Home /News /kolkata /
Soumitra Khan: বিদ্রোহে ইতি টেনেও বৈঠকে নেই সৌমিত্র! 'জোকার' কটাক্ষে সংঘাত বাড়ালেন দিলীপ

Soumitra Khan: বিদ্রোহে ইতি টেনেও বৈঠকে নেই সৌমিত্র! 'জোকার' কটাক্ষে সংঘাত বাড়ালেন দিলীপ

যুযুধান

যুযুধান

Soumitra Khan: বুধবার দিনভর এই নাটকের পর নড়েচড়ে বসে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। সৌমিত্রকে দিল্লিতে তলব করেন বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব৷ বিষ্ণুপুরের সাংসদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহেরও কথা হয়েছে বলে সূত্রের খবর৷

  • Share this:

    #কলকাতা: বিজেপি যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি সৌমিত্র খাঁ'কে বেজায় চাপে পড়েছে গেরুয়া শিবির। বুধবারই বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী, রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে রাজ্যে বিজেপি-র যুব মোর্চার সভাপতির পদ ছেড়েছিলেন সৌমিত্র৷ কিন্তু সন্ধে গড়াতেই অবশ্য বিদ্রোহে ইতি টেনেছিলেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ। ইস্তফা প্রত্যাহার করে নিয়ে ফের ছেড়ে দেওয়া পদে ফেরেন তিনি। ফেসবুকে এ কথা জানিয়ে সৌমিত্র দাবি করেছিলেন, বিজেপি-র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক বি এল সন্তোষের পরামর্শ অনুযায়ী তিনি ইস্তফা প্রত্যাহার করলেন। কিন্তু বৃহস্পতিবারই বিজেপির হেস্টিং অফিসে বিজেপি যুব মোর্চার রাজ্য কমিটির যে বৈঠক ডাকা হয়, তাতে উপস্থিতই হননি সৌমিত্র। ফলে তাঁকে নিয়ে ফের জিইয়ে উঠেছে জল্পনা।

    সূত্রের খবর, বুধবার দিনভর এই নাটকের পর নড়েচড়ে বসে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। সৌমিত্রকে দিল্লিতে তলব করেন বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব৷ বিষ্ণুপুরের সাংসদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহেরও কথা হয়েছে বলে সূত্রের খবর৷ এমনকী এও শোনা যাচ্ছে, সৌমিত্রকে ফের একবার দলের শীর্ষ নেতৃত্ব সতর্ক করতে পারে।

    প্রসঙ্গত, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় বাংলা থেকে চার সাংসদ জায়গা পেয়েছেন। কিন্তু ডাক আসেনি সৌমিত্রের৷ যদিও বিধানসভা নির্বাচনে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি-র ফল তুলনামূলক ভাবে অন্যান্য অনেক জায়গার থেকে ভালো। তার পরেও মন্ত্রিসভায় জায়গা না পেয়েই এ দিন দুপুরে ফেসবুক লাইভ করে সৌমিত্র খাঁ নিশানা করেন শুভেন্দু অধিকারী, দিলীপ ঘোষদের।

    শুভেন্দুর বিরুদ্ধে তাঁর অভিযোগ ছিল, দিল্লিতে গিয়ে দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে ভুল বুঝিয়ে আসছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা৷ এমনকী নন্দীগ্রামের বিধায়ককে 'আয়নায় মুখ দেখার' পরামর্শও দেন তিনি৷ অপরদিকে, দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অর্ধেক বোঝেন বলেও কটাক্ষ করেছিলেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ৷ এরপরই দিল্লি থেকে ডাক আসে তাঁর। যদিও দিলীপ ঘোষ এদিন পালটা আক্রমণ শানিয়েছেন সৌমিত্রকে। নাম না করে বলেছেন, 'রাজনাতীতে জোকারদের নিয়ে আলোচনা হয়। যুব নেতা তো, এমন ভুল করলে চলে না। বারবার একই ভুল মেনেও নেওয়া হবে না।' কিন্তু দিল্লি থেকে ডাক পাওয়ার পরও যেভাবে যুব মোর্চার বৈঠকে অনুপস্থিত থাকলেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ, তাতে জল্পনা আরও বাড়ল।

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    পরবর্তী খবর