corona virus btn
corona virus btn
Loading

সাবাশ বাঙালি! মঙ্গলে জমি কিনলেন শ্রীরামপুরের শৌনক 

সাবাশ বাঙালি! মঙ্গলে জমি কিনলেন শ্রীরামপুরের শৌনক 

সদ্য বিবাহিত শৌনকের এই কীর্তি শুনে অবাক অনেকেই। অনেকেই আবার ইতিউতি প্রশ্ন করছেন, বউ নিয়ে কি মঙ্গলেই সংসার পাতবেন তিনি?

  • Share this:

#কলকাতা: কারও পছন্দ লেকের ধারে জমি। কেউ আবার জমি পছন্দ করেন সবুজের মাঝখানে। আজকাল তো আবার জমির দাম ওঠানামা করে সেনসেক্সের মতোই। তবু ব্যান্ডেল থেকে বেহালা, আলিপুর থেকে মেদিনীপুর, শিলিগুড়ি থেকে সল্টলেক পছন্দের জমি খুঁজে পেতে লড়াই জারি রয়েছেই। এরই মধ্যে সকলকে অবাক করে দিয়ে পৃথিবী ছেড়ে ভিন গ্রহে জমি কিনে বসলেন শৌনক। "সস্তায় পেলাম, তাই নিয়ে নিলাম" সহজ স্বীকারোক্তি শ্রীরামপুরের বাসিন্দা শৌনক দাসের।

আসলে তিনি জমি কিনেছেন মঙ্গলে। সদ্য বিবাহিত শৌনকের এই কীর্তি শুনে অবাক অনেকেই। অনেকেই আবার ইতিউতি প্রশ্ন করছেন, বউ নিয়ে কি মঙ্গলেই সংসার পাতবেন তিনি?

শৌনক অবশ্য বলছে, "বিজ্ঞান যে দিকে এগোচ্ছে,  তাতে অদূর ভবিষ্যতে মঙ্গল গ্রহেও মানুষ গিয়ে থাকতে পারেন।" প্রসঙ্গত শৌনকের নাম-সহ একটা চিপ ইতিমধ্যেই নাসা'র রকেটে চেপে মঙ্গলের উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে গিয়েছে। বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত শৌনক, এক একর জমি কিনেছে। দাম পড়েছে মাত্র ৩ হাজার টাকা। জমির দলিল, মঙ্গলের ঠিক কোথায় তার জমি আছে, অক্ষাংশ-দ্রাঘিমাংশ মেপে সেই জমির যাবতীয় তত্ত্ব তালাশ তাঁর হাতে এসে গিয়েছে।

নাসা একটি সংস্থাকে দিয়ে এই জমি পাওয়ার ব্যবস্থা করেছিল। আর তাতেই অংশিদার হল শৌনক। শৌনকের কথায়, "সম্ভবত আমিই প্রথম বাঙালি, যে মঙ্গলে জমি কিনলাম। হয়তো আমি যেতে পারব না। তবে সকলকে বলতে তো পারব, আমার মঙ্গলে জমি আছে।"এর পাশাপাশি শৌনক চন্দ্রযানের নকশা কেমন হবে তা নিয়ে কাজ করছে।

২০২৪ সালে চাঁদে লোক পাঠাতে চায় নাসা। তারপরে মঙ্গল গ্রহে। সেই কারণেই চন্দ্রযান বা মঙ্গলযানে শৌচালয় কেমন হবে তা দেখতে চায় নাসা। লুনার টু চ্যালেঞ্জ এ সেই নকশা গৃহীত হবে।  পুরুষ অভিযাত্রীর পাশাপাশি, মহিলা অভিযাত্রীও থাকবেন এখানে ফলে সমস্ত দিক দেখেই সেই নকশা বানাচ্ছে শৌনক। তবে আপাতত মঙ্গলের জমি কি হবে সেটা নিয়েই চিন্তিত শৌনক।

Published by: Arka Deb
First published: August 25, 2020, 9:25 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर