Home /News /international /
Mount Everest : মাউন্ট এভারেস্টের শীর্ষবিন্দুর সামান্য নীচে ৮৮৩০ মিটার উচ্চতায় তৈরি বিশ্বের উচ্চতম আবহাওয়া কেন্দ্র

Mount Everest : মাউন্ট এভারেস্টের শীর্ষবিন্দুর সামান্য নীচে ৮৮৩০ মিটার উচ্চতায় তৈরি বিশ্বের উচ্চতম আবহাওয়া কেন্দ্র

World's Highest Weather Station

World's Highest Weather Station

World's Highest Weather Station: এই স্টেশন ঠিকঠাক কাজ করলে কমবে মাউন্ট এভারেস্ট অভিযানে দুর্ঘটনার সংখ্যা | দাবি বিজ্ঞানী থেকে পর্বতারোহীদের | 

  • Share this:

নয়াদিল্লি : মাউন্ট এভারেস্টে এবার স্থাপন হলো ওয়েদার স্টেশন বা আবহাওয়া কেন্দ্র | ন্যাশনাল জিওগ্রাফির বিজ্ঞানীদের একটি দল এবং বিশ্ববিখ্যাত কিছু পর্বতারোহীর সাহায্যে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৮৮৩০ মিটার উচ্চতায় এই স্টেশন তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন | পর্বতারোহী ও শেরপাদের দাবি এই স্টেশন তাদের কাছে সবচেয়ে বড় উপহার | এর আগে চিনের দিক থেকে এভারেস্টে ওঠার রাস্তায় এই ধরণের কিছু স্টেশন তৈরি হয়েছে, তবে এ বার হল নেপালের দিক থেকে |

পর্বতারোহীদের অভিজ্ঞতা, এভারেস্ট অভিযানে সব থেকে বেশি সমস্যা হয় আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনায় | যার কারণে একদিকে অভিযানের প্রচুর ক্ষতি হয়৷ এমনকি শেরপা থেকে পর্বতারোহীদের মৃত্যুও হয় বিশ্বের সর্বোচ্চ শৃঙ্গে | এভারেস্টের ওপর তৈরি হওয়া ৮৮৩০ মিটার উচ্চতায় এটাই  বিশ্বের সর্বোচ্চ আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র। জলবায়ু বিজ্ঞানী এবং বিশ্বখ্যাত পর্বতারোহীদের এই দলটি  এভারেস্ট অঞ্চলে প্রায় এক মাস সময় কাটিয়েছে এই স্টেশনটি সফল ভাবে প্রতিস্থাপন করতে |  শীর্ষবিন্দু বা সামিট পয়েন্টর (৮৮৪৮.৮৬ মিটার) সামান্য নীচে আবহাওয়া কেন্দ্রটি স্থাপন করা হয়েছে |

আরও পড়ুন : সৌমিত্র-স্বাতীলেখার মতো ‘বেলাশুরু’ দেখতে পাবেন না পবিত্রচিত্ত-গীতাও

সামিট পয়েন্টের নীচে সৌর প্যানেল দ্বারা চালিত স্বয়ংক্রিয় আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রটি বায়ুর তাপমাত্রা, বাতাসের গতি এবং দিক, বায়ুর চাপ, তুষারপৃষ্ঠের উচ্চতার পরিবর্তন পর্যবেক্ষণ করবে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা ।

আরও পড়ুন : অনীকের শ্রদ্ধার্ঘ্য নামেও ‘অপরাজিত’, কাজেও অপরাজিত! জিতুর অভিনয় অতুলনীয়

২০১৯-এর এপ্রিল-মে মাসে ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক সোসাইটি দ্বারা আয়োজিত মাউন্ট এভারেস্ট অভিযানের সময় পাঁচটি অস্থায়ী স্বয়ংক্রিয় আবহাওয়া স্টেশন স্থাপন  করা হয়েছিল |ব্যালকনি এলাকায় (৮,৪৩০ মিটার), সাউথ কোল (৭,৯৪৫ মিটার), ক্যাম্প II (৬,৪৬৪ মিটার), এভারেস্ট বেস ক্যাম্প (৫,৩১৫ মিটার), এবং ফোর্টসে (৩,৮১০ মিটার) আবহাওয়া স্টেশনগুলি ব্যালকনি স্টেশনটি স্থাপনের কয়েক মাস পরে ভেঙে পড়েছিল |

আরও পড়ুন : গাড়িতে উঠলেই অনেকে ঘুমিয়ে পড়েন, এর কারণ জানেন?

নেপাল সরকারের Department of Hydrology and Meteorology-র অধিকর্তা কমলরাম যোশি জানিয়েছেন নতুন স্টেশন সংক্রান্ত বিশদ বিবরণ আগামী সপ্তাহে প্রকাশ করা হবে | তিনি আরও বলেন এই অভিযানের সময় DHM ও ন্যাশনাল জিওগ্রাফি সংস্থার মধ্যে একটি মৌ (MOU) স্বাক্ষরিত হয়েছে | এভারেস্টজয়ী পর্বত আরোহী মলয় মুখোপাধ্যায়ের দাবি, এই স্টেশনটি যদি ঠিকঠাক কাজ করে তাহলে এভারেস্ট অভিযানে আবহাওয়া সংক্রান্ত কারণে দুর্ঘটনা ও অভিযাত্রীদের মৃত্যু অনেকটাই কমবে |

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Highest Weather Station, Mount Everest

পরবর্তী খবর