন্দা তরুণীর শরীরে ওমিক্রন ভেরিয়েন্টের সন্ধান না পাওয়ায় কিছুটা স্বস্তি মিলেছে রাজ্যে। যদিও গোটা বিশ্বে হু হু করে ছড়াচ্ছে এই ওমিক্রন (Omicron)।  এরই মাঝে রাজ্যে বেশ কয়েক দিন ধরেই করোনা  (CoronaVirus) আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা অনেকটাই কম থাকছিল। সোমবার করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৪১৮ জন, সেটা মঙ্গলবার আবার এক ধাক্কায় অনেকটা বেড়ে হয়েছে ৫৫২ জন। করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা গতকাল ১০ জন ছিল,সেটা আজ অপরিবর্তিত থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার করোনা আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা থেকে করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা অল্প বাড়ল। করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছে ৫৫৪ জন। রাজ্যের সক্রিয় করোনারোগীর সংখ্যা আরও কিছুটা কমে ৭ হাজার ৫০৫ জন হল। তবে উদ্বেগ বাড়িয়ে গোটা রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় এক ধাক্কায় দশ হাজার বেড়েও মাত্র ৩২ হাজার ৬৮৫ জনের করোনা পরীক্ষা হয়েছে, যার মধ্যে ৫৫২ জন করোনা পজিটিভ। এর ফলে রাজ্যে করোনা পজিটিভিটি রেট ১.৮৭% এর থেকে কিছুটা কমে ১.৬৯% হয়েছে।

আরও পড়ুন : মিশছে ভুষি ও শিল্পে ব্যবহৃত রং! পোস্তায় অবাধ হলুদ ও লঙ্কাগুঁড়োর ভেজাল চক্র

রাজ্যে চিকিৎসক মহলের একাংশ বলছেন,যেখানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বারবার বলছে, এই ওমিক্রন আতঙ্কের জন্য আরও বেশি করে করোনা পরীক্ষা করার কথা, সেখানে আমাদের রাজ্যে প্রতিদিন এতটাই কম করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে এবং তার ফলে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক কম থাকছে,এটা যথেষ্ট উদ্বেগের বিষয় হয়ে দাঁড়াচ্ছে। রাজ্যে করোনা পরীক্ষা করার সংখ্যা আরও বাড়ানো উচিত এবং একইসঙ্গে মানুষের উচিত কোনওরকম উপসর্গ থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী করোনা পরীক্ষা করানো।

রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেশ কিছুটা কমলেও রীতিমতো নিয়ম করে করোনা আক্রান্তের ক্ষেত্রে কলকাতার রেকর্ডকে অন্য কোনও জেলা টপকাতে পারছে না। কলকাতায় করোনা আক্রান্ত প্রতিদিনই সবথেকে বেশি থাকছে। রাজ্যে যেখানে গত ২৪ ঘন্টায় মাত্র ৫৫২ জন করোনা আক্রান্ত, সেখানে শুধু কলকাতাতেই এদিন ১৬১ জন আক্রান্ত হয়েছে, আর মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের।

আরও পড়ুন : বইমেলায় কি কমানো হবে স্টল সংখ্যা? গিল্ড কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে জানিয়ে দিল নবান্ন...

অন্যদিকে এর পরই উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় গতকালের ৭৪ জন থেকে অনেকটাই বেড়ে ১০১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে এবং করোনায় মৃত্যু হয়েছে আজ ২ জনের। কলকাতার পাশের হাওড়া জেলায় আক্রান্ত বেড়ে ৩৭ জন হয়েছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় করোনা আক্রান্ত বেশ কিছুটা কমে হয়েছে ৩৭ জন। হুগলি জেলাতেও সামান্য বেড়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৩৯ জন, মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। নদিয়া জেলায় মঙ্গলবার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ জন, যদিও মৃত্যু হয়েছে একজনের।

আরও পড়ুন : রাজ্যে শীতের আমেজ, আগামী কয়েকদিন আবহাওয়া কেমন থাকবে ? জেনে নিন 

পশ্চিম বর্ধমান জেলায় করোনা আক্রান্ত সংখ্যা আবার অনেকটাই বেড়ে আজ আক্রান্ত হয়েছে ২৭ জন।  দক্ষিণবঙ্গের মধ্যে কলকাতা,উত্তর ২৪ পরগনা, হুগলি, নদিয়া এবং পূর্ব বর্ধমান বাদ দিয়ে আর কোনও জেলায় এদিন করোনা আক্রান্ত হয়ে কারও মৃত্যু হয়নি।

অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গের থেকে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলির করোনা পরিস্থিতি ভাল হলেও এদিন অনেকদিন বাদে সেখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটা বাড়ল। আগেই উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে আক্রান্তের সংখ্যা এক ধাক্কায় অনেকটা বাড়লেও গত কয়েকদিন ধরেই সেটা আবার বেশ খানিকটা নিয়ন্ত্রণ হয়েছিল,তবে মঙ্গলবার আবার হঠাৎ খানিকটা বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ গোটা উত্তরবঙ্গ জুড়ে।

উত্তরবঙ্গের মধ্যে দার্জিলিং জেলায় সর্বাধিক করোনা আক্রান্ত, সেখানে মঙ্গলবার ৪০ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরই জলপাইগুড়ি  জেলায় ১৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, মৃত্যু হয়েছে এক জনের। কোচবিহারে আক্রান্ত হয়েছেন ১১ জন।

মঙ্গলবার রাজ্যের মধ্যে সবথেকে কম করোনা আক্রান্ত হয়েছেন দক্ষিণবঙ্গের পুরুলিয়া এবং  উত্তরবঙ্গের কালিম্পং জেলায়। এই দুটি জেলাতেই আজ মাত্র একজন করে আক্রান্ত হয়েছে।  এরপরই দক্ষিণবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলা এবং উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ার ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় আজ মাত্র ৩ জন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Coronavirus, Omicron