Home /News /kolkata /
21 July TMC: "কেন ২১ জুলাইতেই সভা করতে হবে, কী এমন আছে ওই দিনে?" আদালতের প্রশ্নে অস্বস্তিতে বিজেপি!

21 July TMC: "কেন ২১ জুলাইতেই সভা করতে হবে, কী এমন আছে ওই দিনে?" আদালতের প্রশ্নে অস্বস্তিতে বিজেপি!

21 July TMC Rally

21 July TMC Rally

21 July TMC Shahid Dibas Rally: “প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন নিয়ে যেদিন ইচ্ছা প্রচার করা যেতে পারে। সপ্তাহের যেদিন ইচ্ছা করতে পারেন। এটা যদি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন হত তাহলে বিষয়টা অন্যরকম হত,” বিজেপির আইনজীবীকে বলেন বিচারপতি।

  • Share this:

#কলকাতা: শহিদ দিবস পালন নিয়ে কোনও খামতিই রাখতে চাইছে না তৃণমূল কংগ্রেস। এরই মধ্যে ২১ জুলাইয়ের সভাকে কেন্দ্র করে আদালতে অস্বস্তিতে বিজেপি। উলুবেড়িয়ায় সভা করার অনুমতি সংক্রান্ত মামলায় অস্বস্তিতে পড়েছে বিজেপি। ২১ জুলাইয়ের জন্য কী ধরনের পুলিশি বন্দোবস্ত রাখা হয়েছে, কত মানুষ সেদিনের সমাবেশে আসতে পারেন রাজ্যের কাছে তা জানতে চান বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য। এখানেই শেষ নয়, রাত ৮টা থেকে সভা করার জন্য বিজেপিকে অনুমতি দিলে কোনও অসুবিধা হবে কী না তাও প্রশ্ন করেন বিচারপতি। বিজেপিকে বিচারপতি প্রশ্ন করেন ওই দিন নিজেদের সভায় কত মানুষ আসছেন বলে আশা করছে দল? কারা কারা সেদিন উপস্থিত থাকবেন তাও বিশদে জানতে চায় আদালত।

আরও পড়ুন- এদেশের নাগরিকত্ব ছাড়ছেন লাখে লাখে মানুষ! পাকাপাকি বিদেশে থাকতে চাইছেন ভারতীয়রা!

২১ জুলাই ছাড়া অন্যদিন সভা করার জন্য বিজেপিকে পরামর্শ দিয়েছে আদালত। এই বিষয়ে আগামীকাল ফের শুনানি হবে। “আদালত চায় যেন মানুষের শান্তি এবং স্বস্তি বজায় থাকে,” ২১ জুলাইয়ের সভা ঘিরে দুই যুযুধান পক্ষের এই রাজনৈতিক সংঘাত বিষয়ে মন্তব্য করেন বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য। এরই জেরে আদালতে প্রশ্নের মুখে পড়ল বিজেপির সভার দিন নির্বাচনের সিদ্ধান্ত।

“কেন ২১ জুলাই সভা করতে হবে? ওই দিনের কি কোনও বিশেষত্ব বা গুরুত্ব আছে? ২২ বা ২৩ জুলাই করলে কী অসুবিধা হবে?” বিজেপির আইনজীবীর উদ্দেশ্যে একের পর এক প্রশ্ন ছুড়ে দেন বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য।

উত্তরে বিজেপির আইনজীবী জানান, অনেক আগে থেকেই এই কর্মসূচি ঠিক করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নমূলক কাজের প্রচার করা হবে ওইদিন। “প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন নিয়ে যেদিন ইচ্ছা প্রচার করা যেতে পারে। সপ্তাহের যেদিন ইচ্ছা করতে পারেন। এটা যদি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন হত তাহলে বিষয়টা অন্যরকম হত,” বিজেপির আইনজীবীকে বলেন বিচারপতি।

আরও পড়ুন- ময়লা ফেলার গাড়িতে মোদি, যোগীর ছবি! চাকরি থেকে বরখাস্ত উত্তরপ্রদেশের সাফাইকর্মী!

“বিকেল চারটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত আমরা কর্মসূচি রেখেছি যাতে অন্য কোনও কর্মসূচিতে অসুবিধা না হয়। দিল্লি থেকে নেতারা আসছেন। তাঁদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আমাদের কর্মসূচি ওই এলাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। স্থানীয় গ্রামবাসীরাই আসবেন,” বিজেপির হয়ে সওয়াল করতে গিয়ে বলেন আইনজীবী।

পালটা এই বক্তব্যের জবাবে বিচারপতি মৌসুমী বলেন, “নেতারা হাওড়ার ওই নির্দিষ্ট জায়গায় যাবেন কীভাবে? তাঁদের তো কলকাতা পেরিয়েই যেতে হবে। কলকাতা পেরিয়ে যাবেন কীভাবে? ট্র্যাফিক নিয়ে ইতিমধ্যেই সর্বত্র বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। বিকল্প রাস্তা নির্দিষ্ট করেছে প্রশাসন। তাঁদের তো আকাশপথে নিয়ে গিয়ে নামিয়ে দেওয়া হবে না! নেতাদের আগে বা পরে অন্য কোনও দিন আসতে বলুন। প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের বার্তা অন্য যেকোনও দিন দেওয়া যেতে পারে।”

Published by:Madhurima Dutta
First published:

Tags: 21 July Rally, 21 July Sahid Dibas

পরবর্তী খবর